corona virus btn
corona virus btn
Loading

পর্যটক টানতে ট্যুর প্যাকেজ বুকিংয়ের খরচ কমাচ্ছে IRCTC 

পর্যটক টানতে ট্যুর প্যাকেজ বুকিংয়ের খরচ কমাচ্ছে IRCTC 
Representational Image

বেড়ানো শুরু হলেও তা আর আগের মতো থাকবে না। প্রথম বদল আসবে যাতায়াতে।

  • Share this:

#কলকাতা: মধুমিতার শখ প্রতি বছর এই সময়ে পাহাড় বেড়াতে যাওয়ার। এক মেয়ে আর স্বামীর সাথে এ বছর কল্পা-কিন্নর-কিন্নরী বেড়াতে যাওয়ার জন্যে হোটেল থেকে বিমান, সব বুকিং ছিল। করোনা আর লকডাউনের লড়াইয়ে এবার আর বেড়াতে যাওয়া হল না। বুকিংয়ের টাকা ফেরত আসলেও বেড়ানো হল না মধুমিতার। কবে বেড়ানো হবে তা নিয়েও সংশয়।

এরই মধ্যে চিন্তা বাড়িয়ে ট্যুর অপারেটররা জানালেন খরচ বাড়তে চলেছে বেড়াতে যাওয়ার। বহু বছর ধরে বাঙালির বেড়ানোর ভরসার হাত কুন্ডু ট্রাভেলস। করোনার জেরে তারাও জানাচ্ছে আর সব জায়গায় বেড়াতে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে না। বেড়ানো শুরু হলেও সেটা যদিও আর আগের মতো থাকবে না। প্রথম বদল আসবে যাতায়াতে। একাধিক সংস্থা জানাচ্ছে রেলের বদলে তারা গুরুত্ব দেবে বিমানকে। স্বাস্থ্য বিধি মেনে বিমানে যাতায়াত অনেক কম ঝুঁকির বলেই তারা মনে করছে। দ্বিতীয়ত একটি পরিবারের জন্য একটি গাড়ি বরাদ্দ থাকবে। আগে এক সাথে একই গাড়িতে বা বাসে যাওয়ার যে ব্যবস্থা করা হত তা আর হবে না সচরাচর।

কুন্ডু ট্রাভেলসের মালিক সৌমিত্র কুন্ডু জানাচ্ছেন, "স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে এটা করাই শ্রেয়। তাতে খরচ বাড়বে। কিন্তু মানুষ সুরক্ষিত থাকবেন।" বক্তব্য সহমত পোষণ করছেন আইআরসিটিসি-র গ্রুপ জেনারেল ম্যানেজার দেবাশীস চন্দ্র। তিনি জানাচ্ছেন, "আমরা গ্রুপ বুকিংয়ের সংখ্যা কমিয়ে দিচ্ছি। এমনকী, কোচ বুকিং করছি না। তবে ফ্যামিলি বুকিংয়ের ওপর আমরা জোর দিচ্ছি।" তবে এক্ষেত্রে দুটো ভিন্নমত উঠে এসেছে, সৌমিত্র বাবু মনে করছেন, খরচ এই সব কারণেই বেড়ে যাবে। আর আইআরসিটিসি মনে করছে প্যাকেজে তারা খরচ কমাবে। কম পক্ষে ১০ থেকে ২০ শতাংশ প্যাকেজ রেট কমাবে তারা।

তবে এপ্রিল, মে, জুন মাসে যাদের বুকিং ছিল তাদের সব টাকা ফেরত দেওয়া হয়েছে। এত সব কিছুর পরে একটাই প্রশ্ন বেড়াতে কোথায় যাওয়া যাবে। কুন্ডু ট্রাভেলস জানাচ্ছে, কেরল, আন্দামান, হিমাচল প্রদেশ, নেপাল, উত্তরাখণ্ড বেড়াতে নিয়ে যাবেন তারা। শ্রীলঙ্কা, রাজস্থান, গুজরাত, মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু বেড়াতে নিয়ে যাওয়া হবে না। প্রয়োজনে জোর দেওয়া হবে উত্তর-পূর্ব ভারতের একাধিক জায়গায়। আইআরসিটিসি জানাচ্ছে, দার্জিলিং, কালিম্পং, সিকিম-সহ উত্তর-পূর্ব ভারতে বেড়াতে নিয়ে যাওয়া হবে। যদিও বিদেশ সফরের মধ্যে আইআরসিটিসি-র ইজরায়েল, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলঙ্কা, দুবাই ট্যুর বাতিল হয়েছে।

কুন্ডু ট্রাভেলসের ইতিমধ্যেই ৩৪ ট্যুর বাতিল হয়েছে। প্রায় ১৬০০ লোকের টাকা ফেরত দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় ৭৫ লক্ষ টাকা ফেরত দেওয়া হয়েছে। সৌমিত্র বাবু জানাচ্ছেন, "অনেকেই বলছেন টাকা থাকুক। আমরা অবস্থা স্বাভাবিক হলে বেড়াতে যাব। তবে সব জায়গায় আর বেড়ানো সম্ভব নয়। তাই বুঝে শুনেই আমরা এগোচ্ছি।" ইতিমধ্যেই বহু কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে ট্যুরিজম সেক্টরে। সেই বহর কত বাড়বে এখন সেটাই দেখার।

আবীর ঘোষাল

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: June 12, 2020, 9:40 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर