জোড়াসাঁকোয় পুস্তকালয়ের শতবর্ষ উদযাপনে একসঙ্গে উপস্থিত বর্তমান ও প্রাক্তন রাজ্যপাল

জোড়াসাঁকোয় পুস্তকালয়ের শতবর্ষ উদযাপনে একসঙ্গে উপস্থিত বর্তমান ও প্রাক্তন রাজ্যপাল

কবিগুরুর শহরে পুস্তকালয়ের শতবর্ষ উদযাপনে উপস্থিত হলেন রাজ্যের বর্তমান ও প্রাক্তন রাজ্যপাল

  • Share this:

Ujjal Roy

#কলকাতা: কবিগুরুর শহরে পুস্তকালয়ের শতবর্ষ উদযাপনে উপস্থিত হলেন রাজ্যের বর্তমান ও প্রাক্তন রাজ্যপাল ৷

একজন প্রাক্তন। কবিতার সঙ্গে তিনি ঘনিষ্ঠভাবে যুক্ত। আর একজন বর্তমান। আইনের ছাত্র ছিলেন। দুজনের সঙ্গেই পুস্তকের যোগাযোগ গভির। রবিবার দুজনেই একই বিন্দুতে মিলিত হলেন পুস্তককে কেন্দ্র করেই। দেশের সাংস্কৃতিক রাজধানী কলকাতার সঙ্গে কবি সাহিত্যিক লেখক থেকে পুস্তকপ্রেমীদের সম্পর্ক খুবই ঘনিষ্ঠ। সেই শহরে পুস্তকালয়ের শতবর্ষ উদযাপনে বর্তমান রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরের সঙ্গে একই মঞ্চে প্রাক্তন রাজ্যপাল কেশরী নাথ ত্রিপাঠি

হিন্দি কবিতার জগতে রাজ্যের প্রাক্তন রাজ্যপাল কেশরী নাথ ত্রিপাঠির নাম প্রথম সারিতে রয়েছে। রাজ্যে থাকাকালীনও তিনি নিয়মিত কবিতা চর্চা করতেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গিয়েও তিনি কবিতা শোনাতেন। রাজ্যের হিন্দি পুস্তকালয় কুমার সভা পুস্তকালয়ের সঙ্গেও তাঁর রীতিমত যোগাযোগ ছিল। রবিবার এই পুস্তকালয়েরই শতবর্ষের অনুষ্ঠান ছিল কলকাতার জোড়াসাঁকোর রথীন্দ্র মঞ্চে। পুস্তকের টানে উত্তর প্রদেশ থেকে কলকাতায় উড়ে এসে অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন তিনি। তিনি বলেন, "কোনও সংস্থার একশো বছর পূর্ণ করা সহজ কাজ নয়। এই পুস্তকালয়ের এই দীর্ঘ পথ অতিক্রম করার পিছনে যারা যুক্ত রয়েছেন তাঁরা সত্যিই প্রশংসার যোগ্য"। নতুন প্রজন্মের লেখকদেক পাঠকদের উদ্দেশ্যে তিনি জানান, আামাদের দেশের সাহিত্য সংস্কৃতির উপর পাশ্চাত্য সভ্যতার প্রভাব বাড়ছে। সেই সঙ্গে আমাদের দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় এমন বিষয়গুলোও এখানে ঢুকে পড়ছে। তাই এই বিষয়ে আরও যত্নবান ও সতর্ক থাকার কথা বলেন প্রাক্তন রাজ্যপাল প্রাক্তন রাজ্যপাল কেশরী নাথ ত্রিপাঠি ৷

অনুষ্ঠানে উপস্থিত রাজ্যের বর্তমান রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরও এই সংস্থাকে সবরকমের সাহায্যের আশ্বাস দেন। আাগামী দিনে এই পুস্তকালয়ের যে কোনও কাজে থাকার আগ্রহ প্রকাশ করে তিনি বলেন, "আগামী দিনে সংস্থার যে কোনও কাজে আমি অংশগ্রহন করতে চাই। বরং এক কদম এগিয়েই কাজ করব। সংস্থা যদি চায় কোনও অনুষ্ঠানে সংস্থার হয়ে আমি নিজে প্রাক্তন রাজ্যপাল কেশরী নাথ ত্রিপাঠির বাড়িতে গিয়ে আমন্ত্রণ জানিয়ে আসব"।

বাংলা সাহিত্যের পাশাপাশি হিন্দি সাহিত্যের চর্চা এই শহরে দীর্ঘদিন ধরেই চলে আসছে। পাঠকরাও বাংলার পাশাপাশি হিন্দিতেও আগ্রহ দেখিয়ে চলেছেন বহু বছর ধরে। একশো বছর ধরে চলতে থাকা কলকাতার বড়বাজারের কুমার সভা পুস্তকালয় সেই সাখ্যই বহন করে চলেছে। তবে ডিজিটাল মাধ্যমের কাছে পুস্তক কখনোই চ্যালেঞ্জ হবে না বলেই আশাবাদী সংস্থা। সংস্থার কর্মকর্তাদের মতে আগামীদিন আরও ভালো ভাবে চলবে কুমার সভা পুস্তকালয় ৷

First published: 11:47:12 PM Dec 08, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर