corona virus btn
corona virus btn
Loading

আজ থেকে খুলে গেল মোটর ভেহিক্যালস, প্রতিদিন ৫০টি করে গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন করা হবে

আজ থেকে খুলে গেল মোটর ভেহিক্যালস, প্রতিদিন ৫০টি করে গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন করা হবে

গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন থেকে ট্যাক্স পেমেন্ট সবটাই হবে। সংক্রমণ এড়াতে অনলাইনের আবেদন পরিবহণ দফতরের।

  • Share this:

#কলকাতা: আনলক ১ এর প্রথম দিনেই রাজ্যে খুলে গেল মোটর ভেহিক্যালস। সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ৩ টে অবধি খোলা থাকবে টাকা নেওয়ার কাউন্টার। তবে পরিবহণ দফতর বলছে, অনলাইনে যেন ফিজ বা টাকা মেটানো হয়। রাজ্যের প্রতিটি মোটর ভেহিক্যালসে দিনে অন্তত ৫০টি গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন করা হবে।

লকডাউনের আগে একাধিক জায়গায় মোটরবাইক, গাড়ি বিক্রি হয়েছে। ক্রেতারা শোরুম থেকে সেই সব গাড়ি হাতে পেয়েও গেছেন। লকডাউনের সময় এই সব গাড়ির অনেকগুলো রাস্তাতেও নেমেছে। তবে এই সব গাড়ির কোনও রেজিষ্ট্রেশন হয়নি পরিবহণ দফতরের খাতায়। ফলে বিনা নাম্বার প্লেটের গাড়ি ঘুরে বেড়িয়েছে রাজ্যে। অনেক নতুন গাড়ি অবশ্য গ্যারাজবন্দি অবস্থাতেও থেকে গেছে। আজ, ১ জুন থেকে সেই সব গাড়ির মালিকরা অনেকটাই নিশ্চিন্ত হবেন। কারণ রাজ্যের বিভিন্ন মোটর ভেহিক্যালস খুলে দেওয়া হল আজ থেকে। রাজ্য পরিবহন দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, সোমবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ৩টে অবধি টাকা জমা দেওয়া হবে। কাউন্টার খোলা থাকবে। তবে অফিস কাউন্টার খোলা থাকলেও পরিবহণ দফতরের হিসেব বলছে অনলাইনেই আবেদন বা পেমেন্ট বেশি হবে। দফতর চাইছে তাই হোক। তাই e vahan থেকে যাতে এই পরিষেবা নেন সেই আবেদন করা হয়েছে। গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন থেকে শুরু করে লাইসেন্স ঠিকানা বদল সবটাই হবে মোটর ভেহিক্যালসে।

গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন কাজ আজ থেকে শুরু হলেও, সিএফ বা ফিটনেস সারটিফিকেট দেওয়ার কাজ হবে না। কারণ গাড়ির স্বাস্থ্য পরীক্ষার কাজ শুরু করা হবে না এখন। যেহেতু সমস্ত কর্মী এখনই কাজে যোগ দিচ্ছেন না তাই এই সিদ্ধান্ত। তবে প্রতিদিন প্রতিটি মোটর ভেহিক্যালসে ৫০টি করে গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন করা হবে।

মোটর ভেহিক্যালস খুলে যাওয়ায় খুশি গাড়ির মালিকরা। তারা জানাচ্ছেন ট্যাক্স থেকে রেজিষ্ট্রেশন নানা কাজে বিস্তর অসুবিধা হচ্ছিল। যেহেতু রাস্তায় অনেক গাড়ি চলাচল শুরু হয়ে গেছে তাই তাদের গাড়ি রাস্তায় নামাতে হত। এই অবস্থায় মোটর ভেহিক্যালস না খুললে সমস্যা হত। আপাতত আজ থেকে সেই সমস্যা মিটল। তবে গ্রাহকদের অনেকেই রাজি নন অনলাইনে সুবিধা নিতে। সেখানে তথ্য যথাযথ আপলোড হয়না বলে অভিযোগ। তাই সামাজিক দুরত্ব মেনেই লাইনে দাঁড়িয়ে কাজ সারতে চান গাড়ির মালিকরা।

ABIR GHOSHAL

Published by: Ananya Chakraborty
First published: June 1, 2020, 10:34 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर