Narada Scam Update: সিবিআই-এর পদক্ষেপ বেআইনি, ব্যবস্থা নেওয়া হোক! কলকাতা পুলিশকে চিঠি তৃণমূলের

সিবিআই-এর বিরুদ্ধে কলকাতা পুলিশকে চিঠি তৃণমূলের৷

নারদা কাণ্ডে (Narada Scam) আজই দুই মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim), সুব্রত মুখোপাধ্যায় (Subrata Mukherjee) এবং বিধায়ক মদন মিত্র (Madan Mitra) ও প্রাক্তন বিধায়ক শোভন চট্টোপাধ্যায়কে (Sovan Chatterjee) গ্রেফতার করেছে সিবিআই(CBI)৷ দলের মন্ত্রী, বিধায়ককে বেআইনি ভাবে গ্রেফতার করার অভিযোগে এবার কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে চিঠি দিল তৃণমূল কংগ্রেস (TMC)

  • Share this:

#কলকাতা: দলের মন্ত্রী, বিধায়ককে বেআইনি ভাবে গ্রেফতার করার অভিযোগে এবার কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে চিঠি দিল তৃণমূল কংগ্রেস৷ নারদা কাণ্ডে দলের দুই মন্ত্রী এবং এক বিধায়ককে বেআইনি ভাবে গ্রেফতারের জন্য সিবিআই-এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য কলকাতা পুলিশের কাছে আর্জি জানিয়েছে তৃণমূল৷ তৃণমূল মহিলা কংগ্রেসের তরফে সংগঠনের সভানেত্রী এবং রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য এই চিঠি দিয়েছেন৷ রাজ্যপাল রাজ্যের মন্ত্রী, বিধায়কদের গ্রেফতারির নির্দেশ বেআইনি বলেও চিঠিতে দাবি করেছেন চন্দ্রিমা৷

নারদা কাণ্ডে আজই দুই মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, এবং বিধায়ক মদন মিত্র ও প্রাক্তন বিধায়ক শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করেছে সিবিআই৷ চিঠিতে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য সরাসরি অভিযোগ করেছেন, সিবিআই যে ভাবে রাজ্যের দুই মন্ত্রী এবং এক বিধায়ককে গ্রেফতার করেছে, তা সম্পূর্ণ বেআইনি৷ চিঠিতে রাজ্যের পুরমন্ত্রী প্রশ্ন তুলেছেন, কেন বিনা গ্রেফতারি পরোয়ানা ছাড়াই সিবিআই ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং মদন মিত্রকে গ্রেফতার করল? চার্জশিট জমা দেওয়ার সঙ্গে গ্রেফতারির কী সম্পর্ক, সেই প্রশ্নও চিঠিতে তোলা হয়েছে৷ পাশাপাশি, করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যের দুই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী এবং জনপ্রতিনিধিদের গ্রেফতারি কেন, তা নিয়েও সরব হয়েছে তৃণমূল৷ পাশাপাশি বিধানসভার স্পিকারের অনুমতি না নিয়ে কেন গ্রেফতার করা হল, সেই প্রশ্নও তোলা হয়েছে৷

রাজ্যপালকে কড়া আক্রমণ করে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বলেন, 'আমরা চিঠিতে লিখেছি যে রাজ্যপাল যা করেছেন, এটা অত্যন্ত বেআইনি কাজ৷ সংবিধান যে কাজ করতে দেয় না, সেটাই তিনি করেছেন বিজেপি-র মুখপাত্র হিসেবে৷ সরকার, অধ্যক্ষ কারও সঙ্গে আলোচনা না করেই তিনি গ্রেফতারির নির্দেশ দিয়েছেন৷ প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অঙ্গুলি হেলনে চলছেন তিনি৷ তিনি তাঁর নিরপেক্ষ চরিত্র হারিয়েছে৷ সিবিআই-ও নিরপেক্ষতা হারিয়েছে৷ নিরপেক্ষ সংস্থা হিসেবে সিবিআই রাজ্যপালের এই ধরনের বেআইনি নির্দেশের উপর চলতে পারে না৷' চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য আরও প্রশ্ন তুলেছেন, কেন শুভেন্দু অধিকারী, মুকুল রায়কেও গ্রেফতারির নির্দেশ দিলেন না রাজ্যপাল?

চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য আরও বলেন, 'একটা নির্বাচন হল, এক সপ্তাহ আগে মন্ত্রিসভা গঠন হল৷ আর ভারতীয় জনতা পার্টির হয়ে বাজারে নেমে পড়েছেন রাজ্যপাল৷ স্বাধীনতা, বোধ বুদ্ধি হারিয়েছেন তিনি৷'

Abir Ghosal

Published by:Debamoy Ghosh
First published: