আজই প্রকাশ পাচ্ছে তৃণমূলের ইস্তেহার,জনতার মন জয়ে মমতার দুই চাণক্যনীতি

আজই প্রকাশ পাচ্ছে তৃণমূলের ইস্তেহার,জনতার মন জয়ে মমতার দুই চাণক্যনীতি

আজ ইস্তেহার প্রকাশ করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র।

মন্ডল কমিশনের রিপোর্ট অনুযায়ী বেশ কিছু জনজাতিকে মান্যতা দেওয়া হবে। এছাড়া স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সম্পর্কে ইস্তেহারে থাকতে চলেছে বড় সড় চমক।

  • Share this:

#কলকাতা: আজ বিধানসভা নির্বাচনের ইস্তেহার প্রকাশ করবে তৃণমূল কংগ্রেস। বুধবার বিকেল ৫টা নাগাদ কালীঘাটে মমতা বন্দ্যোধ্যায়ের বাসভবন থেকেই প্রকাশ করা হবে এই ইস্তেহার। গত দেড় মাস ধরেই ইস্তেহার তৈরির কাজ করেছেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ তিনি জঙ্গলমহল থেকে ফিরলেই প্রকাশিত হবে ইস্তেহারটি। এবারের নির্বাচনী ইস্তাহারে দুটি বড় চমক থাকছে। সূত্রের খবর, এর মধ্যে একটি চমক দুয়ারে রেশন। আর একটি চমক হল তফশিলী জাতির জন্যে বিশেষ ঘোষণা। মন্ডল কমিশনের রিপোর্ট অনুযায়ী বেশ কিছু জনজাতিকে মান্যতা দেওয়া হবে।  এছাড়া স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সম্পর্কে ইস্তেহারে থাকতে চলেছে বড় সড় চমক।

তৃণমূল সূত্রের খবর, বরাবরের মতোই নির্বাচনী ইস্তেহার তৈরিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যআয় দলের নীচুতলার কর্মী থেকে সাংসদ, বিধায়ক-সহ সকলের মতামত নিয়েছেন। সেই মতামতের ভিত্তিতে তিনি একটি কমিটিও গঠন করে দিয়েছিলেন। এই কমিটিই চূড়ান্ত ইস্তেহার তৈরি করেছে। তবে মমতা বন্দোপাধ্যায় নিজেও সেই কমিটিতে ছিলেন।

প্রসঙ্গত, বরাবরই মমতা বন্দোপাধ্যায়  নির্বাচনী ইস্তেহার তৈরির আগে দলের বিভিন্ন স্তরের নেতাদের মতামত নেন। কোন বিষয়ে জোর দেওয়া উচিত, বিরোধীদের রাজনৈতিক আক্রমণের মোকাবিলা কোন পথে করা হবে ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে তিনি মতামত গ্রহণ করেন। তার পর সেই মতামতের ভিত্তিতে ইস্তাহার তৈরি হয়। তৃণমূল সূত্রে খবর, ইস্তাহারে বেশ কিছু বিষয়কে ‘বিশেষভাবে গুরুত্ব’ দিয়েছে দলের শীর্ষনেতৃত্ব। তার মধ্যে রয়েছে বিনামূল্যে রেশন দেওয়া, স্বাস্থ্য ও শিক্ষার মতো সমাজের সকল স্তরের জন্য গুরুত্বপূর্ণ পরিষেবাগুলির আরও বিকাশ। এ ছাড়াও জোর দেওয়া হয়েছে শিল্প ও কর্মসংস্থানের মতো বিষয়গুলিতে। কমিটির সদস্য এক নেতা জানিয়েছেন‘‘ইস্তেহার তৈরির জন্য নেত্রী দলের নেতা, কর্মী, বিধায়ক এবং সাংসদদের কাছে লিখিত আকারে মতামত এবং প্রস্তাব চেয়েছিলেন। সেই প্রস্তাবগুলি জমা পড়ার পর তৃণমূল নেত্রী নিজে তা খতিয়ে দেখেছেন। এই সব প্রস্তাবগুলিকে সামনে রেখে একটি খসড়া ইস্তেহার তৈরি করা হয়েছিল। সেই খসড়া ইস্তেহারের ভিত্তিতে বিশেষজ্ঞ কমিটি চূড়ান্ত ইস্তাহার তৈরি করেছেন।"

এই কমিটিতে মমতা বন্দোপাধ্যায় ছাড়াও  একাধিক মন্ত্রী, সাংসদ ও বিধায়ক ছিলেন। ২০২১-এ ফের রাজ্যের ক্ষমতা দখলের জন্য দলনেত্রীর তৈরি বিশেষজ্ঞ কমিটিই জনতার কাছে চূড়ান্ত ইস্তেহার প্রকাশ করবে আগামিকাল। বিগত বিধানসভা ভোটের মতোই এ বারও তৃণমূল নির্বাচনী ময়দানে নামবে রাজ্যের ‘শাসক’ হিসাবে। ফলে ইস্তেহারে গুরুত্ব পাবে গত দশ বছরে তৃণমূলের ‘উন্নয়ন’-এর বিষয়গুলি। বিশেষত, নাগরিক পরিষেবার উন্নয়নের কথা। বিজেপি-কে প্রধান প্রতিপক্ষ ধরে নিয়ে ‘বহিরাগত’ প্রসঙ্গ এবং ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও ধর্মনিরপেক্ষতা’-ও ইস্তেহারে গুরুত্ব পেয়েছে বলে সূত্রের খবর।

তৃণমূল সূত্রে খবর, ইস্তেহার তৈরির কমিটির মতামতাকে প্রাধান্য দেওয়ার পাশাপাশি ইস্তাহারে স্থান পেয়েছে তৃণমূলের ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোরের সমীক্ষাও। প্রশান্তের সংস্থা ‘আইপ্যাক’-এর সদস্যরা রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরে মানুষের চাহিদার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে একটি সমীক্ষা চালিয়েছিলেন। সেই সমীক্ষার ফলাফলও চূড়ান্ত ইস্তাহারে থাকছে বলে তৃণমূল সূত্রে খবর। গত বিধানসভা ভোটে দেওয়া প্রতিশ্রুতিগুলির মধ্যে কোন কোনগুলি পুরোপুরি পূরণ করা হয়েছে, কোনগুলি পূরণ করা এখনও খানিকটা বাকি আছে এবং সেগুলি মধ্যে পূরণ করা যাবে, তা-ও ইস্তেহারে বলা থাকবে বলেই তৃণমূল সূত্রের খবর। প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই কাজের খতিয়ান দিয়ে ইতিমধ্যেই রিপোর্ট কার্ড প্রকাশ করা হয়েছে জোড়া ফুল শিবিরের তরফে। 'মা-মাটি-মানু্ষের' কথাই ইস্তাহারে বলা হবে বলে জানাচ্ছেন কমিটির নেতারা। সাথে একটা বড় অংশ জুড়ে নন্দীগ্রামের প্রসঙ্গ থাকবে বলে সূত্রের খবর।

Published by:Arka Deb
First published: