• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ দখল করে অধীর দুর্গে তৃণমূল

মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ দখল করে অধীর দুর্গে তৃণমূল

শেষরক্ষা হল না ৷ জোট গড়ে আগেই রাজ্যে ভরাডুবি হয়েছিল বামফ্রন্ট ও কংগ্রেসের ৷ এবার দলের ভাঙনে নিজের গড় হারাল অধীর চৌধুরী ৷ অধীর গড়ে কংগ্রেসের কফিনে শেষ পেরেক পোঁতার কাজ শেষ ৷

শেষরক্ষা হল না ৷ জোট গড়ে আগেই রাজ্যে ভরাডুবি হয়েছিল বামফ্রন্ট ও কংগ্রেসের ৷ এবার দলের ভাঙনে নিজের গড় হারাল অধীর চৌধুরী ৷ অধীর গড়ে কংগ্রেসের কফিনে শেষ পেরেক পোঁতার কাজ শেষ ৷

শেষরক্ষা হল না ৷ জোট গড়ে আগেই রাজ্যে ভরাডুবি হয়েছিল বামফ্রন্ট ও কংগ্রেসের ৷ এবার দলের ভাঙনে নিজের গড় হারাল অধীর চৌধুরী ৷ অধীর গড়ে কংগ্রেসের কফিনে শেষ পেরেক পোঁতার কাজ শেষ ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: শেষরক্ষা হল না ৷ জোট গড়ে আগেই রাজ্যে ভরাডুবি হয়েছিল বামফ্রন্ট ও কংগ্রেসের ৷ এবার দলের ভাঙনে নিজের গড় হারাল অধীর চৌধুরী ৷ অধীর গড়ে কংগ্রেসের কফিনে শেষ পেরেক পোঁতার কাজ শেষ ৷ মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের ১০ বিরোধী সদস্য তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় মুর্শিদাবাদেও ফুটল জোড়াফুল ৷ এক লাফে ম্যাজিক ফিগার টপকে জেলা পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের মর্যাদা পেল তৃণমূল ৷ মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের দখল নিল তৃণমূল ৷

    মালদা, জলপাইগুড়ির পর অধীরের মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদেও শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে থাবা বসাল তৃণমূল । প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর গড় বলে পরিচিত মুর্শিদাবাদ এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূলের ৷ বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকে মুর্শিদাবাদে গঙ্গার চেয়ে কংগ্রেসের ভাঙন রোখাই ছিল অধীর চৌধুরীর সামনে বড় চ্যালেঞ্জ। জোটসঙ্গীদের সঙ্গে করে অধীরের মরিয়া প্রচেষ্টার পরেও মুর্শিদাবাদ হাতছাড়া হল কংগ্রেসের ৷

    অন্যদিকে  ভরতপুর পঞ্চায়েতও দখল করল তৃণমূল ৷

    শুক্রবার তৃণমূল ভবনে সাংবাদিকদের সামনে আনুষ্ঠানিকভাবে জেলা পরিষদের সাত কংগ্রেস সদস্য যোগ দিলেন তৃণমূলে ৷ একই সঙ্গে ভাঙন ধরেছে কংগ্রেসের জোটবন্ধু বামফ্রন্টের ঘরেও ৷ দুই সিপিআইএম ও একজন আরএসপি সদস্যও যোগ দেন শাসক দলে ৷ মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদে মোট ৭০টি আসন রয়েছে। এক সদস্য বিধায়ক হওয়ায় বর্তমানে ৬৯ জন সদস্য।

    তার মধ্যে কংগ্রেসের দখলে ছিল ৪২টি, বামেদের ২৭টি ও তৃণমূলের ১টি আসন। দু'দফায় কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে যোগ দেয় ১৭ জন। শেষ কয়েক মাসে দু'দফায় বামফ্রন্ট থেকে কংগ্রেসের যোগ দেয় ১১ জন। আর এদিন ১০ সদস্য শাসক দলে যোগ দেওয়ায় ফলে এখন তৃণমূলের সদস্য সংখ্যা বেড়ে হল ৩৯ ৷ এতেই ম্যাজিক ফিগার ৩৫ পেরিয়ে জেলা পরিষদের দখল নেয় তৃণমূল কংগ্রেস ৷

    vlcsnap-2016-09-09-14h17m31s653

    শাসকদলের বিরুদ্ধে টাকার জোরে, ভয় দেখিয়ে বিরোধী দলের সদস্য কিনে জেলা পরিষদ দখল করার অভিযোগের জবাবে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘কং-বামেদের রাজনৈতিক আদর্শ নেই ৷ মুর্শিদাবাদের মানুষ তা দেরিতে হলেও বুঝেছেন ৷ কাউকে জোর করে দলে আনা হচ্ছে না ৷ স্বেচ্ছায় তৃণমূলে আসছেন সবাই ৷ তৃণমূল কাউকে ভয় দেখায় না ৷’

    জেলা পরিষদে এখন সংখ্যাগরিষ্ঠ তৃণমূল ৷ শুভেন্দু অধিকারী জানালেন, ‘আগামী সপ্তাহে অনাস্থা প্রস্তাব আনা হবে ৷ বিরোধী দলের বাকিরাও তৃণমূলে এলে স্বাগত ৷ সাংবিধানিক আইন মেনেই জেলা পরিষদ দখল করবে তৃণমূল ৷ ’

    মুর্শিদাবাদে পঞ্চায়েত ভোটে অনেকটা পিছিয়ে পড়ছিল তৃণমূল। কিন্তু, দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করে স্লগে তেড়েফুঁড়ে ইনিংস শুরু করে জোড়াফুল শিবির। আর তার দাপটে আগেই মালদা ও জলপাইগুড়ি হাতছাড়া হয়েছে কংগ্রেস ও বাম শিবিরের। এবার অধীর গড়েও থাবা বসাল তৃণমূল ৷

    First published: