• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Kolkata News: রাস্তাঘাটে এমন পাকা পেঁপে খাচ্ছেন? ভিতরে লুকিয়ে মারাত্মক বিপদ

Kolkata News: রাস্তাঘাটে এমন পাকা পেঁপে খাচ্ছেন? ভিতরে লুকিয়ে মারাত্মক বিপদ

এই ধরনের পাকা পেঁপেই বিক্রি হচ্ছে কলকাতার রাস্তায়৷

এই ধরনের পাকা পেঁপেই বিক্রি হচ্ছে কলকাতার রাস্তায়৷

পাকা পেঁপে মূলত কার্বাইড দিয়ে পাকানো হয়। যার ফলে পাকা পেঁপে গুলিতে দেখা গেল বেশ কিছু জায়গা পচন ধরেছে (Kolkata News)।

  • Share this:

#কলকাতা: প্রকাশ্যে কাটা ফল বিক্রি বহু আগে থেকেই নিষিদ্ধ। অথচ এখনও কলকাতায় (Kolkata News) বিভিন্ন বাস স্ট্যান্ড থেকে শুরু করে বাজারের সামনে, কাটা ফল রেখে বিক্রি হয়। কলকাতার স্ট্র্যান্ড রোডের উপরে বড়বাজার ওভারব্রিজের নীচে প্রচুর পরিমাণে কাটা ফল বিক্রি হচ্ছে। দু' পাশ দিয়ে বড় গাড়ি থেকে আরম্ভ করে ছোট গাড়ি যাতায়াত করছে। তার মধ্যে কাটা ফল রেখে বিক্রি হচ্ছে। মানুষ সেই অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের মধ্যে দাঁড়িয়েই সেই কাটা ফল খাচ্ছেন। ওখানে দেখা গেল, কাটা ফলের মধ্যে পাকা পেঁপের (Papaya) পরিমাণ প্রচুর রয়েছে। এই পাকা পেঁপে মূলত কার্বাইড দিয়ে পাকানো হয়। যার ফলে পাকা পেঁপে গুলিতে দেখা গেল বেশ কিছু জায়গা পচন ধরেছে। যতগুলো পেঁপে দেখা গেল ঝুড়ির মধ্যে - সবগুলিতেই ফাঙ্গাসের পচন রয়েছে।

আরও পড়ুন: শীতের আমেজ নাকি এখনও চলবে বৃষ্টি, কেমন থাকবে বাংলার আবহাওয়া?

একজন লোক হাতে ছুরি দিয়ে পচা জায়গা গুলি কেটে দিয়ে পেঁপের ছাল ছাড়াচ্ছে। সেই পেঁপে একজন কুচি কুচি করে ছোট্ট সোলার বাটিতে রেখে বিক্রি করছেন। যাঁরা কিনে খাচ্ছেন,তাঁরা জানেন না কতটা বিষ খাচ্ছেন! এ বিষয়ে যাদবপুর বিশ্ব বিদ্যালয়ের ফুড অ্যান্ড টেকনোলজি অ্যান্ড বায়ো কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের গবেষক অধ্যাপক প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস বলেন, 'বাস রাস্তার পাশে কাটা ফল রাখলে ভয়ঙ্কর বিপদ। গাড়ির ইঞ্জিনের ধোয়ায় প্রচণ্ড পরিমাণে সিসা থাকে। কয়েকদিন আগে জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার একটি গেজেটে প্রকাশিত হয়েছে, কলকাতার প্রতিটি খাবারে ৩০ শতাংশের বেশি শিসা রয়েছে। যা মানব শরীরে প্রচুর পরিমাণে ক্ষতিকর। এ ছাড়াও প্রচুর পরিমাণে ভারী ধাতব বস্তু থাকে।'

আরও পড়ুন: মাত্র ১০ মিনিটে বাড়িতেই তৈরি করুন টক দই! জানুন উপায়

তিনি এও বলেন, 'ওই পেঁপেতে যে জায়গাটা পচে গিয়েছে, সেটা ফাঙ্গাস আক্রান্ত। ওখানে যে টক্সিন তৈরি হয়, সেই টক্সিন থেকে মানব শরীরে ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে। ফলগুলি শুধু কাটছে। কিন্তু জল দিয়ে ধুচ্ছে না। ফলে আরও বেশি পরিমাণে টক্সিন থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।' পাউরুটিতে ফাঙ্গাস হলে, সেই রুটি খেলে বটলিং ইনফেকশনে অন্ধ পর্যন্ত হয়ে যেতে পারে শিশুরা। এছাড়া খাদ্যে বিষক্রিয়া তো রয়েছেই। খোলা রাস্তার উপর ফল কেটে রাখলে, সেই ফল সঙ্গে সঙ্গে বিক্রি হচ্ছে না। বিক্রি হতে সময় লাগছে। ভেজা জিনিসে ব্যাকটেরিয়া আক্রমণ হয় অতি দ্রুত। এখানে দীর্ঘদিন ধরে ব্যাপক আকারে ফল কেটে বিক্রি হচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের দাবি, এই ধরনের ফল বিক্রির পদ্ধতি অতি শীঘ্রই বন্ধ হওয়া উচিত।

Published by:Debamoy Ghosh
First published: