• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • একুশে জুলাই মামলায় আইনজীবী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের  যে গাউন পরেছিলেন দেখে নিন সেটা

একুশে জুলাই মামলায় আইনজীবী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের  যে গাউন পরেছিলেন দেখে নিন সেটা

কেন্দ্রের আয়ুষ্মান প্রকল্প নিয়েও আক্রমণ শানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ বলেন, ‘কেন্দ্রের প্রকল্পে ৬০ কেন্দ্র ও ৪০ রাজ্যকে দিতে হয় ৷ আমাদের স্বাস্থ্যসাথীতে ১০০ টাকাই আমরা দিই ৷ এতে ৫ লক্ষ টাকার সুবিধা পাবেন ৷ ‘স্বাস্থ্য সাথী’ প্রকল্প এনেছি দু’বছর আগেই ৷ এখন ওরা চায় আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প রূপায়ন করতে ৷ ’Photo- File

কেন্দ্রের আয়ুষ্মান প্রকল্প নিয়েও আক্রমণ শানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ বলেন, ‘কেন্দ্রের প্রকল্পে ৬০ কেন্দ্র ও ৪০ রাজ্যকে দিতে হয় ৷ আমাদের স্বাস্থ্যসাথীতে ১০০ টাকাই আমরা দিই ৷ এতে ৫ লক্ষ টাকার সুবিধা পাবেন ৷ ‘স্বাস্থ্য সাথী’ প্রকল্প এনেছি দু’বছর আগেই ৷ এখন ওরা চায় আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প রূপায়ন করতে ৷ ’Photo- File

৯ জুলাই ১৯৯৬, উকিলি কালো পোশাক পরে যুব কংগ্রেস কর্মীদের হয়ে মামলায় সওয়াল করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ২৫ বছর সেই পোশাক যত্নে রেখেছেন

  • Share this:

#কলকাতা: সামনেই ২০২১। বিধানসভা নির্বাচন। রাজ্যের শাসক নির্ধারণের বছর। তার আগে এবারের একুশে জুলাই নিয়ে তৃণমূলের আবেগ অপরিসীম। ১৯৯৪ সাল থেকে একুশে আবেগ বহমান। মহাকরণ অভিযান সম্পর্কিত হেস্টিংস থানার মামলায় ব্যাঙ্কশাল আদালতে শুনানিতে অংশগ্রহণ করেছিলেন তৎকালীন বিরোধী দলের নেত্রী তথা 'আইনজীবী' মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ৯ জুলাই ১৯৯৬, উকিলি কালো পোশাক পরে  যুব কংগ্রেস কর্মীদের হয়ে মামলায় সওয়াল করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই উকিলি পোশাক সযত্নে ২৫ বছর আগলে রেখেছেন বেহালার অলোক কুমার দাস।

  উল্লেখ্য, অলোককুমার দাস আইনজীবী ছিলেন, তাঁর আইনি পোশাকটি পড়েই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যুব কর্মীদের মামলা মুক্ত করতে ষষ্ঠ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট এজলাসে সওয়াল করেন ছিয়ানব্বই এর ৯ জুলাই । একুশে জুলাই সেই স্মৃতিময় পোশাক শ্রদ্ধা স্বরূপ  'উপহার' হিসাবে দিতে চান ওই আইনজীবী। নিউজ১৮ বাংলার মাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রী উদ্দেশ্যে তাঁর আবেদন, একুশে আবেগের স্মৃতি জানুক ভবিষ্যৎ প্রজন্ম। আইনজীবী ভূমিকায় এজলাসে ঝড় তোলা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গায়ে ছিল সেদিন আইনজীবী অলোককুমার দাসের গাউন।

 গত ২৫ বছর ধরে পরম যত্নে তা বাড়িতে তুলে রেখেছেন আইনজীবী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পোশাকটি পড়ার পর আজ পর্যন্ত তা আর শরীরে তোলেন নি অলোকবাবু। প্রতি বছর নিয়ম করে পোশাকটি পরিষ্কারের পর তা আয়রন করে সযত্নে তুলে রাখেন। এবছরও পরিষ্কারের পর তা ঘুছিয়ে রেখেছেন তিনি। তবে এবার তা মুখ্যমন্ত্রী হাতে তুলে দিতে চান উপহার স্বরূপ। করোনা আবহে এবারের একুশে জুলাইয়ের ভার্চুয়াল সভা। তাই ইচ্ছে থাকলেও মঞ্চে যাওয়ার উপায় নেই। তাই নিউজ১৮ বাংলার মাধ্যমে নিজের পোশাক মুখ্যমন্ত্রী কাছে পৌঁছে দেওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ।

 মুখ্যমন্ত্রীর রাজনৈতিক জীবনের একাধিক চড়াই-উতরাই। সেই বর্ণময় রাজনৈতিক জীবনের একটা অধ্যায় অবশ্যই আইনজীবী হিসেবে মামলায় সওয়াল। অলোককুমার দাসের কথায়, "মুখ্যমন্ত্রীর সংগ্রহশালায় জায়গা পাক উকিলি পেশাক। যা পরে তিনি মামলায় লড়েন ৪৩ যুব কর্মী কে মিথ্যা মামলার হাত থেকে বাঁচাতে। এই শ্রদ্ধাস্বরূপ ইচ্ছে  পৌঁছে দিন মুখ্যমন্ত্রীর কাছ পর্যন্ত। বর্তমান প্রজন্ম জানুক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক লড়াই।"তবে একটা আক্ষেপ আজও বারেবারে মনে ভিড় করে অলোকবাবুর। মামলার পর ২৭ বছর কেটে গেছে। আজও অধরা বিচার। তবু লড়াই চালিয়ে যেতে চান জীবনের শেষদিন পর্যন্ত। পারবেন লড়াই জিততে? অলোকবাবুর উত্তর,  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছ থেকে লড়াইয়ের পাঠ নিয়েছি, নিশ্চিত পারব।

ARNAB HAZRA

Published by:Debalina Datta
First published: