Home /News /kolkata /

Election News: ভোট হচ্ছেই! হবে না রোড শো, বাইক মিছিল, পাঁচ জন নিয়ে দরজায় দরজায় প্রচার

Election News: ভোট হচ্ছেই! হবে না রোড শো, বাইক মিছিল, পাঁচ জন নিয়ে দরজায় দরজায় প্রচার

ফাইল চিত্র

ফাইল চিত্র

Municipal election: সোমবার রাজ্য নির্বাচন কমিশন, মুখ্য সচিব,স্বরাষ্ট্র সচিব ও স্বাস্থ্য সচিবের সঙ্গে বৈঠক করে। সেই বৈঠকে নির্বাচন সংক্রান্ত গাইডলাইন তৈরি করা হয় বলেই রাজ্য নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর।

  • Share this:

#কলকাতা: পুরভোট হচ্ছে নির্দিষ্ট দিনেই। অর্থাৎ ২২ জানুয়ারি যে চার পুর নিগমের নির্বাচন রয়েছে, তা নির্দিষ্ট সময়েই হবে। তবে সেই ভোটের প্রচারে মানতে হবে অনেকগুলি নিয়ম। কড়া বিধিনিষেধের আওতায় থেকে প্রচার থেকে ভোট প্রক্রিয়া পরিচালনা করার কথা ঘোষণা করেছে কমিশন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, বাধ্যতামূলক ভাবে মাস্ক পরার পাশাপাশি আরও কিছু নিয়ম মানতে বলা হয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে।

সোমবার রাজ্য নির্বাচন কমিশন, মুখ্য সচিব,স্বরাষ্ট্র সচিব ও স্বাস্থ্য সচিবের সঙ্গে বৈঠক করে। সেই বৈঠকে নির্বাচন সংক্রান্ত গাইডলাইন তৈরি করা হয় বলেই রাজ্য নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর। সেই বৈঠকেই ২২ শে জানুয়ারি ভোট হবে বলেই কার্যত চূড়ান্ত হয়ে যায়। কিন্তু ভোট হলেও প্রচার কর্মসূচির ক্ষেত্রে একাধিক বিধিনিষেধ জারির পাশাপাশি ভোটগ্রহণ কেন্দ্রেও একাধিক বিধিনিষেধ জারি থাকবে। রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দেওয়া বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী কোনও পদযাত্রা বা রোড-শো করা যাবে না। কোনও সাইকেল,বাইক বা গাড়ি মিছিল করা যাবে না। 'ডোর টু ডোর' প্রচার করতে হলে ৫ জনের বেশি সমর্থক কোনও প্রার্থী নিয়ে যেতে পারবেন না।

আরও পড়ুন: ফের বন্ধ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়, কীভাবে হবে ক্লাস? উচ্চ শিক্ষা দফতরের নির্দেশিকা জারি...

বড় জনসভা বা কোন অডিটোরিয়ামে জনসভা করলে সেখানে কতজন সমর্থক থাকতে পারবে তা নিয়েও বিস্তারিত গাইড লাইন দিয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দেওয়া গাইডলাইন অনুযায়ী কোন একটি রাজনৈতিক দল যদি খোলা জায়গায় সভা করে তাহলে ৫০০ জনের বেশি সভায় প্রবেশের অনুমতি দেওয়া যাবে না। এ ক্ষেত্রে যদি কোনো অডিটরিয়ামে জনসভা করে তাহলে সেই অডিটোরিয়ামে সব থেকে বেশি ২০০ জন বা অডিটোরিয়ামে যত আসনসংখ্যা থাকবে তার ৫০% আসনে এই সভা করতে পারবে। পাশাপাশি যদি কোনও রাজনৈতিক দলকে ইতিমধ্যেই রোড শো পথসভা মিছিলের জন্য অনুমতি দিয়ে দেওয়া হয়ে থাকে সেই অনুমতিগুলি বাতিল করা হবে, এমনটাও রাজ্য নির্বাচন কমিশনের তরফ জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: রাত দশটায় ছাড়বে শেষ লোকাল, আজ থেকেই নির্দেশ কার্যকর

পাশাপাশি কোনওরকম জনসভা পথসভা বা নির্বাচন সংক্রান্ত সভা রাত আটটা থেকে পরের দিন সকাল ৯ টা পর্যন্ত করা যাবে না এমনটাও জানিয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। অন্যদিকে নির্বাচনের ৭২ ঘন্টা আগে থেকেই এবার কোন রকম প্রচার কর্মসূচি করা যাবে না। সোমবার রাজ্য নির্বাচন কমিশন বিস্তারিত গাইড লাইন দিয়ে জানিয়েছে। ইতিমধ্যেই এই গাইডলাইন প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দলকে ও পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি ভোটগ্রহণ কেন্দ্রগুলিতে যাতে কোভিদ প্রটোকল মানা হয় সেই বিষয়েও এদিন  আলোচনা হয়েছে। মূলত প্রত্যেকটি ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের মাস্ক বাধ্যতামূলক করার পাশাপাশি পর্যাপ্ত স্যানিটাইজার এর ব্যবস্থা যদি থাকে সেই বিষয়েও রাজ্য প্রশাসনকে নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের তরফে। যে সমস্ত ভোটাররা করোনাতে আক্রান্ত হয়ে ভোট দিতে যাবেন তাদের ভোট গ্রহণের শেষ এক ঘন্টা সময় ভোট দেওয়ার অনুমতি থাকবে। এমনটাই জানানো হয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের তরফে।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Election Commision

পরবর্তী খবর