corona virus btn
corona virus btn
Loading

রেড থেকে অরেঞ্জে আনতেই হবে, করোনা মুক্ত করতে জেলা প্রশাসনে এবার প্রতিযোগিতা আনছেন মমতা   

রেড থেকে অরেঞ্জে আনতেই হবে, করোনা মুক্ত করতে জেলা প্রশাসনে এবার প্রতিযোগিতা আনছেন মমতা   

রাজ্যের করোনা উপদ্রুত চার জেলাকে দ্রুত করোনামুক্ত করে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগী মুখ্যমন্ত্রী। এই চারটি জেলা হল কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা ও হুগলি। প্রশাসনের বিচারে এর মধ্যে কলকাতা ও হাওড়া রেড জোনের অন্তর্ভুক্ত।

  • Share this:

ARUP DUTTA

#কলকাতা: করোনা মুক্তির লড়াইয়ে এবার প্রশাসনে প্রতিযোগিতা চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী। আজ রাজ্যের সব জেলা প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেন, ''দেখি কে চ্যালেঞ্জটা নিয়ে এগোতে পারে।" রাজ্যের করোনা উপদ্রুত চার জেলাকে দ্রুত করোনামুক্ত করে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগী মুখ্যমন্ত্রী। এই চারটি জেলা হল কলকাতা, হাওড়া,  উত্তর ২৪ পরগনা ও হুগলি। প্রশাসনের বিচারে এর মধ্যে  কলকাতা ও হাওড়া রেড জোনের অন্তর্ভুক্ত।  কলকাতার বিশেষ করে উত্তর ও মধ্য কলকাতার বেশ কিছু এলাকায় করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনক।  পাশাপাশি, হাওড়ার শিবপুর, সাঁকরাইল, বাকড়াহাট, বালি-সহ একাধিক জায়গায় সংক্রমণ দ্রুত ছড়ানোয় কোনও রকম রাখঢাক না করেই আজ লকডাউন কার্যকর করা নিয়ে কঠোর বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

কারণ একটাই, স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য বলছে, রাজ্যের করোনা সংক্রামিতের ৯০% কলকাতা ও হাওড়ার।  একই সঙ্গে  রাজ্যের অন্যান্য জেলাগুলিতে নতুন করে যাতে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে, তা নিয়েও জেলা প্রশাসনকে সতর্ক করেন মুখ্যমন্ত্রী। কলকাতা ও হাওড়ার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনা ও হুগলিও প্রশাসনের ঘুম কেড়েছে। হুগলির জেলাশাসককে এ দিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ''হুগলিটা ভাল করে দেখ। আগামী ৭ দিনের মধ্যে জেলাকে অরেঞ্জ কর। জেলায় আর কোনও নতুন কেস দেখতে চাই না।" এরপরেই বাকি তিন জেলার জেলা প্রশাসনকে উদ্দেশ্যে নিজের নিজের জেলাকে করোনামুক্ত করার লড়াইকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে নেওয়ার কথা  বলেন। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, আসলে, প্রশাসনকে উদ্বুদ্ধ করার এটাও এক ধরনের কৌশল। আর, এই প্রতিযোগিতায় আখেরে লাভ হবে রাজ্যের। তবে, লকডাউন নিয়ে ঢিলেঢালা মনোভাব ছেড়ে বেরিয়ে এসে, পুলিশ ও প্রশাসনকে '' সবুজ সংকেত"  দিলেও, লক ডাউন বলবৎ করতে, বিজেপির আধাসামরিক বাহিনীর সুপারিশকে কটাক্ষ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷

Published by: Simli Raha
First published: April 18, 2020, 9:41 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर