West Bengal Election Results 2021: 'গদ্দারি' মানল না বাংলা, তৃণমূলত্যাগীদের সিংহভাগেরই কপালে জুটল হার!

West Bengal Election Results 2021: 'গদ্দারি' মানল না বাংলা, তৃণমূলত্যাগীদের সিংহভাগেরই কপালে জুটল হার!

'গদ্দারি' মানল না বাংলা, তৃণমূলত্যাগীদের সিংহভাগেরই কপালে জুটল হার!

ভোটের ফলে (West Bengal Election Results 2021) সেই দল বদলানো নেতা-নেত্রীদের সিংহভাগেরই জয় অধরা।

  • Share this:

    #কলকাতা: 'দলে থেকে কাজ করতে পারছি না'। জোড়া ফুল ছাড়ার আগে মন্ত্রের মতো এই কথাটাই জপ করতেন একাধিক নেতা-নেত্রী। কিন্তু ফুল বদলালেও 'কাজের সুযোগ' আর মিলল কই! ভোটের ফল বলছে, 'দলবদলু' নেতা-নেত্রীদের 'কাজের সুযোগ' দিলেন না বাংলার মানুষ। বিধানসভা ভোটের (West Bengal Assembly Election 2021) মুখে অনেকেই প্রথমে সুর বদলেছিলেন, তার পর বদলেছিলেন শিবির। ভোটের ফলে (West Bengal Election Results 2021) সেই দল বদলানো নেতা-নেত্রীদের সিংহভাগেরই জয় অধরা।

    শুভেন্দু অধিকারীর পর শিবির বদলানো নেতাদের মধ্যে সবচেয়ে হেভিওয়েট নাম নিঃসন্দেহে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ সদস্যপদ ছেড়ে ভোটের মুখে পদ্মশিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন তিনি। এক দশক আগে যিনি বামদুর্গে ঘাসফুল ফুটিয়েছিলেন, তিনি কি এবার পারবেন তৃণমূলের গড়ে পদ্ম ফোটাতে? সেটাই ছিল লাখ টাকার প্রশ্ন। রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূলের কল্যাণেন্দু ঘোষ ও সিপিএমের উত্তম বেরা। পুরনো মাঠে নতুন দলের ঝান্ডা নিয়ে ভোটপ্রচারে নেমেছেন 'ডোমজুড়ের ঘরের ছেলে'। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কোনও কিছুই কাজে এল না। হেরে গেলেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

    ভোটের বাংলায় বারে বারে কাজ করার ইচ্ছের কথা শোনা গিয়েছে বিভিন্ন 'দলবদলু' নেতাদের গলায়। তেমনই একজন সব্যসাচী দত্ত। বিজেপিতে যোগ দিয়ে এবার বিধাননগরে জোর টক্করে নেমেছিলেন তৃণমূলের প্রার্থী সুজিত বসুর বিরুদ্ধে। ময়দানে ছিলেন সংযুক্ত মোর্চার কংগ্রেস প্রার্থী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রচারে খামতি রাখেননি সব্যসাচী দত্ত। কিন্তু তৃণমূলের সুজিত বসুর বিরুদ্ধে হেরে গিয়েছেন তিনি।

    ভোটের আগে টানটান উত্তেজনা ছিল আসানসোলের প্রাক্তন মেয়র তথা পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে নিয়েও। এক সময় জিতেন্দ্র তিওয়ারি বলেছিলেন, 'আমি কখনোই বলিনি, বিজেপিতে যাব। বলেছিলাম, দল ছাড়ার কথা। তবে, রাজনৈতিক সন্ন্যাস বা অবসর কোনওটাই নয়। আমি তৃণমূলেই থাকছি। এখন আর কোনও ক্ষোভ নেই। সব মিটে গিয়েছে।' বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর তাঁকে পাণ্ডবেশ্বরে ভোটের টিকিট দিয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটি কাজে এল না।

    অন্যদিকে, উত্তরপাড়া থেকে প্রবীর ঘোষাল, বালি থেকে বৈশালী ডালমিয়া ও ডোমজুড়ের প্রাক্তন বিধায়ক রথীন চক্রবর্তীও এবারের ভোটে হেরে গিয়েছেন। তিনি শিবপুর থেকে বিজেপির টিকিট পেয়েছিলেন।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: