সেলেবদের পাঠশালা এবার তৃণমূল ভবনে, ভোটপ্রচারের অ-আ-ক-খ শেখালেন ডেরেক

সেলেবদের পাঠশালা এবার তৃণমূল ভবনে, ভোটপ্রচারের অ-আ-ক-খ শেখালেন ডেরেক

তৃণমূল ভবনে অভিনেতাদের পাঠশালা।

মূলত কী ভাবে সামলাতে হবে প্রচার, কী বলতে হবে জনসভায় সে ব্যাপারে শিল্পীদের অভ্যস্ত করানোর প্রক্রিয়াটাই ডেরেকের হাতে শুরু হল ঘাস ফুলের অন্দরে।

  • Share this:

#কলকাতা: রাজনীতির ময়দানে টলিউডের নবাগতদের ক্লাস নিল তৃণমূল কংগ্রেস। বুধবার তৃণমূল ভবনে রাজ চক্রবর্তী থেকে রণিতা সকলের ক্লাস নিলেন রাজ্যসভার সাংসদ তথা ক্যুইজ মাস্টার তথা তৃণমূলের নির্বাচনী কমিটির সদস্য ডেরেক'ও ব্রায়ান। মূলত কী ভাবে সামলাতে হবে প্রচার, কী বলতে হবে জনসভায় সে ব্যাপারে শিল্পীদের অভ্যস্ত করানোর প্রক্রিয়াটাই ডেরেকের হাতে শুরু হল ঘাস ফুলের অন্দরে।

চলতি বিধানসভা ভোটে জোড়া ফুলের প্রার্থী তালিকায় থাকতে চলেছে একাধিক তারকা প্রার্থী। কিছুদিন আগেই মুখ্যমন্ত্রীর সভায় যোগ দিয়েছেন এক ঝাঁক তারকা।সূত্রের খবর, এই তারকাদের একাধিক জনই এই নির্বাচনে প্রার্থী হতে চলেছেন। কিন্তু ভোটে দাঁড়িয়ে তারকাসুলভ আচরণ করলে মানুষের কাছে পৌছতে অসুবিধা হবে। যেহেতু এদের অনেকেই প্রত্যক্ষ রাজনীতির সাথে যুক্ত নন তাই তথ্য-পরিসংখ্যান বা কেন্দ্রীয় স্কিমের সাথে রাজ্যের স্কিমের ফারাক তাঁরা বোঝেন না বা অনেকের কাছে বিষয়টি সম্পর্কে যথাযথ তথ্য নেই। এই অবস্থায় সেলেবদের 'অ-আ-ক-খ' শেখালেন ডেরেক'ও ব্রায়ান।

ক্লাসে যুক্তি দিয়ে বলা হয়েছে, কেন আয়ুষ্মান ভারতের চেয়ে স্বাস্থ্য সাথী ভালো, কেন রাজ্যের রাস্তা ভালো, কেন্দ্রের রাস্তার চেয়ে, বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও এর থেকে কেন কন্যাশ্রী ভালো। গত কয়েক বছরে রাজ্যে এই ধরনের একাধিক স্কিমে কত টাকা বরাদ্দ হয়েছে। এই ক্লাসেই বলা হয়েছে, সমাজের কোন শ্রেণির মানুষ এর সুবিধা পান, বিরোধীরা এই সমস্ত স্কিম সম্পর্কে যে সব অভিযোগ তুলছেন তার মোকাবিলা করতে হবে যাবতীয় তথ্য, পরিসংখ্যান দিয়েই।

পাঠশালার শিক্ষক সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়ান বলছেন, "রাজনীতি একটা সিরিয়াস বিষয়। জনগণের সামনে পৌছতে হবে যাবতীয় তথ্য, পরিসংখ্যান দিয়ে। তবে তা অবশ্যই সঠিক হতে হবে।" এদিন পাঠশালার শেষে অবশ্য বেশ আত্মবিশ্বাসী দেখাচ্ছিল ছাত্র-ছাত্রীদের। ক্লাসে হাজির ছিলেন চিত্র পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। তিনি জানিয়েছেন, "বিভিন্ন বিষয়ে আমরা অবহিত। কিন্তু তথ্য পরিসংখ্যান আমাদের হাতে রাখতে হবে। প্রচারে বেরিয়ে মানুষকে বোঝাতে হবে, কেন মমতা বন্দোপাধ্যায়কে চাই।"

এদিনের পাঠশালার ছাত্রী রণিতা দাস জানাচ্ছেন, "আমি রাজ্য সরকারের স্কিমগুলোর নাম জানি। কিন্তু সেই স্কিমের কাজ কিভাবে করা হয়। কারা প্রত্যক্ষ ভাবে যুক্ত। এই সব কিছু জেনে নিচ্ছি।" সেলেবদের হাতে এদিন পেপার মেটিরিয়াল ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে। আগামী ৮ মার্চ তাঁরা প্রথম রাজনৈতিক কর্মসূচী পালন করবেন। মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সাথে পা মেলাবেন কলকাতার মিছিলে। নারী দিবসের মিছিলে স্লোগান হবে, "বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়"।

Published by:Arka Deb
First published:

লেটেস্ট খবর