পিকে-তৃণমূল সম্পর্কে ভাঙনের গুজব ওড়ালেন, নন্দীগ্রামের ফলাফল নিয়ে যা বললেন সৌগত রায়...

পিকে-তৃণমূল সম্পর্কে ভাঙনের গুজব ওড়ালেন, নন্দীগ্রামের ফলাফল নিয়ে যা বললেন সৌগত রায়...

মোদি-শাহের তত্ত্ব ওড়ালেন সৌগত রায়।

তৃণমূলের পাল্টা, গুজব ছড়াচ্ছেন মোদি-শাহ। অমিত শাহের নির্বাচনী অনুমান ভুল।

  • Share this:

    কলকাতা: দ্বিতীয় দফার ভোট শেষ। তবে নন্দীগ্রাম নিয়ে আলোচনা, পাল্টা আলোচনা, থামছে না। বিশেষত মুখ্যমন্ত্রী কেন প্রায় দু ঘণ্টা কাটালেন বয়ালের  ৭ নং বুথে, তাই নিয়ে কপালে ভাঁজ বিজেপি শিবিরের। এই আবহে রাজ্যে প্রচারে এসে নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ অবশ্য বলছেন নন্দীগ্রাম জয় নিশ্চিত। তৃণমূলের পাল্টা, গুজব ছড়াচ্ছেন মোদি-শাহ। অমিত শাহের নির্বাচনী অনুমান ভুল।

    শুক্রবার বিকেলে সাংবাদিক বৈঠক থেকে সৌগত রায় বলেন মোদি শাহ নন্দীগ্রাম নিয়ে নানা গুজব  ছড়াচ্ছেন। আমরা কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পেরেছি. ,তৃণমূল ওখানে খুবই ভালো ভোট পেয়েছে।  অর্থাৎ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রামে জয়লাভ করতে চলেছেন।

    প্রসঙ্গত আজই নির্বাচন কমিশনে কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে অভিযোগ করেছেন তৃণমূল প্রতিনিধিরা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও উত্তরবঙ্গের সভায় বলেছেন, সিআরপিএফ-কে অন্যায় ভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে। আরও একধাপ এগিয়ে সৌগত রায় আন্দোলনে নামার কথাও বললেন। তাঁর কথায়, কেন্দ্রীয় বাহিনী যে ভাবে কাজ করছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয়। আমরা নির্বাচন কমিশনে ইতিমধ্যেই জানিয়েছি। কমিশন ব্যবস্থা না নিলে  প্রতিবাদে নামতে বাধ্য হবো।

    উল্লেখ্য নন্দীগ্রামের ভোট মিটতেই গুজব ছড়াতে থাকে প্রশান্ত কিশোর-তৃণমূলের গাঁটছড়া ছিন্ন হচ্ছে। এই তত্ত্ব সম্পূর্ণ নস্যাৎ করে দিয়ে বিজেপিকে এই ধরনের গুজব ছড়ানোর জন্য কাঠগড়ায় তোলেন সৌগত রায়। আসে তামিলনাড়ুতে স্ট্যালিনের পরিবারে আয়কর বিভাগের হানার প্রসঙ্গও। সৌগতর কথায়, বিজেপির প্রতিশোধস্পৃহা প্রচণ্ড। নির্বাচনের সময়েও নেতাদের হেনস্থা করা হচ্ছে এই ধরনের সংস্থাকে ব্যবহার করে। প্রসঙ্গত এই নিয়ে দিন কয়েক আগে একটি চিঠিও লেখেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি চিঠিতে  অবিজেপি রাজ্যগুলির নেতাদের  উদ্দেশ্যে  বলেন, এভাবে রাজ্যে রাজ্যে ইডি, সিবিআই-র মতো সংস্থাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহারের বিরুদ্ধে একজোট হতে। নতুন করে বারংবার এই বিষয়টিকে সামনে আনা আসলে কি জাতীয় পরিসরে তৃতীয় পরিসর তৈরির ইঙ্গিত? জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর