• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • TMC MLA MANORANJAN BYAPARIS NEW FACEBOOK POST ON POLITICS SB

Manoranjan Byapari: বিতর্কের পরই 'বিদায়' মনোরঞ্জনের! শাসক বিধায়কের পরবর্তী ভাবনা কী?

ফের ফেসবুকে সরব মনোরঞ্জন

Manoranjan Byapari: গত বৃহস্পতিবার মনোরঞ্জন ব্যাপারীর করা একটি ফেসবুক পোস্ট থেকে বিতর্কের জন্ম নেয়।

  • Share this:

#কলকাতা: আপাতত কিছুদিনের জন্যে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে দূরে সরে থাকবেন বলাগড়ের তৃণমূল বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারী। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে নিজেই জানিয়েছেন সেই কথা। প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার তার করা একটি ফেসবুক পোস্ট থেকে বিতর্কের জন্ম নেয়। যদিও তিনি ও তাঁর দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে তার পোস্টের। এর পরেই অবশ্য, মনোরঞ্জন বাবু জানিয়েছেন, "আমাকে কিছু দিনের জন্য ফেসবুক থেকে বিদায় নিতে হচ্ছে। বন্ধ করে দিতে হচ্ছে টিভির সাক্ষাৎকার। কারন কিছু মানুষ খুব ধুর্ত আর কৌশলি হয়ে উঠেছে।যাদের হৃদয় বৃত্তি মরে গেছে। তারা মানবিক আর্তির ধার ধারেন না। সহজ সরল ভাষা ভাবনাকে বাঁকিয়ে দুমড়ে মুচড়ে একটা অন্য রূপ দিয়ে মা মাটি মানুষের জনপ্রিয় সরকারকে বদনাম করতে চায়  বিড়ম্বনার মধ্যে ফেলে বিশেষ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে চায়।"

প্রসঙ্গত, তার পোস্টের শুরুতেই ছিল রাজনীতিতে এসে ঠিক করেননি। তিনি হাঁফিয়ে উঠেছেন। আসলে তিনি বোঝাতে চেয়েছিলেন, জনপ্রতিনিধি হিসাবে মানুষের  আর্তি তাকে ভীষণ কষ্ট দিচ্ছে। কত মানুষের, কত চাহিদা। সবার প্রত্যাশা পূরণ করা একটা চ্যালেঞ্জ হয়ে গিয়েছে। এই বিষয় নিয়েই তিনি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করেছিলেন।

মনোরঞ্জন বাবু জানিয়েছেন, "কোন একটা শিবির থেকে তাদের এই সব কাজে নিয়োজিত করা হয়েছে। যারা এই বিপুল জনাদেশ নিয়ে তৃতীয় বার ক্ষমতায় ফিরে আসা মা মাটি মানুষের দল তৃণমূল দলটাকে যেমন সহ‍্য করতে পারছে না,  আমাকেও সহ‍্য করতে চাইছে না ছত্রিশ হাজার ভোটে পিছিয়ে থাকা অঞ্চল থেকে নয় হাজার ভোটে আমার জিতে যাওয়া। তাই সময় সুযোগ পেলেই আমাকে নানা কায়দায় বিপাকে ফেলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।" একই সাথে তাঁর কথায় উঠে এসেছে "আপনারা দেখেছেন নিশ্চয় আমার মুখে আটকে যাওয়া একটা শব্দ " অমানবিকতা" নিয়ে কি ব‍্যাঙ্গ বিদ্রুপের ঝড় তুলেছিল। আবার তেমন একটা ঝড় তোলার চেষ্টা চলছে আমার  একটা মানবিক আর্তি মাখানো ফেসবুক পোস্ট নিয়ে। ওরা থামবে না। কিছু না কিছু করতেই থাকবে। তাই মনে হচ্ছে আমার থেমে যাওয়া উচিৎ। লেখা আর বলা আপাতত, কিছুকাল  বন্ধ থাকুক।  এখন কাজ করতে থাকি। দলিত দরিদ্র খেটে খাওয়া মানুষের পক্ষে যা করা যায়, সীমিত ক্ষমতার মধ্যে  যতটুকু করা যায়। আমার কাজ আমার হয়ে যা বলার তা বলবে।" তার দল অবশ্য পাশে আছে বিধায়কের। দলের এক শীর্ষ নেতা জানিয়েছেন, আসলে ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে ভালো মানুষের কথার।
Published by:Suman Biswas
First published: