• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • VIRAL SRILANKAN SONG MANIKE MANGE HITHE WILL HIT KOLKATA DURGA PUJA THIS YEAR WATCH SDG

Manike Mage Hithe| Durga Puja 2021|| কলকাতার পুজোয় সিংহলী ছোঁয়া! প্যান্ডেলেও বাজবে ট্রেন্ডিং 'মানিকে মাগে হিঠে'! কোথায় জানেন?

কলকাতার পুজোয় সিংহলী ছোঁয়া।

Manike Mange Hithe Remake| Durga Puja 2021: এ বারে কলকাতার পুজোতেও লাগতে চলেছে সিংহলী ছোঁয়া। অতিমারী (Covid 19 Pandemic) আবহে মা দুর্গাকে এই গান গেয়েই স্বাগত জানাতে প্রস্তুত হচ্ছে অর্জুনপুর আমরা সবাই (Arjunpur Amra Sobai)।

  • Share this:

#কলকাতা: 'মানিকে মাগে হিঠে' (Manike Mage Hithe), আট থেকে আশি এখন মজেছে সিংহলী এই গানে। মাত্র কয়েকদিনের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) জনপ্রিয়তার শিখর ছুঁয়েছে ইওহানি ডি’সিলভার (Yohani Diloka De Silva) মিষ্টি প্রেমের গানটি। ইতিমধ্য্যেই বাংলা থেকে হিন্দি, এবং দক্ষিণের নানা ভাষায় গানটি রিমেক বানিয়ে গাওয়া হয়েছে। সেগুলিও জনপ্রিয় হয়েছে একে একে। ফলে কলকাতার দুর্গাপুজোর মতো বিশ্বমানের উৎসবে এই গান বাজবে না, তা আবার হয় নাকি? না, হয়ও নি। এ বারে কলকাতার পুজোতেও লাগতে চলেছে সিংহলী ছোঁয়া। অতিমারী (Covid 19 Pandemic) আবহে মা দুর্গাকে এই গানের বাংলা রিমেক গেয়েই স্বাগত জানাতে প্রস্তুত হচ্ছে অর্জুনপুর আমরা সবাই (Arjunpur Amra Sobai)।

অতিমারী (Corona Pandemic) এখনও বিদায় নেয়নি। ফলে পুজো কীভাবে হবে, আর হলেও কীভাবে সকলকে সুরক্ষিত রাখা সম্ভব সব মিলিয়েই নানা ভাবনা চিন্তা চলছিলই। সম্প্রতি সিংহলী গানটি জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছয়, তারপরেই ক্লাব কর্তারা ঠিক করেন, এই জনপ্রিয় গানটিকে হাতিয়ার করেই করোনার বিরুদ্ধে লড়াই চালাবেন তাঁরা। কিন্তু একেবারে সিংহলী গানটি ব্যবহার করা হচ্ছে না।

ইওহানি ডি’সিলভার (Yohani Diloka De Silva) গানের বাংলা রিমেক (Manike Mange Hithe Bengali Remake) তৈরি করেছে চার যুবক-যুবতী। করোনা থেকে মানুষকে সচেতনতার বার্তা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া সেই গানই বাজবে অর্জুনপুর আমরা সবাইয়ের পুজো মণ্ডপে। হ্যাঁ, একেবারে এমনতাই ঘটতে চলেছে। এমনই অভিনব ভাবনা ক্লাব কর্তৃপক্ষের।

ক্লাবের সভাপতি মৌসুমি নস্কর বলেন, ‘মানিকে মাগে হিঠে’ (Manike Mange Hithe) বদলে, সেখানে হয়ে যাবে, ‘যেন পারি দুখ সইতে, আরও আরও কষ্ট নিতে পারি, অতিমারী, না হারি, ও মা।’ সংগীত পরিচালক সুমন সরকার রিমেকে ঢাক, কাঁসর-ঘণ্টা ব্যভার করে পুজোর আবহ ধরার চেষ্টা করেছেন। সুমনের স্টুডিওর চার শিল্পী শ্রুতি মিত্র, অঙ্কিতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অরিন সেনগুপ্ত এবং সুপর্ণ ভৌমিক গানটি গেয়েছেন।' উল্লেখ্য, ৪৮ বছরে অর্জুনপুর আমরা সবাই ক্লাবের পুজো প্রাঙ্গন সাজিয়ে তুলবেন শিল্পী ভবতোষ সুতার (Bhabatosh Sutar)। প্রতিমাও রূপ পাবে তাঁর হাতেই।

শুভাগতা দে

Published by:Shubhagata Dey
First published: