কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

আমফানের দাপটে অগ্নিমূল্য বাজার, সবজি-মাছের দামের ছেঁকায় হাত পুড়ছে মধ্যবিত্তের

আমফানের দাপটে অগ্নিমূল্য বাজার, সবজি-মাছের দামের ছেঁকায় হাত পুড়ছে মধ্যবিত্তের

লকডাউন চললেও দু’দিন আগে পর্যন্ত শহর থেকে শহরতলীর বাজারে সবজির দাম ছিল অন্তত সাধারণের নাগালের মধ্যে । আমফানের ঠিক পরেই তা হাতের বাইরে চলে গিয়েছে ।

  • Share this:

#কলকাতা: আমফানের দাপটে এখনও মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি রাজ্যের বহু জায়গা । উপকূলবর্তী জেলার মানুষ কবে ফের স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে পারবেন, তা অজানা । কারণ, আমফানের জেরে শুধুই যে বাড়ি বা ঘর হারিয়েছেন প্রান্তিক মানুষ, তা নয় । নষ্ট হয়ে গিয়েছে চাষের জমি । মাঠের ফসল অনেকেই ঘরে তলার সুযোগ পাননি । মাঠেই নষ্ট হয়ে গিয়েছে সবজি ।  এমন আশঙ্কা যে ছিল না, তা নয় । আশঙ্কা সত্যি করে আমফানের পরেই একলাফে সবজির দাম বেড়ে গিয়েছে  অনেকটা । আর এই দাম বৃদ্ধিতে মাথায় হাত মধ্যবিত্ত এবং নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের । তবে আলু এবং পেঁয়াজের দাম বাড়েনি ।

ক্রেতা থেকে বিক্রেতা সকলের দাবি, লকডাউন চললেও দু’দিন আগে পর্যন্ত শহর থেকে শহরতলীর বাজারে সবজির দাম ছিল অন্তত সাধারণের নাগালের মধ্যে । আমফানের ঠিক পরেই তা হাতের বাইরে চলে গিয়েছে । চলতি সপ্তাহের শুরুতে  যেখানে পটলের দাম ছিল ১৫ থেকে ২০ টাকা কেজি । রবিবার পটল বিক্রি হয়েছে ৩০ টাকা কিলো দরে । দাম বেড়ে ঢেঁড়স বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকা, বেগুন ৩৫ , ঝিঙে ৪০ টাকা, কাঁচালঙ্কা ৪০ থেকে ৬০ টাকা কেজিতে ।

কোলে মার্কেটের ব্যবসায়ীরা জানাচ্ছেন, মূলত যে সব জেলা থেকে শহরে আনাজ আসে, তার বেশির ভাগই আমফানের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত । অধিকাংশ চাষের জমি জলের তলায় । ফলে জেলা শহরের বাজারে সবজি আসছে না । শুধু তা-ই নয়, দু-এক দিনের মধ্যে জমির জল না নামলে, সবজির দাম আরও বেশ খানিকটা বাড়তে পারে বলেই আশঙ্কা । তার উপর সপ্তাহের শেষে জামাইষষ্ঠী। তার আগে এমনিতেই জিনিষের দাম নাগালের বাইরে চলে যায়। দু'য়ের জেরে মধ্যবিত্তের হেঁসেল চলবে কী করে, তা ভেবেই দিশেহারা সাধারণ মানুষ । তবে এদিন বাজারে দেখা গিয়েছে কাঁচা আমের দাম বেশ কম । ঝড়ে আম নষ্ট হয়ে যাওয়ায় কোথাও কোথাও দু-তিন কিলো  কাঁচা আম বিক্রি হয়েছে ১৫ থেকে ২০ টাকা কেজি প্রতি ।

Published by: Shubhagata Dey
First published: May 24, 2020, 4:34 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर