রুদ্র-বাবুল প্রধান মুখ, গেরুয়া শিবিরের গানে 'অশান্তি'র গন্ধ, অভিযোগ নিয়ে কমিশনে ছুটছে তৃণমূল

রুদ্র-বাবুল প্রধান মুখ, গেরুয়া শিবিরের গানে 'অশান্তি'র গন্ধ, অভিযোগ নিয়ে কমিশনে ছুটছে তৃণমূল

বিজেপির সেই মিউজিক ভিডিও-র একটি অংশ। ছবি ভিডিও থেকে নেওয়া।

অভিযোগ, এই গানটিতে সাম্প্রদায়িক হিংসা তৈরি করার চেষ্টা চোখে পড়ছে।

  • Share this:

    #কলকাতা: দিন কয়েক আগেই টলিউড তারকারা ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে সুরেলা প্রতিবাদে গর্জে উঠেছিলেন। নাম না করলেও বুঝতে অসুবিধে ‌হয়নি টালিগঞ্জের নবীন প্রবীণ অভিনেতারা নিশানা করছে বিজেপিকে। পাল্টা গান বাজারে এনেছে বিজেপিও। গানের ধাঁচা প্রায় একই। গানটিতে গলা মেলাতে দেখা যাচ্ছে দুই বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয় ও রুদ্রনীল ঘোষকে। এবার সেই গান নিয়েই কমিশনে অভিযোগ জানাতে চলেছে তৃণমূল। তাদের অভিযোগ, এই গানটিতে সাম্প্রদায়িক হিংসা তৈরি করার চেষ্টা চোখে পড়ছে।

    এ দিন তৃণমূলের পক্ষ থেকে সাংবাদিক বৈঠক করেন সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়। তাঁর মতে এই গানটিতে বাংলাদেশের কিছু ছবি দেখানো হয়েছে। ১৯৪৬ সালের দাঙ্গার কিছু ছবি দেখানো হয়েছে, যার সঙ্গে আজকের বাস্তবের কোনও মিল নেই। তাঁর কথায়," টালিগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয় ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষ ওই ভিডিওতে উপস্থিত থেকেছেন। এই ভিডিওতে সাম্প্রদায়িক উস্কানি রয়েছে। আমরা নিশ্চিত এতে কমিশনের অনুমতি নেওয়া হয়নি। জনপ্রতিনিধিত্ব আইন অন‌ুযায়ী এই ধরনের ভিডিও করা যায় না। সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা সৃষ্টি করার জন্য এই ঘটনা ঘটাচ্ছে বিজেপি।"

    সুখেন্দু আরও বলেন, এই ভিডিও দেখেই তৃণমূল মনে করছে আগামী পাঁচ দফা নির্বাচনে বিজেপি মেরুকরণকে ব্যাবাহর করে সাম্প্রদায়িক অশান্তি করতে পারে।

    এ দিন কমিশনর বিরুদ্ধেও ক্ষোভ উগড়ে দেন সুখেন্দুশেখর। তিনি বলেন দেড় হাজারের বেশি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে কমিশনে। মাত্র ৩টি ক্ষেত্রে অভিযোগের উত্তর পাওয়া গিয়েছে। তাঁর কথায় বিষয়টি অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক মনে করছি আমরা।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর