• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • TMC MP SUKHENDU SEKHAR ROY ATTACKED WB GOVERNOR JAGDEEP DHANKHAR ON JAIN HAWALA SCANDAL SB

Jagdeep Dhankhar on Jain Hawala Scandal: হাওয়ালা মামলায় নিশানায় ধনখড়, এরপরই মূল অভিযুক্তের মৃত্যু! রহস্য দেখছে তৃণমূল

নিশানায় ধনখড়

Jagdeep Dhankhar on Jain Hawala Scandal: তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায় বলেন, 'মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জৈন হাওয়ালা মামলায় রাজ্যপালের নাম নেওয়ার পরই ওই মামলার মূল অভিযুক্তের মৃত্যু হয়েছে। এখন প্রশ্ন হল, এই মৃত্যু কি স্বাভাবিক নাকি অন্য কিছু রয়েছে এর নেপথ্যে, তা খতিয়ে দেখা উচিৎ।'

  • Share this:

    #কলকাতা: বাংলায় রাজ্যপাল-রাজ্য সংঘাত নতুন এক উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছে সোমবার থেকে। নবান্ন থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের নাম ছিল জৈন হাওয়ালা মামলার চার্জশিটে। এরপরেই সন্ধ্যায় রাজ্যপাল সাংবাদিক সম্মেলন করে দাবি করেন, তাঁর নাম চার্জশিটে ছিল না। অসত্য তথ্য দিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। যদিও জৈন হাওয়ালা-কাণ্ডকে ফের জনসমক্ষে তুলে ধরার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সাংবাদিক তথা দুর্নীতি বিরোধী আন্দোলনের কর্মী বিনীত নারায়ণ। তিনি বলেন, ‘‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাহসী পদক্ষেপের জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানাই।’’ ভিডিয়ো-বার্তায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের বিরুদ্ধে সরাসরি মিথ্যাচারের অভিযোগও তুলেছেন তিনি। এরপরই গত ২৮ জুন জৈন হাওয়ার মামলার মূল অভিযুক্ত সুরেন্দ্র কুমার জৈনের মৃত্যু হয়েছে। আর এবার সেই মৃত্যুতেও রহস্য দেখছে শাসক দল তৃণমূল।

    বৃহস্পতিবার তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায় বলেন, 'মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জৈন হাওয়ালা মামলায় রাজ্যপালের নাম নেওয়ার পরই ওই মামলার মূল অভিযুক্তের মৃত্যু হয়েছে। এখন প্রশ্ন হল, এই মৃত্যু কি স্বাভাবিক নাকি অন্য কিছু রয়েছে এর নেপথ্যে, তা খতিয়ে দেখা উচিৎ।' তৃণমূল সাংসদের কথায়, 'দেশের সুরক্ষা, মানুষের সুরক্ষা নিয়ে যে ঘটনা ঘটেছিল, তার সঙ্গে নাম রয়েছে ধনখড়ের। এই ধনখড় কি রাজ্যপাল ধনখড়? এখনও আমাদের রাজ্যপাল তার উত্তর দিচ্ছেন না।'

    প্রসঙ্গত, ১৯৯১ সালে কাশ্মীর থেকে হিজবুল জঙ্গি আশফাক হুসেন লোনকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদ করতেই জানা যায়, হাওয়ালার মাধ্যমেই টাকা আসত ওই জঙ্গি সংগঠনের হাতে। আশফাক আরও জানিয়েছিল, সেই টাকা আসত সুরেন্দ্র কুমার জৈন নামক এক শিল্পপতির কাছ থেকে। এই হাওয়ালায় জৈনের আত্মীয়রাও জড়িত ছিল বলে তদন্তে উঠে আসে। আশফাকের সেই বয়ানের ভিত্তিতেই তল্লাশি চালান গোয়েন্দারা। খোঁজ মেলে জৈনদের দুটি ডায়েরি আর দুটি নোটবুকের। কবে, কাকে, কত টাকা দিয়েছেন, তা তাতে লিখে রেখেছিলেন জৈন। আর সেই তালিকা ছিল বিস্ফোরক। সেই তালিকাতেই নাম ছিল ধনখড়ের।

    এদিন সুখেন্দু শেখর বলেন, 'জৈনদের হিসেব অনুযায়ী, তিন চার কিস্তিতে টাকা নিয়েছিলেন ধনখড়। কে এই ধনখড়? তিনিই কি আমাদের রাজ্যপাল? জবাব দিচ্ছেন না কেন?' প্রসঙ্গত, এদিনই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত দেবাঞ্জন দেবের নিরাপত্তারক্ষী অরবিন্দ বৈদ্যের ছবি প্রকাশ্যে এনেছে তৃণমূল। শাসক দলের অভিযোগ, ওই নিরাপত্তারক্ষীর মাধ্যমে রাজভবনে উপহার, খাম পৌঁছত বলেও অভিযোগ করেছেন সুখেন্দু শেখর। এরই মাঝে ফের জৈন হাওয়ালা কাণ্ডেও রাজ্যপালকে জুড়ে আসরে নামল তৃণমূল।

    Published by:Suman Biswas
    First published: