এখনও ট্রমায় মমতা, ইশতেহার প্রকাশ পিছোচ্ছে তৃণমূল

এখনও ট্রমায় মমতা, ইশতেহার প্রকাশ পিছোচ্ছে তৃণমূল

তৃণমূল নেত্রীর পায়ে প্লাস্টার। পাশে ফিরহাদ হাকিম, ডেরেক ওব্রায়েনরা।

অন্তত ৪৮ ঘণ্টা নিবিড় পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে তাঁকে। ফলে তৃণমূল ইশতেহার প্রকাশ স্থগিত রাখছে।

  • Share this:

    #কলকাতা: পিছল তৃণমূলের ইশতেহারর প্রকাশের দিনক্ষণ। সব ঠিক থাকলে আজ শিবরাত্রির দিন কালিঘাট থেকে নিজে হাতেই ইশতেহার প্রকাশ করতেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সমস্ত পরিকল্পনাতেই জল ঢেলে দিয়েছে নন্দীগ্রামের বিরুলিয়ায় মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের চোট পাওযার ঘটনা। আপাতত মমতার ঠিকানা এসএসকেএম হাসপাতালের উডবার্ন ওয়ার্ড। অন্তত ৪৮ ঘণ্টা নিবিড় পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে তাঁকে। ফলে তৃণমূল ইশতেহার প্রকাশ স্থগিত রাখছে।

    বুধবার ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মনোনয়ন দাখিল করার দিন। সমস্তটা চলছিল ঘড়ির কাঁটা ধরে। রেওয়াপাড়ার বাড়ি থেকে বেড়িয়ে হলদিয়ায় যান, সুষ্ঠু ভাবে সবটা সেরে ফিরেও আসেন নন্দীগ্রাম। পথে সাধারণ মানুষের উচ্ছ্বাস ছিল চোখে পড়ার মতো। প্রথমে কাজ সেরে কলকাতা ফেরার সিদ্ধান্ত থাকলেও মমতা সেই সিদ্ধান্ত বদল করেন হঠাৎ। সিদ্ধান্ত নেন নন্দীগ্রামে বুধবার থেকেই যাবেন। নিজের কেন্দ্রে কথা বলবেন সাধারণ মানুষের সঙ্গে, কথা বলবেন নির্বাচনী এজেন্ট ও অন্যান্য সহযোদ্ধার সঙ্গে। সেখান থেকেই বিপত্তি। বিরুলিয়া অঞ্চলে গাড়িতে বসে কথা বলছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। দরজা খোলা ছিল। অভিযোগ হঠাৎই চার পাঁচ জন তাঁর গাড়ির দরজা ঠেলে দেয়। চোট লাগে মমতার পায়ে, মাথায়, ঘাড়ে। মমতা নিজেই বলেন, "চক্রান্ত করে ৪-৫ জন ধাক্কা মারে আমাকে। স্থানীয় পুলিশ ছিল না। নির্বাচন কমিশনে জানাব।"

    তড়িঘড়ি গ্রিন করিডোর করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কলকাতায় নিয়ে আসা হয়। এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। চিকিৎসকরা পর্যবেক্ষণের পর জানান বাঁ পায়ের গোড়ালিতে গুরুতর চোট পেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। চোট রয়েছে পায়ের পাতাতেও। আঘাত রয়েছে ঘাড়ে, মাথায়। এখনও ট্রমায় রয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই পরিস্থিতিতে অন্তত ৪৮ তাঁকে পর্যবেক্ষণে রাখতে চাইছে চিকিৎসকদের বোর্ড। চিকিৎসকরা বলছেন এই ধরনের আঘাতে অন্তত দেড় মাস বিশ্রাম নিতে হয়। মমতা এই পরিস্থিতি কী ভাবে সামাল দেন তা দেখার। কিন্তু এক্ষুনি যে তাঁর পক্ষে পথে নামা সম্ভব নয়, তা বলাই বাহুল্য।

    Published by:Arka Deb
    First published: