কলকাতা

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুজোয় বিনামূল্যে মাংসভাত খাওয়াবে ‘মমতাময়ীর হেঁসেল’ 

পুজোয় বিনামূল্যে মাংসভাত খাওয়াবে ‘মমতাময়ীর হেঁসেল’ 

এ পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল কিন্তু যাবতীয় বিতর্ক শুরু হয়েছে হেঁসেলের স্লোগান নিয়ে, যাদবপুরের শ্রমজীবী ক্যান্টিনের স্লোগানের সঙ্গে হেঁসেলের স্লোগানের হুবহু মিল নিয়েই শুরু নয়া তরজা

  • Share this:

‌#কলকাতা: দক্ষিণ কলকাতায় এবার মমতাময়ীর হেঁসেল । পুজোর পাঁচ দিন বিনে পয়সায় মাংস ভাত খাওয়ানোর উদ্যোগ তৃণমূল কাউন্সিলরের । পুজোর সময় পঞ্চমী থেকে নবমী পর্যন্ত প্রতিদিন কসবা অঞ্চলের এক হাজার  গরিব মানুষকে বিনা পয়সায় মাংস ভাত খাওয়ানো হবে ।উদ্যোক্তাদের তরফে প্রতিদিন আগ্রহী মানুষের কাছে কুপন বিলি করা হবে  । দুপুর বারোটা থেকে  শুরু হবে বিতরণ ।

এ পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল কিন্তু যাবতীয় বিতর্ক শুরু হয়েছে হেঁসেলের স্লোগান নিয়ে । সম্প্রতি লকডাউন অধ্যায়ে যাদবপুরে একটি শ্রমজীবী ক্যান্টিন চালু করা হয়েছে । যার স্লোগান " কেউ খাবে কেউ খাবে না । তা হবে না, তা হবে না " । বাস্তবে মমতাময়ী র হেঁসেলেও  হুবহু একই স্লোগান । আর বিতর্ক এখানেই । মমতাময়ীর হেঁসেল যার মস্তিষ্ক প্রসূত সেই কাউন্সিলর ও বোরো চেয়ারম্যান  সুশান্ত কুমার ঘোষের দাবি " এই স্লোগান কখনই সিপিএম এর নয় । ২০০৯ সালে জমি অধিগ্রহনের বিরোধিতা করে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের বাড়ির সামনে বিক্ষোভের পরিকল্পনা করে তৃণমূল । সে সময় আমাদের নেত্রীই এই স্লোগান তুলে ধরেন । সুতরাং আমাদের এই স্লোগান ব্যবহার করতে অসুবিধা কোথায় " ।

সুশান্ত ঘোষের দাবি মানতে নারাজ বাম পরিষদীয় নেতা  সুজন চক্রবর্তী । তার কথায় "তৃণমূল সাধারণত বিজেপি কংগ্রেসের থেকে নকল করে । এবার আমাদের নকল করছে । এই স্লোগান কখনই তৃণমূলের নয় । এটা আগেও বহু আন্দোলনে ব্যবহার হয়েছে । আর পুজোয় এমনিতেই গরিব মানুষকে ক্লাব গুলো খাওয়ায় । এটাও নিজেদের প্রচারে ব্যবহার করছে তৃণমূল । "

‌তবে বিতর্কে কান দিতে নারাজ কসবা তৃণমূল কংগ্রেস ।এলাকায় স্বেচ্ছাসেবকরা কোমর বাঁধছেন । তৈরি হচ্ছে বিশাল হেঁসেল । প্রতিদিন এক হাজার লোকের আয়োজন বলে কথা ।

Sourav Guha

Published by: Elina Datta
First published: October 12, 2020, 3:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर