• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • WEST BENGAL CORONA UPDATE DARJEELING AND PASCHIM MEDINIPUR ARE MOST COVID PATIENTS DISTRICTS WITHIN 24 HOURS SB

West Bengal Corona: বাংলার করোনা-চিন্তা দার্জিলিং, মেদিনীপুর! ভ্রমণ পিপাসুরা শুনছেন তো?

সতর্কতার বিকল্প নেই...

West Bengal Corona: দার্জিলিং সহ রাজ্যের পর্যটন কেন্দ্রগুলিতেও ভিড় বাড়ছে। ফলে সংক্রমণের নিম্নগামী গতি ধরে রাখতে সতর্কতা একান্তই জরুরি বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

  • Share this:

    #কলকাতা: দ্বিতীয় ঢেউ সামলে যখন সুস্থতার পথে এগোচ্ছে বাংলা, তখন ফের চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে কলকাতা, মেদিনীপুরের জায়গা। কমতে কমতে হঠাৎই সংক্রমণ বাড়ল কলকাতায়। বুধবারের স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৫ জন। মঙ্গলবার যা ছিল ৫৯। স্বাভাবিক কারণেই গোটা রাজ্যেই দৈনিক সংক্রমণ খানিক বাড়ল। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৯৮২ জন। এই সময়ের মধ্যে করোনায় মারা গিয়েছেন ১৬ জন। তবে, ২৪ ঘণ্টায় সুস্থও হয়ে উঠেছেন ১৫৮৬ জন। ফলে এ যাবৎ বাংলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৫ লক্ষ ০৮ হাজার ২২৩ জন আর মৃত্যু ১৭, ৮৫০ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় টেস্ট হয়েছে ৪৭, ১৮৯টি। বাংলার পজিটিভিটি রেট কমতে কমতে এসে দাঁড়িয়েছে ২.০৮ শতাংশে।

    জেলার হিসেবে দেখতে গেলে এখনও এগিয়ে আছে সেই উত্তর ২৪ পরগনাই। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় দুশ্চিন্তা বাড়িয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুর। ২৪ ঘণ্টায় উত্তর ২৪ পরগনায় যেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৪ জন, আর পশ্চিম মেদিনীপুরে সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ১০২ জন। কলকাতায় আক্রান্ত ৮৫ জন। দার্জিলিং ৯৫ জন, হুগলিতে ৬৮ জন, হাওড়ায় ৬৬, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৪৪, পশ্চিম বর্ধমানে ২০, পূর্ব বর্ধমানে ৩৪, পূর্ব মেদিনীপুরে ৬৮, ঝাড়গ্রামে ২৪, বাঁকুড়ায় ৩৭, পুরুলিয়ায় ৪, বীরভূমে ১৩, নদীয়ায় ৪৯, মুর্শদাবাদে ৯, মালদায় ১২, দক্ষিণ দিনাজপুরে ২০, উত্তর দিনাজপুরে ৭, জলপাইগুড়িতে ৪১, কালিম্পংয়ে ১৪, দার্জিলিংয়ে ৯৫, কোচবিহারে ৫৮ ও আলিপুরদুয়ারে ১৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

    মৃত্যুর সংখ্যার নিরিখে এগিয়ে সেই উত্তর ২৪ পরগনাই। সেখানে ২৪ ঘণ্টায় ৪ জন, কলকাতা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হুগলি, দার্জিলিংয়ে ২ জন করে এবং কালিম্পং, নদীয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব বর্ধমানে মারা গিয়েছেন ১ জন করে। ফলে সংক্রমণ কমলেও চিন্তা রয়েই গিয়েছে কিছু জেলা নিয়ে। এই অবস্থায় দার্জিলিং সহ রাজ্যের পর্যটন কেন্দ্রগুলিতেও ভিড় বাড়ছে। ফলে সংক্রমণের নিম্নগামী গতি ধরে রাখতে সতর্কতা একান্তই জরুরি বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

    Published by:Suman Biswas
    First published: