সময় মতো চিকিৎসাতেই বড় বিপদ থেকে রক্ষা, দাদাকে বাঁচাল 'গোল্ডেন আওয়ার'

সময় মতো চিকিৎসাতেই বড় বিপদ থেকে রক্ষা, দাদাকে বাঁচাল 'গোল্ডেন আওয়ার'

ভাল আছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়৷

  • Share this:

    #কলকাতা: সকালে জিম করতে গিয়ে মাথা ঘুরিয়ে পড়ে গিয়েছিলেন মহারাজ৷ ব্ল্যাক আউট হয়ে গিয়েছিল তাঁর৷ সঙ্গে বুকে ব্যথা৷ এই ঘটনার সঙ্গে সঙ্গেই চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের পরিবার৷ চিকিৎসকের পরামর্শ মতোই দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় বিসিসিআই প্রেসিডেন্টকে৷ পরে জানা যায়, সৌরভ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন৷ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের পারিবারিক চিকিৎসক সপ্তর্ষি বসুর মতে, 'গোল্ডেন আওয়ার'-এর মধ্যে চিকিৎসা শুরু হওয়াতেই বিপন্মুক্ত সৌরভ৷ চিকিৎসকদের মতে, হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর প্রথম চার ঘণ্টাকেই বলা হয় 'গোল্ডেন আওয়ার৷'

    সপ্তর্ষি বসু বলেন, 'সকালে ডোনাদি আমাকে প্রথম ফোন করে বলেন দাদার শরীর খারাপ লাগছে৷ মাথা ভার লাগছে, শরীরে অস্বস্তি হচ্ছে৷ সঙ্গে সঙ্গে আমি হাসপাতালে নিয়ে আসার পরামর্শ দিই৷ হাসপাতালে আসার পর পরীক্ষায় ধরা পড়ে দাদার তিনটি আর্টারিতে ব্লক রয়েছে৷ গোল্ডেন আওয়ার-এর মধ্যে চিকিৎসা শুরু হওয়াতেই হৃদযন্ত্রের আরও বড় ক্ষতি এড়ানো সম্ভব হয়েছে৷' সৌরভের ব্যক্তিগত চিকিৎসক আরও বলেন, 'দাদা সবসময় সঠিক সিদ্ধান্ত নেন৷ এক্ষেত্রেও দ্রুত হাসপাতালে আসার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফের তা প্রমাণ করলেন৷'

    সৌরভের ব্যক্তিগত চিকিৎসক অবশ্য জানিয়েছেন, আগে কখনও হৃদযন্ত্রের কোনও সমস্যা ছিল না সৌরভের৷ ফলে অন্যান্য অনেকের মতোই সৌরভের হৃদযন্ত্রের সমল্যায় তিনিও বেশ অবাক৷ সপ্তর্ষিবাবুর কথায়, 'অনেক সময় কিছু কিছু জিনিস ব্যাখ্যা করা যায় না৷ এক্ষেত্রেও দুর্ভাগ্যজনক একটা ঘটনা ঘটে গিয়েছে৷' তবে ব্যস্ততার জন্য নিয়মিত যে সৌরভের পক্ষে শারীরিক পরীক্ষা করানো সম্ভব হত না, তাও জানিয়েছেন ওই চিকিৎসক৷

    তবে সৌরভ একটি আর্টারির ব্লক আজই অস্ত্রোপচার করে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ বসানো হয়েছে একটি স্টেন্ট৷ বাকি দু'টি ব্লক সরানো নিয়ে দু'- একদিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত নেবেন চিকিৎসকরা৷ তবে সৌরভ এখন সঙ্কটমুক্ত বলেই খবর৷ তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসকও জানিয়েছেন, সুস্থ হয়ে আগের মতোই নিজের কাজের জগতে ফিরবেন সৌরভ৷

    সামান্য বুকে ব্যথা বা শারীরিক অস্বস্তিকে অনেকেই উপেক্ষা করে ফেলেন৷ যার ফলে চিকিৎসা শুরু হতেই দেরি হয়ে যায়৷ ফলে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যায়৷ সৌরভের উদাহরণ দিয়ে চিকিৎসকরা তাই পরামর্শ দিয়ে বলছেন, হৃদযন্ত্রের সমস্যা হলে তাকে উপেক্ষা না করে যত দ্রুত সম্ভব চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: