ছোট্ট মেয়েটা শুনছে বাবার নামে কুমন্তব্য, কী ভাবে লড়তে হবে, অভিষেক শিখিয়েছেন আজানিয়াকে

ছোট্ট মেয়েটা শুনছে বাবার নামে কুমন্তব্য, কী ভাবে লড়তে হবে, অভিষেক শিখিয়েছেন আজানিয়াকে

মুখোমুখি কথাবার্তায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

একান্ত সাক্ষাৎকারে নিজেকে ভাঙলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ খুললেন এই ব্যক্তিগত পৃথিবী আর লড়াইটা নিয়েই। কথা বললেন কমলিকা সেনগুপ্ত

  • Share this:

    #কলকাতা: ভোটের বাজারে প্রতিদিন  অন্তত দুই থেকে তিনটি  জনসভা করতে হচ্ছে । ফলে প্রচারের আলোয় তিনি থাকবেন এ কথা স্বাভাবিক। কিন্তু প্রচারের সবটুকুই তো নিষ্কলুষ নয়, কাঁটাও আছে। বিজেপি নেতারা কখনও তাঁকে বলে তোলাবাজ, কখনও তার দলকে কটাক্ষ করে বলা হয় পিসি ভাইপোর সিন্ডিকেট। তিনি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, একজন রাজনীতিবিদের পাশাপাশি একজন ফ্যামিলি ম্যানও। সচরাচর ব্যক্তিগত পৃথিবী সম্পর্কে মুখ খুলতে দেখা যায় না তাঁকে। কিন্তু  টিভির পর্দায় সন্তান যখন দেখে, বাবাকে নিয়ে এই ধরনের মন্তব্য করা হচ্ছে, কী ভাবে নেয়? এই প্রথম নিউজ এইট্টিন বাংলায় একান্ত সাক্ষাৎকারে নিজেকে ভাঙলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ খুললেন এই  ব্যক্তিগত পৃথিবী আর লড়াইটা নিয়েই ।

    নিউজ ১৮ বাংলার একান্ত সাক্ষাৎকারে অভিষেককে এদিন প্রশ্ন করা হয়েছিল ,টেলিভিশনের পর্দা খুললেই দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী হন বা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এমনকি বিজেপির ছোট বড় নেতারাও তাঁর নাম নিয়ে আক্রমণ করছেন। তোলাবাজ, চোর কোন মন্তব্য থাকছে না। তজানতে চাওয়া হয় এ ঘটনায় কী প্রভাব পড়েছে তাঁর সন্তানদের উপর? তিনি কী বলেন সন্তানদের?

    ঠান্ডা মাথায় থেমে থেমে বিষয়টি বিশ্লেষণ করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রথমেই স্বীকার করে নিলেন, হ্যাঁ মেয়ে আজানিয়া ও এ বিষয়গুলির মুখে পড়ছে। এবং এই বয়সেই সে একটু একটু করে বুঝতে শুরু করেছে কেন এমনটা হচ্ছে।

    অভিষেকের কথায়, আমি তাঁকে বুঝিয়েছি প্রধানমন্ত্রীর পদমর্যাদা এবং প্রধানমন্ত্রীর আসনের গুরুত্ব। বুঝিয়েছি এই আসনটিকে সম্মান করতে হয়। কিন্তু পাশাপাশি এই ধরনের মন্তব্য কেন করা হয়, কারা করেন তাও তাকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাকি আজানিয়াকে বলেছেন, ভবিষ্যতে তাঁকেও এই ধরনের মন্তব্যের মুখে পড়তে হতে পারে এবং তার জন্য প্রস্তুত হতে হবে।

    প্রসঙ্গত গত ২৩ ফেব্রুয়ারি শান্তিনিকেতন বিল্ডিংয়ে অভিষেকের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সিবিআই জেরা করতে আসে। আর তার ঠিক আগেই আগেই ওই বাড়িতে পৌঁছন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  পরে মমতার হাত ধরে বেরিয়ে আসতে দেখা গিয়েছিল ছোট্ট আজানিয়াকে।  অভিষেকের ছেলে আয়াংশের বয়স এখন অবশ্য ‌দুইও হয়নি। তবে রাজনীতির পাশাপাশি সন্তানদের মনোজগত  বিষয়ে অভিষেক যে  যথেষ্ট সচেতন থাকেন, তা এদিন বুঝিয়ে দিলেন কথায় কথায়।

    -কমলিকা সেনগুপ্ত

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর