• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • TO AVOID ANY PROBLEM IN GOVERNOR SPEECH IN BUDGET SESSION STATE MINISTER REPEATEDLY VISIT RAJBHABAN PBD

বিধানসভায় বাজেট অধিবেশনে রাজ্যপালের ভাষণ নিয়ে জটিলতা এড়ানোই লক্ষ্য

গত কয়েক দশকে এরাজ্যে রাজ্যপালরা কী ভূমিকা নিয়েছেন, তা রাজ্যপালকে ব্যাখ্যা করেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী

গত কয়েক দশকে এরাজ্যে রাজ্যপালরা কী ভূমিকা নিয়েছেন, তা রাজ্যপালকে ব্যাখ্যা করেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী

  • Share this:

    #কলকাতা: দু-দিন পরপর রাজভবনে দীর্ঘ বৈঠক। সোমবার রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠক করেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অমিত মিত্র। বিধানসভায় রাজ্যপালের ভাষণ নিয়েই জটিলতা এড়াতেই কি ঘনঘন আলোচনা? এই জল্পনার মধ্যেই রাজ্যপালকে হেলিকপ্টার দেওয়ার সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের।

    আগামী ৭ ফেব্রয়ারি থেকে বিধানসভায় বাজেট অধিবেশন। রাজ্যপালের ভাষণ দিয়ে অধিবেশন শুরু হওয়াই প্রথা। সেই ভাষণ নিয়ে আলোচনাতেই বৈঠক হয়। সাম্প্রতিককালে বিভিন্ন ইস্যুতে রাজ্য ও রাজ্যপালের সংঘাতের মধ্যেই এই আলোচনা। সূত্রের খবর, বিধানসভার ভাষণ নিয়ে কথা শুরু হলেও সংঘাতের ক্ষেত্রগুলো নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

    আলোচনার মধ্যে সংবিধানের কপি তুলে ধরেন রাজ্যপাল জানান, রাজ্যপাল সংবিধানের কাছে দায়বদ্ধ। সংবিধান রাজ্যপালকে নির্দিষ্ট ক্ষমতা দিয়েছে। তার বাইরে কাজ করার প্রশ্ন ওঠে না৷ এর আগে বিভিন্ন ইস্যুতে রাজ্য - রাজ্যপাল সংঘাত চরমে ওঠে। সেই প্রসঙ্গ টেনেও ক্ষোভ জানিয়েছেন জগদীপ ধনখড়। রাজ্যপাল অভিযোগ করেন, রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে রাজ্যপালকে তথ্য দেওয়া হয় না৷ বিশ্ববিদ্যালয়ে আচার্যের দায়িত্বপালনে বাধা দেওয়া হচ্ছে৷

    গত কয়েক দশকে এরাজ্যে রাজ্যপালরা কী ভূমিকা নিয়েছেন, তা রাজ্যপালকে ব্যাখ্যা করেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী। তবে তাতে বরফ গলেনি। বিধানসভায় রাজ্যপালের ভাষণ নিয়েও জট কাটেনি। উলটে অর্থবিল নিয়ে তথ্য চেয়েছেন রাজ্যপাল। যা নিয়ে কিছুটা ক্ষুদ্ধ রাজ্য প্রশাসন। তাই, রাজ্যপালের ভাষণের খসড়া সঙ্গে নিয়ে গেলেও রাজ্যপালকে তা দেওয়া হয়নি। এই পরিস্থিতিতে,

    ভাষণ জট কাটাতে ফের রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠক হতে পারে৷ সোমবার বিধানসভায় রাজ্যপালের ভাষণ নিয়ে তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যপালের দাবি মেনে তাঁকে হেলিকপ্টার দিচ্ছে রাজ্য। ৬ ফেব্রয়ারি শান্তিনিকেন যাচ্ছেন রাজ্যপাল৷ সেই সফরে হেলিকপ্টার দেওয়া হচ্ছে জগদীপ ধনখড়কে৷ এর আগে হেলিকপ্টার না পাওয়ায় ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন রাজ্যপাল।

    সম্প্রতি কেরল বিধানসভায় রাজ্যপালের ভাষণ নিয়ে নজিরবিহীন ঘটনা ঘটে। ভাষণ পড়লেও রাজ্যপাল আরিফ মহম্মদ খান জানিয়ে দেন, রাজ্য সরকারের এই ভাষণের সঙ্গে তিনি একমত নন। সেই ঘটনার পুরনাবৃত্তি এড়াতেই কি কপ্টার কৌশল? প্রশ্ন উঠছেই।

    Published by:Pooja Basu
    First published: