Home /News /kolkata /
Ukraine Russia War: 'সাইরেন বাজলেই লুকিয়ে পড়তাম বাঙ্কারে', ইউক্রেন থেকে ঘরে ফিরেও আতঙ্ক কাটেনি প্রিয়াংশির

Ukraine Russia War: 'সাইরেন বাজলেই লুকিয়ে পড়তাম বাঙ্কারে', ইউক্রেন থেকে ঘরে ফিরেও আতঙ্ক কাটেনি প্রিয়াংশির

Ukraine Russia War

Ukraine Russia War

ইউক্রেনের সীমান্তে এসে 0° কাছাকাছি তাপমাত্রায় খোলা আকাশের নীচে কাটাতে হচ্ছে ইউক্রেনে থাকা অন্য দেশের মানুষদের। (Ukraine Russia War)

  • Share this:

#কলকাতা:  গত ২৪ফেব্রুয়ারি থেকে বদলে গিয়েছিল ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরের অবস্থা। জীবনে যুদ্ধ দেখেনি প্রিয়াংশি। এমনকী গোলাগুলিও চোখের সামনে দেখেনি কখনও (Ukraine Russia War)। ভারত থেকে ডাক্তারি পড়তে যাওয়া পড়ুয়ারা কেঁপে উঠছিল সেই দৃশ্য দেখে। স্বাভাবিক সময় হোস্টেলের রুমে থাকা। সাইরেন বাজলেই বাঙ্কারের মধ্যে লুকিয়ে পড়া। এইভাবে বেশ কয়েক দিন কাটিয়ে গত তিন চার দিনে বহু ডাক্তারি পড়ুয়া দেশে নিজের বাড়িতে ফিরছেন (Ukraine Russia War)। বৃহস্পতিবার দক্ষিণ কলকাতার নয়াবাদের এমবিবিএস এর চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী প্রিয়াংশি পালও ঘরে ফিরেছেন। (Ukraine Russia War)

আরও পড়ুন: ধুম মচালে... রকেট গতির বাইক চালাচ্ছেন কে? এ তো মুখ্যমন্ত্রী! তুমুল ভাইরাল ভিডিও

শুক্রবার সকালেও চোখে মুখে একটা আতঙ্কের ছাপ রয়েছে তাঁর। প্রিয়াংশির বক্তব্য, ' এখনও অনেকেই খারকিভ এবং কিভে আটকে রয়েছেন। আমরা বহু ছাত্র-ছাত্রী কোনওভাবে ইউক্রেন সীমান্ত পেরিয়ে হাঙ্গেরি বা রোমানিয়া হয়ে ভারতে ফিরেছি। কোনওদিন ভাবতে পারিনি, ওই রকম একটা শান্ত দেশে এইরকম আক্রমণ হবে।'  ডাক্তারি ছাত্রীর কথায়, ২৪ তারিখ রাশিয়া আক্রমণের পরে ইউক্রেন সরকার তাঁদের সাধারণ মানুষদের হাতে বন্দুক তুলে দিয়েছিল। তাঁরা বন্দুক হাতে রাস্তাঘাটে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। কখনও কখনও কোনও ভারতীয় ছাত্র-ছাত্রীদের অ্যাপার্টমেন্টে ঢুকে বন্দুক দেখিয়ে ভয় দেখিয়ে লুটপাটের চেষ্টা করছিল।

আরও পড়ুন: 'চিরবিদায় আমার সন্তান, বাঁচলে দেখা হবে'! ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের এই হৃদয়ভাঙা ছবি ভাইরাল

এমনকী স্থানীয় দোকানগুলো লুঠের চেষ্টা করছিল। পরে অবশ্যই ইউক্রেন পুলিশ তাঁদেরকে আটক করে। প্রিয়াংশিরা কয়েকজন মিলে ২৭ ফেব্রুয়ারি একটি বাস ভাড়া করে বিনীতসা মেডিকেল কলেজ থেকে সিরেট সীমান্ত হয়ে রোমানিয়ার বুখারেস্টে পৌঁছায়। তবে ইউক্রেন ও রোমানিয়ার সীমান্তে এসে সীমান্ত পেরোতে ২৪ ঘণ্টা সময় লেগে যায় ওদের। হাঁটতে হয়েছিল ১৫ কিলোমিটার রাস্তা। একে হাড় হিম করা ঠান্ডা। তার ওপর ২৪ ঘণ্টা কাটাতে হয়েছিল খোলা আকাশের নীচে। সঙ্গে ১৫ কেজির ব্যাগ। রীতিমতো না বেঁচে থাকার মতোই একটা পরিস্থিতি ছিল।

সেগুলো কাটিয়ে গতকাল রাতে কলকাতা পৌঁছয় প্রিয়াংশি। ওঁর বক্তব্য, 'আর সবাই যাঁরা আটকে আছে কিংবা দেশের পৌঁছতে পারেনি, তাঁরা যাতে ঠিক ঠাক পৌঁছে যায়। ভারতের দূতাবাস এবং রোমানিয়া দূতাবাস খুব ভালো কাজ করছে।'

Published by:Raima Chakraborty
First published:

Tags: Russia Ukraine War, Ukraine crisis

পরবর্তী খবর