West Bengal Election: আগামী ৪ দফার ভোটে করোনার বাড়বাড়ন্ত ও রাজনৈতিক হিংসা সামলাতে একাধিক সিদ্ধান্ত কমিশনের

West Bengal Election: আগামী ৪ দফার ভোটে করোনার বাড়বাড়ন্ত ও রাজনৈতিক হিংসা সামলাতে একাধিক সিদ্ধান্ত কমিশনের

আগামী ৪ দফার ভোটে করোনার বাড়বাড়ন্ত ও রাজনৈতিক হিংসা সামলাতে একাধিক সিদ্ধান্ত কমিশনের

একদিকে পশ্চিমবঙ্গের গত চার দফায় বিভিন্ন এলাকায় হিংসার ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে চতুর্থ দফায় কোচবিহারের শীতলকুচির (Sitalkuchi violence) ঘটনায় উত্তপ্ত রাজনৈতিক মহল। অন্যদিকে করোনা (Corona) সংক্রমণও ভয়াবহ আকার নিয়েছে বাংলায়।

  • Share this:

    #কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের (West Bengal Assembly Election 2021) প্রথম চার দফার ভোট হয়ে গিয়েছে। এখনও বাকি আরও চার দফা। বাকি দিনের ভোট নিয়ে ভার্চুয়াল বৈঠক করল নির্বাচন কমিশনের (Election Commission) উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। একদিকে পশ্চিমবঙ্গের গত চার দফায় বিভিন্ন এলাকায় হিংসার ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে চতুর্থ দফায় কোচবিহারের শীতলকুচির (Sitalkuchi violence) ঘটনায় উত্তপ্ত রাজনৈতিক মহল। অন্যদিকে করোনা (Corona) সংক্রমণও ভয়াবহ আকার নিয়েছে বাংলায়। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬,৩০,১১৬।

    পরবর্তী দফাগুলিতে এলাকাগুলিতে ১৪৪ ধারা জারি করার বিষয়ে জোর দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। আজকের ভার্চুয়াল বৈঠকে তেমনই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যে জায়গাগুলিতে ১১৪ ধারা জারি থাকবে তার বাইরে অশান্তি তৈরি হলে সেই এলাকাকেও সঙ্গে সঙ্গে ঘেরাও করা হবে। পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে গেলে অথবা জনতা উশৃঙ্খলতা তৈরি করলে রাজ্য পুলিশকে লাঠিচার্জ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

    কোভিড নিয়েও আলোচনা হয়েছে এই বৈঠকে। করোনা সংক্রমণ যাতে আর না বাড়ে সেদিকে নজর দিতেই, বুথের বাইরে লাইনে ভোটারদের ২ ফুট দূরত্ব বজায় রাখতে বলা হয়েছে। নির্বাচনী পর্যবেক্ষক ভোর ৫টা থেকে দায়িত্বে থাকবে বলে জানানো হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে পর্যবেক্ষককে তৎক্ষণাৎ কোনও উপযুক্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার দেওয়া হয়েছে। গত চার দফায় ৬০ জন পর্যবেক্ষক দায়িত্বে ছিলেন। আগামী দফার ভোটগুলিতে ৬৬ জন পর্যবেক্ষক থাকবেন।

    চতুর্থ দফার ভোটে শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে চারজনের মৃত্যুতে অশান্ত হয়েছে রাজ্যরাজনীতি। শীতলকুচির মতো ঘটনা আগামীতে ঘটলে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে গুলি চালানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সেই গুলি যেন হাঁটুর নীচে চালানো হয়।

    প্রসঙ্গত, কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে সামশেরগঞ্জের কংগ্রেস প্রার্থী রেজাউল হকের। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যে নির্বাচনের দফা কমানোর জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে দাবি জানাতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: