corona virus btn
corona virus btn
Loading

‘‌ছাঁটাই বা বেতন বন্ধ করা যাবে না বিএড কলেজের অধ্যাপকদের’‌, অনুরোধ উপাচার্যের

‘‌ছাঁটাই বা বেতন বন্ধ করা যাবে না বিএড কলেজের অধ্যাপকদের’‌, অনুরোধ উপাচার্যের

রাজ্যে এই মুহূর্তে চারশোরও বেশি বেসরকারি বিএড কলেজ রয়েছে। সব মিলিয়ে এই বেসরকারি বিএড কলেজগুলিতে ১৫ হাজারেরও বেশি অধ্যাপক যুক্ত রয়েছেন।

  • Share this:

#‌কলকাতা:‌ কোনওভাবেই অধ্যাপকদের বেতন বন্ধ বা কম করা যাবে না। রাজ্যের বেসরকারি বিএড কলেজগুলির কর্তৃপক্ষের কাছে এমনই আবেদন রেখেছেন রাজ্যের বিএড বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যে এই মুহূর্তে চারশোরও বেশি বেসরকারি বিএড কলেজ রয়েছে। সব মিলিয়ে এই বেসরকারি বিএড কলেজগুলিতে ১৫ হাজারেরও বেশি অধ্যাপক যুক্ত রয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে যাতে বেসরকারি বিএড কলেজগুলি অধ্যাপক অধ্যাপিকাদের প্রতি নমনীয় মনোভাব দেখায় সে বিষয়েও আবেদন করেছেন উপাচার্য সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সম্প্রতি দফায় দফায় রাজ্যের বেসরকারি বিএড কলেজগুলির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেছেন উপাচার্য। সেই কনফারেন্সে উপাচার্য সোমা বন্দ্যোপাধ্যায় এই আবেদন রেখেছেন কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে। এ প্রসঙ্গে উপাচার্য সোমা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‌রাজ্যের বেসরকারি বিএড কলেজগুলির সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেছি। ওনাদের আবেদন জানিয়েছি যাতে এই সময় কোনওভাবেই বেতন বন্ধ না করা হয়। তার সঙ্গে এটাও আবেদন জানিয়েছি যাতে চাকরি থেকে কাউকে ছাঁটাই না করা হয়। কলেজগুলি‌র কর্তৃপক্ষ আমাকে আশ্বস্ত করেছে, তাঁরা এই ধরনের কোনও পদক্ষেপ নেবেন না।’‌

স্কুল সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে এখন শিক্ষক হতে গেলে বিএড প্রশিক্ষণ থাকা বাধ্যতামূলক। অন্তত এমনটাই নির্দেশ রয়েছে ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশন বা এনসিটিই এর। তাই জন্য শিক্ষক হতে গেলে পড়তে হবে বিএড কলেজগুলিতে। রাজ্যে এই মুহূর্তে বিএড কলেজ রয়েছে ৪০০–এর বেশি। যার মধ্যে বেশিরভাগই বেসরকারি বিএড কলেজ। এই বেসরকারি বিএড কলেজগুলিতে এনসিটিই–এর গাইডলাইন মেনে কলেজ কর্তৃপক্ষদের অধ্যাপক নিয়োগ করতে হয়। অধ্যাপকদের নিয়োগ করার পাশাপাশি ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার্স এডুকেশনের নিয়ম মেনে বেতন কাঠামো অনুযায়ী বেতন দিতে হয় অধ্যাপকদের। সরকারি হোক বা বেসরকারি কলেজগুলিকে একটি নির্দিষ্ট সংখ্যক অধ্যাপক নিয়োগ করতে হয়।

প্রায় দু’‌মাস হতে চলল রাজ্যে লকডাউন চলছে। গত ১৫ ই মার্চের পর থেকে রাজ্য স্কুল- কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলি বন্ধ রাখার ঘোষণা করা হয়েছে। এই অবস্থায় বেসরকারি বিএড কলেজ গুলি যাতে অধ্যাপক ও শিক্ষাকর্মীদের প্রতি নমনীয় মনোভাব দেখায় সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় আবেদন রেখেছেন বিএড বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোমা বন্দোপাধ্যায়। লকডাউনের এই পরিস্থিতিতে যাতে কোন অধ্যাপক বা শিক্ষাকর্মীকে ছাঁটাই না করা হয় সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় আবেদন রেখেছেন উপাচার্য। এ প্রসঙ্গে উপাচার্য সোমা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, ‘‌আমরা আবেদন রেখেছি সব বেসরকারি বিএড কলেজগুলির কর্তৃপক্ষের কাছে। এরপরেও যদি কোন অভিযোগ আসে, আমরা তা অবশ্যই খতিয়ে দেখব।’‌

যদিও বেশ কয়েকটি বেসরকারি বিএড কলেজে সময়মতো ও নিয়মমাফিক অধ্যাপকদের বেতন দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ তুলছেন অধ্যাপকরা। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ কয়েকটি বিএড কলেজ থেকে অধ্যাপকরা এরকম অভিযোগ জানিয়েছেন বলে সূত্র মারফত জানা গেছে।

সোমরাজ বন্দ্য়োপাধ্যায়

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: May 5, 2020, 12:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर