কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

শীতের আমেজেই বড়দিন, বর্ষশেষে কনকনে ঠান্ডার ধাক্কা: হাওয়া অফিস

শীতের আমেজেই বড়দিন, বর্ষশেষে কনকনে ঠান্ডার ধাক্কা: হাওয়া অফিস

বর্ষশেষে আরও একটি কনকনে ঠান্ডার স্পেলের সম্ভাবনা বাড়ছে।

  • Share this:

শীতের আমেজেই কাটবে বড়দিন। আজও শৈত্য প্রবাহের পরিস্থিতি দক্ষিণবঙ্গের তিন জেলায়। উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের নিচেই থাকবে। বর্ষশেষে আরও একটি কনকনে ঠান্ডার স্পেলের সম্ভাবনা বাড়ছে।

কলকাতায় আজ সামান্য বাড়ল তাপমাত্রা। গতকালের থেকে ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়েছে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। আজ সকালে কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস নীচে। গতকাল বিকেলে কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৪.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি নিচে। বাতাসে আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ ৫২ থেকে ৯৮ শতাংশ।

কলকাতায় আজ সকালে সামান্য কুয়াশা ও পরে পরিষ্কার আকাশ। উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলাতে সকালে কুয়াশা পরিষ্কার আকাশ থাকবে।

দক্ষিণবঙ্গের তিন জেলায় আজ ও শৈত্যপ্রবাহের পরিস্থিতি। পুরুলিয়া বীরভূম মুর্শিদাবাদে শৈত্যপ্রবাহের পরিস্থিতি। দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাতেও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের নিচে থাকবে। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের নিচে থাকবে । ঝাড়খন্ডেও একই পরিস্থিতি। উত্তরবঙ্গে আজ কুয়াশার সতর্কতা।

কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা১২ থেকে ১৩ ডিগ্রীর পাশে পাশে থাকবে। জেলায় জেলায় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রির কাছাকাছি থাকবে।

২৪  ডিসেম্বর নতুন করে একটি পশ্চিমী ঝঞ্জা আসবে জম্মু ও কাশ্মীরে। এর প্রভাবে আবহাওয়া পরিবর্তন হবে উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলি তে। সপ্তাহান্তে (২৬ Dec) জম্মু কাশ্মীর লাদাখ মুজাফফরাবাদ এবং হিমাচল প্রদেশ বৃষ্টিপাত ও তুষার পাতের সম্ভাবনা। উত্তর-পশ্চিম ভারতের সেই শীতল হাওয়া এসে বছরের শেষে আরো একটি কনকনে ঠান্ডার স্পেল আনতে পারে বাংলায়। অনুমান আবহাওয়াবিদদের।

আগামী কয়েকদিন উত্তর-পশ্চিম ভারতের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়বে ২ ডিগ্রি পর্যন্ত তাপমাত্রা বাড়তে পারে আগামী দু-তিন দিনে।পশ্চিম ভারতে আগামী ৪৮ ঘণ্টায় কোন পরিবর্তন হবে না তাপমাত্রায় পরবর্তী তিনদিনের ৩ ডিগ্রি পর্যন্ত তাপমাত্রা বাড়তে পারে। অন্যদিকে আগামী দু তিন দিনে তিন ডিগ্রি পর্যন্ত তাপমাত্রা কমতে পারে উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলি তে।

আগামী কয়েকদিন শৈত্যপ্রবাহ থাকবে পূর্ব উত্তর প্রদেশ ও বিহারে। পশ্চিম উত্তর প্রদেশ ও বিহারে কোন পরিস্থিতি থাকবে। ওড়িশায় আগামী ৪৮ ঘণ্টায় শৈত্যপ্রবাহের সর্তকতা। পাশাপাশি আবহবিদরা জানাচ্ছেন, বৃহস্পতিবার ঘন কুয়াশার চরম সর্তকতা দিল্লিতে।হরিয়ানা চন্ডিগড় দিল্লি এবং উত্তরপ্রদেশে। ঘন কুয়াশা থাকবে ২৫ শে ডিসেম্বর. বড়দিন পর্যন্ত।

হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে মলদ্বীপ ,দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও দক্ষিন বাংলাদেশে। পুবালি হাওয়ার প্রভাব রয়েছে দক্ষিণ ভারতে। তামিলনাড়ু করাইকাল লাক্ষাদ্বীপে বৃষ্টির পূর্বাভাস।

Published by: Arka Deb
First published: December 24, 2020, 1:34 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर