বিদ্যাসাগর মূর্তি ভাঙা নিয়ে ভুল রিপোর্ট, সুদীপ জৈনের অপসারণ চেয়ে ফের কমিশনে তৃণমূল

বিদ্যাসাগর মূর্তি ভাঙা নিয়ে ভুল রিপোর্ট, সুদীপ জৈনের অপসারণ চেয়ে ফের কমিশনে তৃণমূল

সুদীপ্ত জৈন।

তাদের দাবি, উপ নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈনকে অবিলম্বে সরানো হোক। তাঁর বিরুদ্ধে পক্ষপাতদুষ্ট আচরণের অভিযোগ আনছে তৃণমূল।

  • Share this:

    #কলকাতা: পেট্রল পাম্প বা করোনা টিকার শংসাপত্র থেকে মোদির ছবি সরুক, এই দাবি নিয়ে গিয়েছিল নির্বাচন কমিশনে গিয়েছিল তৃণমূল। ফল মিলেছে হাতেনাতে। এবার আরও বড় অভিযোগ নিয়ে কমিশনের দ্বারস্থ তৃণমূল। তাদের দাবি, উপ নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈনকে অবিলম্বে সরানো হোক। তাঁর বিরুদ্ধে পক্ষপাতদুষ্ট আচরণের অভিযোগ আনছে তৃণমূল।

    এদিন সাংবাদিক বৈঠকে এই নিয়ে সরব হন সৌগত রায়। তিনি বলেন,এখানে আট দফায় ভোট করানো হচ্ছে। কেন এখানে হচ্ছে? আমরা দলের পক্ষে একটা চিঠি দিয়েছি। সুদীপ জৈনের অপসারণের দাবি জানানো হয়েছে। সৌগত রায়ের অভিযোগ এই সুদীপ জৈনের নেতত্বেই অতীতে পক্ষপাতমূলক আচরণ করা হয়েছে।  তিনি বলেন, এর আগে ২০১৯ সালে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা হয়। তখনও তিনি পক্ষপাতমূলক রিপোর্ট পাঠান। ইসি কোনও ব্যবস্থা নেয়নি তখনও অমিত শাহ বা তাঁর মিছিলের বিরুদ্ধে।  সৌগত রায়েপ দাবি, সুদীপ জৈন ডেপুটি নির্বাচন কমিশনার থাকলে, এই রাজ্যে সুষ্ঠুভাবে ভোট সম্ভব নয়।

    তৃণমূল বলছে, সুদীপ জৈন যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো ভেঙছেন অতীতে। কারণ কুইক রেসপন্স টিমে তিনি অতীকে রাজ্যে আধিকারিক রাখা হয়নি। তৃণমূল স্পষ্টই বলছে, ডেপুটি নির্বাচন কমিশনারের উপর কোনও ভরসা নেই। এই পরিস্থিতিতে তাই মুখ্য নির্বাচনী অফিসাররের কাছে তাদের আর্জি, অপসারণ করা হোক সুদীপ জৈনকে।

     প্রসঙ্গত তৃণমূলের অভিযোগের ভিত্তিতেই বুধবার কমিশন নির্দেশ দিয়েছে সরকারি কাজের বিজ্ঞাপন থেকে মোদির ছবি সরাতে হবে। বিজেপি পাল্টা আসরে নেমে বলছে, শাসক দল পরিচালিত সরকারের কর্মীদের অসহযোগিতার কারণেই এই হোর্ডিং সরানো যায়নি, পাশাপাশি তৃণমূল নেত্রীর ছবি সম্বলিত সরকারি ব্যানার নিয়েও অভিযোগ জানাচ্ছে বিজেপি। এই প্রসঙ্গে সৌগত রায় এ দিন বলেন,  "আমরা মোদির ছবির অপব্যবহারের কথা জানিয়ে চিঠি দিয়েছি। বিজেপির অভিযোগ থাকলে সিএমের ছবি নিয়ে তারা কমিশনকে জানাক। কমিশনই না হয় আমাদের জানাবে। তারা যা নির্দেশ দেবে আমরা করব।

    এদিনের সাংবাদিক বৈঠকের কিছুক্ষণ আগেই শিবসেনার তরফে সঞ্জয় রাউত জানান, নির্বাচন লড়ছেন না, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আছেন তাঁরা। সৌগত রায়কে উচ্ছ্বসিত হতে দেখা গেল এই নিয়ে। বললেন,  "শিবসেনার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাব। সঞ্জয় রাউত আজ আমাদের সমর্থনের বিষয়ে জানিয়েছেন। শিবসেনার এই সিদ্ধান্ত আমাদের খুশি করেছে।"

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর