এই মাও নেতার গ্রেফতারির পর আরও দুর্বল মাও সংগঠন, কিন্তু কেন?– News18 Bengali

এই মাও নেতার গ্রেফতারির পর আরও দুর্বল মাও সংগঠন, কিন্তু কেন?

সুচিত্রা মাহাত, প্রবীর ঘড়াইয়ের পর এবার রঞ্জিত পাল ও ঝরনা গিরি। পুলিশের কাছে আত্মসমপর্ণ করল আরও এক মাওবাদী দম্পতি।

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 14, 2017 04:32 PM IST
এই মাও নেতার গ্রেফতারির পর আরও দুর্বল মাও সংগঠন, কিন্তু কেন?
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Feb 14, 2017 04:32 PM IST

#কলকাতা:  সুচিত্রা মাহাত, প্রবীর ঘড়াইয়ের পর এবার রঞ্জিত পাল ও ঝরনা গিরি। পুলিশের কাছে আত্মসমপর্ণ করল আরও এক মাওবাদী দম্পতি। কলকাতা পুলিশের এসটিএফ-এর কাছে সস্ত্রীক আত্মসমর্পণ করেন বিতর্কিত এই মাওবাদী নেতা। ভুল বুঝতে পেরেই আত্মসমর্পণের সিদ্ধান্ত বলে জানান তাঁরা।

কিষেণজির মৃত্যুর পর এরাজ্যের গুটিকয় নেতাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন তিনি। মাওবাদীদের রাজ্য সম্পাদক আকাশের পরই সংগঠনে বড় ভূমিকা পালন করতে শুরু করেন রঞ্জিত পাল। শেষমেশ নিজেই আত্মসমর্পণের সিদ্ধান্ত নিলেন বছর পঁয়তাল্লিশের রঞ্জিত। একইসঙ্গে আত্মসমর্পণ করেন তাঁর স্ত্রী অনিতা পাল ওরফে ঝরনা গিরি।

সংগঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করলেও, একসময় বিতর্কে জড়িয়ে পড়ে রঞ্জিত ৷

কে রঞ্জিত পাল?

- বাঁকুড়ার বারিকুল থানার খেজুরখেন্যা গ্রামে জন্ম রঞ্জিত ওরফে রাহুল ওরফে বাবু-র

- ১৭ বছর মাওবাদী কার্যকলাপে যুক্ত ছিলেন তিনি

Loading...

- নন্দীগ্রামের পর লালগড় আন্দোলনে যোগদান

- মাওবাদী রাজ্য মিলিটারি কমিশনের সদস্য ছিলেন রঞ্জিত

- বাংলা-ঝাড়খণ্ড-ওড়িশা বর্ডার রিজিওনাল কমিটির নেতা

- আইবি অফিসার পার্থ বিশ্বাস, স্কুল শিক্ষক সৌম্যজিৎ বসু খুনে অভিযুক্ত

- বাঁকুড়ায় মাওবাদী নেতা বিক্রমের সঙ্গে বিবাদ বাঁধে তাঁর

- নারীসঙ্গের অভিযোগে রঞ্জিতকে সাসপেন্ড করা হয়

কে ঝরনা গিরি?

- নন্দীগ্রামের সোনাচূড়ার বাসিন্দা ঝরনা

- দলমা-অযোধ্যা জোনাল কমিটির সদস্য ছিলেন

- অযোধ্যা এরিয়া কমিটির মহিলাবাহিনীর কমান্ডারও ছিলেন ঝরনা

- নন্দীগ্রাম আন্দোলনে উৎসাহিত হয়েই মাওবাদীতে যোগ

আত্মসমর্পণের সময় ডিজির হাতে একটি সেল্ফ লোডিং রাইফেল তুলে দেয় মাওবাদী দম্পতি। গত দুই বছরে মোট দুশো তেরোজন মাওবাদী গ্রেফতার হয়েছে রাজ্যে। আত্মসমর্পণ করেছে দু'শো উনিশজন। রঞ্জিত-ঝরনাও সেই পথে হাটায় মাওবাদীদের সংগঠন দুর্বল হল বলেই মনে করছে পুলিশ।

First published: 07:14:23 PM Jan 25, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर