H.S. Exam 2021: উচ্চমাধ্যমিক নিজের স্কুলেই, বাতিল রাজ্যের একাদশের পরীক্ষা

H.S. Exam 2021: উচ্চমাধ্যমিক নিজের স্কুলেই, বাতিল রাজ্যের একাদশের পরীক্ষা

একাদশ ও উচ্চমাধ্যমিক নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত রাজ্যের।

এখনও পর্যন্ত মনে করা হচ্ছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা হতে পারে আগামী ১৫ জুন। শিক্ষা দফতর অবশ্য পরিস্থিতি বুঝে এই সিদ্ধান্ত বিবেচনা করতে পারে।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা পরিস্থিতিতে উচ্চমাধ্যমিক নিয়ে বড় ঘোষণা শিক্ষা দফতরের। উচ্চশিক্ষা সংসদের ঘোষণা অনুযায়ী, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা এই করোনা পরিস্থিতিতে পরীক্ষা দিতে পারবেন হোম সেন্টারে। অর্থাৎ পরীক্ষা দিতে বাইরের কোনও কেন্দ্রে যেতে হবে না তাদের।  এখনও পর্যন্ত মনে করা হচ্ছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা হতে পারে আগামী ১৫ জুন। শিক্ষা দফতর অবশ্য পরিস্থিতি বুঝে এই সিদ্ধান্ত বিবেচনা করতে পারে। শিক্ষা দফতরের দেওয়া বিবৃতিতে জানানো হয়েছে,  করোনা পরিস্থিতির উপর সংসদ নিয়মিত নজর রাখছে। প্রয়োজনে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে সংসদ। সেক্ষেত্রে সেই সিদ্ধান্ত সংশ্লিষ্ট সকলকেই জানিয়ে দেওয়া হবে।

সূত্রের খবর, ছাত্রছাত্রীর ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখেই বাতিল হচ্ছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার সময়সূচিও। আগে কথা ছিল উচ্চমাধ্যমিক হবে সকাল ১০টা থেকে ১টা ১৫মিনিট পর্যন্ত। নতুন বিবৃতি অনুযায়ী ছাত্রছাত্রীদের কথা মাথায় রেখেই পরীক্ষা শুরু হবে দুপুর ১২টায়।  চলবে দুপুর  ৩টে ১৫ মিনিট পর্যন্ত।

উল্লেখ্য এ দিন একাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষা নিয়েও বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য। এ বছরের জন্য  একাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষা বাতিল করছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। ছাত্র-ছাত্রীদের দ্বাদশ শ্রেণিতে তুলে দেওয়া হবে, আজ এমনটাই সিদ্ধান্ত জানালো রাজ্য। রাজ্যের বেলাগাম করোনা পরিস্থিতির কারণেই একাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষা বাতিল করা হচ্ছে বলে জানাচ্ছে রাজ্যের উচ্চশিক্ষা দফতর।‌

তবে এখনও পরিকল্পনা অনুযায়ী উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা হবে এখনো পর্যন্ত সূচি মেনেই। নিজেদের স্কুলের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে পারবেন ছাত্রছাত্রীরা এমনটাই সিদ্ধান্ত সংসদের।

করোনার কারণে ২০২০ সালেও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা সম্পূর্ণ নেওয়া যায়নি।  এ বছরও ইতিমধ্যেই দশম ও দ্বাদশের পরীক্ষা বাতিল করেছে সিবিএসসি ও আইসিএসি বোর্ড। এবার অন্তত একাদশের ক্ষেত্রে সেই পথেই হাঁটছে রাজ্য। অন্য দিকে মাধ্যমিকের নোটিস দেওয়া হয়েছে ১ জুন থেকে।

Published by:Arka Deb
First published: