• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • কলকাতা
  • »
  • VACCINATION FOR BANK WORKERS WB GOVERNMENT HAS DECIDED TO VACCINATION OF BANK WORKERS WITH IMMEDIATE EFFECT IN THE DISTRICTS AND KOLKATA CORPORATION SB

Vaccination for Bank Workers: টিকাকরণে অগ্রাধিকার ওঁদেরও, মমতার ভূমিকায় মুগ্ধ বাংলার ব্যাঙ্ককর্মীরা

অগ্রাধিকার ওদেরও...

ব্যাঙ্ককর্মীদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে টিকা (Vaccination for Bank Workers) দিতে নির্দেশ রাজ্য সরকারের। মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক অফিসার্স কনফেডারেশনের (AIBOC)।

  • Share this:

    কলকাতা: দেশের কোভিড পরিস্থিতি (Corona in India) পর্যালোচনা নিয়ে ১০ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও জেলা শাসকদের সঙ্গে বৃহস্পতিবারই বৈঠকে বসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। আর সেই বৈঠকে কথা বলতে না দেওয়ায় তীব্র ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তিনি বলেন, “হাতে প্রশ্ন নিয়ে পুতুলের মতো বসেছিলাম। মুখ্যমন্ত্রীদের যদি বলতেই দেবেন না, তাহলে ডাকলেন কেন?” আর সেই বৈঠকের পরই সরকারি কর্মীদের টিকাকরণের প্রেক্ষিতে মোদীকে চিঠি পাঠিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। বাংলার রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের টিকাকরণ করতে ২০ লক্ষ টিকার ডোজ চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন তিনি। আর ঠিক তার পরদিনই, শুক্রবার রাজ্যের ব্যাঙ্ককর্মীদেরও অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে টিকা দেওয়ার ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। স্বাভাবিক কারণে মমতার ভূমিকায় মুগ্ধ রাজ্যের ব্যাঙ্ককর্মীরাও।

    প্রসঙ্গত, গোটা রাজ্যে কার্যত লকডাউন চললেও ছুটি নেই ব্যাঙ্ককর্মীদের। গতবছরও প্রবল করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও নিজেদের কাজ চালিয়ে গিয়েছিলেন তাঁরা। আর কাজ চালাতে গিয়েই করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রাণ গিয়েছে বহু ব্যাঙ্ক অফিসার ও কর্মীদের। তাই এবার টিকাকরণের ক্ষেত্রে নিজেদের ফ্রন্ট লাইন ওয়ার্কার দাবি করে টিকাকরণে অগ্রাধিকার দেওয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন ব্যাঙ্ককর্মীরা। সেই আবেদনে সাড়া দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতা সহ জেলায়-জেলায় ব্যাঙ্ককর্মীদের টিকাকরণের কাজ খুব দ্রুত চালু হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। সেই কারণে মমতাকে অকুণ্ঠ ধন্যবাদ দিয়েছে অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক অফিসার্স কনফেডারেশন (AIBOC)।

    প্রসঙ্গত, সম্প্রতি সমস্ত রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মুখ্য সচিবকে ব্যাঙ্ক এবং বিমা সংস্থায় কর্মরতদের অবিলম্বে টিকা দেওয়ার জন্য চিঠি দিয়েছেন অর্থনৈতিক বিষয়ক মন্ত্রকের সচিব দেবাশিস পান্ডা। চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ব্যাঙ্ক, বিমা সংস্থা, পেটিএম সার্ভিসের সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের জরুরিভিত্তিতে টিকা দিতে হবে। ট্যুইটেও তিনি লেখেন,' করোনা পরিস্থিতিতে যেভাবে ব্যাঙ্ক-বিমা সংস্থা পেটিএম-এর সার্ভিসদাতারা কাজ করেছেন, তাঁদের কুর্নিশ। প্রত্যেকদিন কাজের জন্যই বহু মানুষের সংস্পর্শে আসতে হয় তাঁদের। টিকা গ্রহণ করলে তাদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকটাই কমবে।'

    এরপর মমতার কাছেও দ্রুত ব্যাঙ্ককর্মীদের টিকাকরণের আর্জি জানায় অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক অফিসার্স কনফেডারেশন। সেই আবেদনে সাড়া মিলতেই খুশি তাঁরা। উল্লেখ্য, রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের টিকাকরণের জন্য ২০ লক্ষ ভ্যাকসিনের ডোজ চেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে চিঠি লিখেছেন প্রধানমন্ত্রীকে, তাতে তিনি লিখেছেন, 'ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে চলেছেন সরকারি কর্মীরা। সেই কর্মী রাজ্যেরই হোক কিংবা কেন্দ্রের, কার্যত ঝুঁকি নিয়েই কাজ করে যাচ্ছেন তাঁরা। অনেক ক্ষেত্রেই তাঁরা সুপার স্প্রেডার হতে পারেন আশঙ্কা করা হচ্ছে।' এবার ব্যাঙ্ককর্মীদের জন্যও একই পথে হাঁটলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী।

    Published by:Suman Biswas
    First published: