• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • UP SYLLABUS PROTEST IN JORASANKO AGAINST TAGORE BEING EXCLUDED FROM THE UTTAR PRADESH SYLLABUS SANJ

Agitation On UP Syllabus : যোগী রাজ্যে সিলেবাসে বাদ রবি ঠাকুর, প্রতিবাদ জোড়াসাঁকোতে!

প্রতিবাদ জোড়াসাঁকোয়

Agitation On UP Syllabus : রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাদ পড়ে নতুন সিলেবাসে (UP Syllabus) জায়গা পেয়েছে যোগগুরু বাবা রামদেব। এহেন ঘটনার পরই যোগী সরকারের সমালোচনা শুরু হয়েছে দেশজুড়ে। একই সঙ্গে ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ চলছে কলকাতাতেও।

  • Share this:

#কলকাতা : উত্তরপ্রদেশের সিলেবাসে (Uttar Pradesh Syllabus) বাদ পড়েছে রবি ঠাকুর (Rabindra Nath Tagore)। তাই নিয়ে ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে বিতর্ক। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাদ পড়ে নতুন সিলেবাসে (UP Syllabus) জায়গা পেয়েছে যোগগুরু বাবা রামদেব। এহেন ঘটনার পরই যোগী সরকারের সমালোচনা শুরু হয়েছে দেশজুড়ে। একই সঙ্গে ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ চলছে কলকাতাতেও। শনিবার দুপুরে রবি ঠাকুর জন্মভিটে জোড়াসাঁকো ঠাকুর বাড়িতে প্রতিবাদ কর্মসূচি ছিল উত্তর কলকাতা জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের তরফে। কবিগুরুর মূর্তিতে মালা পরিয়ে ক্ষমাপ্রার্থণা করেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের নেতা কর্মীরা।

প্রসঙ্গত উত্তরপ্রদেশের স্কুলপাঠ্য সূচিতে ছিল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ছুটি’ গল্পটি। উল্লেখ্য, দশম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত উত্তরপ্রদেশে পড়ানো হয় এনসিইআরটি-র বই। ইংরেজি পাঠ্যসূচিতে কবিগুরুর ‘ছুটি’ গল্পের ইংরেজি অনুবাদ ‘দ্য হোম কামিং’ এতদিন পড়ানো হত। কিন্তু নতুন সিলেবাসে তা বাদ পড়েছে। যা নিয়ে সমালোচনার ঢেউ। এমনকি যোগী সরকারের সুপারিশে দর্শন বিভাগের পাঠ্যক্রমে এসেছে বাবা রামদেবের নিবন্ধ ‘যোগ চিকিৎসা রহস্য’। শুধু তাই নয়, আর কে নারায়ন, মুকুল আনন্দ, সরোজিনী নাইমুর কবিতাও বাদ দেওয়া হয়েছে সিলেবাস থেকে।

 রবি ঠাকুরের গল্প ‘ছুটি’ কেন বাদ দেওয়া হল এই প্রশ্ন তুলেই এদিন ঠাকুর বাড়িতে যোগী সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সামিল হয় তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। উত্তর কলকাতার টিএমসিপির সভাপতি বিশ্বজিত দে বলেন, "কবিগুরুকে বাদ দেওয়া হয়েছে সুকৌশলে। এই অপমান শুধু বাংলার নয়। দেশের অপমান। বিশ্ব কবিকে বাদ দেওয়া মানে শুধু আমাদের বাংলাকে বঞ্চনা করা নয়।মোদি-যোগী একযোগে বিশ্ববাসীর কাছে দেশকে বঞ্চনা করছে। এই প্রতিবাদ আরও সংগঠিত হবে। আগামী দিনে জেলায় জেলায় প্রতিবাদ কর্মসূচি করবে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ।" বিশ্বজিতের আরও বক্তব্য, "জাপান, কোরিয়া, চিন, বাংলাদেশ থেকে রবীন্দ্রসাহিত্য, সঙ্গীত নিয়ে গবেষণার জন্য আসেন পড়ুয়ারা। তাঁরা এসে দেখবেন কবির দেশেই ব্রাত্য করা হচ্ছে তাঁকে। যা মাথা হেঁট করে দেওয়ার মতও ঘটনা।"

অমিত সরকারের প্রতিবেদন

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: