• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • WEST BENGAL FOREST DEPARTMENT IS BRINGING 20 ROYAL BENGAL TIGER IN BUXA TIGER RESERVE SANJ

West Bengal Forest Department : অসম থেকে বক্সায় আসছে 'রয়্যাল অতিথি'! একগুচ্ছ নয়া উদ্যোগ বন দফতরের...

রাজ্য বন দফতরের উদ্যোগ

বাঘের সংখ্যা বাড়াতে চায় রাজ্য বন দফতর (West Bengal Forest Department)। অসম থেকে আনা ২০টি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের (Royal Bengal Tiger) ঠিকানা হবে বক্সা ব্যাঘ্র সংরক্ষণ প্রকল্প (Buxa Tiger Reserve)।

  • Share this:

#কলকাতা : করোনা কালেই রাজ্যে আসছে অতিথি! তারা পাকাপাকিভাবেই আগামীদিনে থাকতে চান এই বাংলায়। তবে যে সে অতিথি নয়। এ একেবারে রয়্যাল অতিথি। রাজ্য বন দফতর সূত্রে খবর, বক্সা রিজার্ভ ফরেস্টে আসতে চলেছে ২০টি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার (Royal Bengal Tiger)। পুজোর আগেই তাদের অসম (Assam) থেকে চলে আসার কথা এই রাজ্যে। অসম থেকে আনা ২০টি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের (Royal Bengal Tiger) ঠিকানা হবে বক্সা ব্যাঘ্র সংরক্ষণ প্রকল্প (Buxa Tiger Reserve)। এখানেই চলবে এদের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম। অর্থাৎ আবহাওয়ার সাথে চলবে খাপ খাওয়ানো।

বক্সার অরণ্যের সঙ্গে খুব একটা ফারাক নেই অসমের। জঙ্গলের পরিবেশ এবং গাছের ঘনত্বের কিছুটা হেরফের আছে। তবে বন দফতরের আধিকারিকরা জানাচ্ছেন এখানে থাকতে অসুবিধা হবে না রয়্যাল অতিথিদের। আবহাওয়া-প্রকৃতি ও খাদ্যের অভাব ঘটবে না। এছাড়া বিগত কয়েক বছর ধরেই বক্সা প্রকল্পকে বাঘেদের আস্তানা হিসাবে গড়ে তোলার চেষ্টা হচ্ছে। বক্সা প্রকল্পের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে হরিণ, জংলি শুয়োর, সম্বর, গাউর রয়েছে। ফলে খাদ্য-খাদকের অনুপাত স্বাভাবিক রয়েছে এখানে। ফলে অসমের রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের খাবারের অভাব ঘটবে না।

রাজ্যের বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, রাজ্যে বাঘের সংখ্যা আরও বাড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। অসমে রয়্যাল বেঙ্গলের সংখ্যা বেড়েছে। তাই প্রতিবেশী রাজ্যের থেকে নেওয়া হচ্ছে বাঘ। আমরা বক্সার সংরক্ষিত অরণ্যে স্থায়ী প্রজনন কেন্দ্র তৈরি করতে চাই। প্রসঙ্গত, বক্সার জঙ্গলে বাঘ আছে বলে দীর্ঘদিন বলে দাবি করা হয়। এই প্রকল্প সাফল্য পেলে নেওড়া ভ্যালিতেও বাঘ নিয়ে আসার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যে ২০ বাঘ নিয়ে আসা হবে তার মধ্যে ১৪টি মহিলা ও ৬টি পুরুষ  থাকবে বলে জানা যাচ্ছে। বক্সার জঙ্গল উত্তরের অন্যতম বড়। এর বিস্তার রয়েছে ভূটান সীমানা অবধি। তবে এই সংরক্ষিত অরণ্যে চিতা বাঘ আছে বলেও বন দফতর সূত্রে খবর। একই সাথে এই অরণ্যে বাঘ ও চিতা অবশ্য থাকবে না। রাজ্য বন দফতর সূত্রে খবর, হাতি, গন্ডারের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। এবার বাঘের সংখ্যাও বাড়াতে চায় রাজ্য।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: