corona virus btn
corona virus btn
Loading

অনলাইনে ক্লাস কীভাবে?‌ স্কুল খুললেও মানতে হবে কী কী নিয়ম?‌ শিক্ষকদের ভার্চুয়াল প্রশিক্ষণ রাজ্যে

অনলাইনে ক্লাস কীভাবে?‌ স্কুল খুললেও মানতে হবে কী কী নিয়ম?‌ শিক্ষকদের ভার্চুয়াল প্রশিক্ষণ রাজ্যে

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ কাটিয়ে রাজ্যে কবে থেকে স্কুল খুলবে তা এখনও নিশ্চিত নয়।

  • Share this:

#‌কলকাতা:‌ সরকারি এবং সরকার নিয়ন্ত্রিত স্কুলে কিভাবে অনলাইনে ক্লাস নিতে হবে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের? শুধু তাই নয়, করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে স্কুল খুললে ক্লাসরুমে কিভাবে ক্লাস নিতে হবে? তার জন্যই এবার ভার্চুয়ালি শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দিতে শুরু করল রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতর। সারাদেশের মধ্যে এরাজ্যে প্রথম শিক্ষকদের ভার্চুয়ালি প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। লকডাউন এবং করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য রাজ্যজুড়ে স্কুল বন্ধ রয়েছে। কিন্তু অনলাইনে ক্লাস নেওয়া হলেও তার জন্য প্রশিক্ষণের দরকার শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। আর তাই এই পদক্ষেপ নেওয়া হল রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতরের উদ্যোগে।

মধ্যশিক্ষা পর্ষদ, সিলেবাস কমিটি এবং সর্বশিক্ষা মিশনের উদ্যোগে চলতি সপ্তাহ থেকেই ভার্চুয়ালি প্রশিক্ষণ দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে রাজ্যের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। প্রাথমিকভাবে নবম ও দশম শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের কিভাবে ক্লাস নেওয়া উচিত তারই প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু হয়েছে। এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে সিলেবাস কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার বলেন, ‘‌সাধারণত শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ বিভিন্ন জেলায় গিয়ে গিয়েই দেওয়া হত। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ বিভিন্ন জেলায় গিয়ে গিয়ে দেওয়া সম্ভব নয়। তবে লকডাউন এবং করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য অনলাইন ক্লাসে ছাত্রছাত্রীরা পিছিয়ে পড়বে এটা তো হতে পারে না। তাই ভার্চুয়ালি শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে লকডাউন এবং পরবর্তী পরিস্থিতিতে যখন স্কুল খুলবে তখন কিভাবে ক্লাস নিতে হবে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের, তার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে।’‌

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ কাটিয়ে রাজ্যে কবে থেকে স্কুল খুলবে তা এখনও নিশ্চিত নয়। যদিও সম্প্রতি সাংবাদিক বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, পরিস্থিতি ঠিক হলে শিক্ষক দিবস থেকে স্কুল খোলার কথা ভাবা যেতে পারে। যদিও সেটি হবে অলটারনেটিভ দিনে। কিন্তু টানা চার মাসেরও বেশি সময় সময় ধরে রাজ্য স্কুল বন্ধ রয়েছে। স্কুল বন্ধ থাকার জেরে ক্লাসরুমের পঠন-পাঠন থেকে অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছেন এ রাজ্যের সরকারি এবং সরকার নিয়ন্ত্রিত স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা। রাজ্যজুড়ে বেসরকারি স্কুলগুলির বেশিরভাগই অনলাইনে ক্লাস নেওয়া চলছে। সরকারি স্কুলগুলির ক্ষেত্রেও অনেক বিষয়ে অনেক শিক্ষকরা অনলাইনে ক্লাস নিলেও প্রত্যন্ত অঞ্চলে অবশ্য অনলাইনে ক্লাস নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তবুও অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার জন্য কি কি বিষয়কে মাথায় রেখে চলতে হবে তার জন্যই এবার শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ ভার্চুয়ালি দেওয়া শুরু করল রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতর। শুধু তাই নয় এর পাশাপাশি ভার্চুয়ালি শিক্ষকদের জানানো হচ্ছে ক্লাস নেওয়ার ক্ষেত্রে কোন কোন অধ্যায় বা বিষয়কে অগ্রাধিকার দিতে হবে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। আপাতত নবম ও দশম শ্রেণির ছাত্র ছাত্রীদের অনলাইনে এবং করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে স্কুল খুললে কিভাবে ক্লাসরুমে ক্লাস করাতে হবে তার প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে সিলেবাস কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার বলেন ‘‌নবম-দশম শ্রেণিকে বেছে নেওয়ার কারণ হল, প্রথমত দশম শ্রেণিতেই থাকে বোর্ডের পরীক্ষা। আর নবম শ্রেণির পড়াশোনা অনেকটা দশম শ্রেণির ক্ষেত্রে কাজে লাগে। তাই এই দুই শ্রেণিকে বাছা হয়েছে।’‌

প্রত্যেকটি জেলা থেকে চারজন করে শিক্ষককে নিয়ে এই প্রশিক্ষণের পর্ব চলছে। প্রত্যেকটি বিষয়ের এবং প্রত্যেকটি মাধ্যমেরই শিক্ষক শিক্ষিকাদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। জেলাব্যাপী চারজন করে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রশিক্ষণের পর ওই চার জন প্রশিক্ষিত শিক্ষক শিক্ষিকা জেলার বাকি শিক্ষক শিক্ষিকাদের প্রশিক্ষণ দেবেন। পুরো প্রশিক্ষণের পর্বটাই ভার্চুয়ালি করা হবে। অন্যদিকে খুব শীঘ্রই টেলিফোন মারফত ক্লাস নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হতে চলেছে বলেই স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: July 31, 2020, 5:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर