• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • TMC LEADER SUKHENDU SEKHAR ROY SHOWED PHOTO OF JAGDEEP DHANKHAR WITH FAKE VACCINATION CASE ACCUSED DEBANJAN DEBS BODYGUARD SB

Jagdeep Dhankhar and Debanjan Deb: 'রাজভবনে যেত উপহার-খাম', দেবাঞ্জনের বডিগার্ডের সঙ্গে জগদীপ ধনখড়ের ছবি প্রকাশ্যে!

আসরে তৃণমূল

Jagdeep Dhankhar and Debanjan Deb: রাজ্যপালের বিরুদ্ধে একের পর এক বিস্ফোরক তথ্য সামনে এনেছে তৃণমূল। রাজ্যপালের সঙ্গে দেবাঞ্জন দেবের নিরাপত্তারক্ষীর ছবি প্রকাশ্যে এনে তৃণমূল সাংসদ বলেন, 'মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন তদন্তে সব দেখা হবে। এই ছবি ভয়ংকর। '

  • Share this:

    #কলকাতা : ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডে এবার শাসক দল তৃণমূলের নিশানায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। কসবা জাল ভ্যাকসিন কাণ্ডে ভুয়ো আইএএস দেবাঞ্জন দেবের সঙ্গে তৃণমূলের একাধিক নেতাদের ছবি সামনে এনে সিবিআই তদন্তের দাবি জানাচ্ছে বিজেপি। এই পরিস্থিতিতে দেবাঞ্জনের নিরাপত্তা রক্ষীর সঙ্গে রাজ্যপাল ও তাঁর পরিবারের ছবি প্রকাশ্যে এনে তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায় দাবি করলেন, 'রাজ্যপালের সঙ্গে দেবাঞ্জন দেবের নিরাপত্তারক্ষী অরবিন্দ বৈদ্যের ছবি রয়েছে। এই নিরাপত্তারক্ষীর মাধ্যমে বিশেষ উপহার, খাম যেত রাজভবনে। আমরা তদন্তকারীদের নজরে এটা আনছি। সঠিক তথ্য সামনে আসুক।'

    শুধু তাই নয়, এদিন রাজ্যপালের বিরুদ্ধে একের পর এক বিস্ফোরক তথ্য সামনে এনেছে তৃণমূল। রাজ্যপালের সঙ্গে দেবাঞ্জন দেবের নিরাপত্তারক্ষীর ছবি প্রকাশ্যে এনে তৃণমূল সাংসদ বলেন, 'মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন তদন্তে সব দেখা হবে। এই ছবি ভয়ংকর। ' এদিন ফের রাজ্যপালের অপসারণের দাবিও করেছে শাসক দল। সুখেন্দু শেখরের কথায়, 'রাজ্যপালকে আবারও বরখাস্ত করার দাবি জানাব, না হলে রাষ্ট্রপতি নজরে আনব। '

    পশ্চিমবঙ্গে রাজ্যপাল-শাসকদল সংঘাত জারি রয়েছে বহুদিন ধরেই। তবে উত্তাপের পারদ চরমে পৌঁছেছে সোমবার রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় উত্তরবঙ্গ সফর সেরে শহরে ফেরার পর। খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জৈন হাওয়ালা কেসে তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছেন। ১৯৯৬ সালের হাওয়ালা-জৈন কেলেঙ্কারির চার্জশিটে জগদীপ ধনখড়ের নাম ছিল বলে অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। পরে সাংবাদিক বৈঠক করে সেই অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন স্বয়ং রাজ্যপাল৷ কিন্তু তারপরই আসরে নামেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। মহুয়ার অভিযোগ, বেআইনিভাবে আবাসনের জমি বরাদ্দের (Illegal Residential Land Allotment) সুবিধেভোগীও ছিলেন বাংলার বর্তমান রাজ্যপাল৷ যদিও পরে পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট সেই বরাদ্দ জমি খারিজ করে দেয় ৷

    মহুয়ার সেই অভিযোগের ভিত্তিতে অবশ্য কোনও মন্তব্য করেননি ধনখড়। এদিন সেই বিষয়টি নিয়েও সরব হয়েছেন সুখেন্দু শেখর। তাঁর কটাক্ষ, 'এই রাজ্যপাল জমি কেলেঙ্কারিতেও যুক্ত। সেটা নিয়েও উনি চুপ। এই মানুষ উত্তরবঙ্গে যাচ্ছেন। উস্কানি দিচ্ছেন। যার বিরুদ্ধে এত অভিযোগ সেই অভিযুক্ত লোককে রাজ্যপাল হিসাবে নিয়োগ করার আগে মুখ্যমন্ত্রীর সাথে কথা বলা উচিত ছিল। আমাদের অনুরোধ ওনাকে সরিয়ে নিন। আমরা রাষ্ট্রপতির সাথে কথা বলব। ইমপিচমিন্ট নিয়ে দল ভাববে। যে যে পদ্ধতি আছে দেখা হবে।

    ' অর্থাৎ, একদিকে বিজেপি যখন ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডে তৃণমূলকে চাপে ফেলতে তৎপর, তখন এবার পাল্টা রাজ্যপালকে নিশানা করে আসরে নামল শাসক দল।

    Published by:Suman Biswas
    First published: