• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • TMC COMPLAINS AGAINST SUVENDU ADHIKARI AT ELECTION COMMISSION ALLEGING THAT HE IS HARBORING ANTI SOCIALS AKD

Suvendu Adhiukari: নন্দীগ্রামের চার বাড়িতে দুষ্কৃতী রেখেছন শুভেন্দু, বিস্ফোরক অভিযোগ নিয়ে কমিশনে তৃণমূল

শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে কমিশনে তৃণমূল।

চারটি বাড়ি ভাড়া করে বহিরাগত দুষ্কৃতীদের আশ্রয় দানের অভিযোগ রয়েছে ডেরেক ওব্রায়েনের লেখা চিঠিতে।

  • Share this:

    #কলকাতা: শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হল তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূলের অভিযোগ, নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর মদতে যে আবহ তৈরি হয়েছে তাতে শান্তিপূর্ণ ভাবে নির্বাচন হওয়া সম্ভব নয়। মূলত চারটি বাড়ি ভাড়া করে বহিরাগত দুষ্কৃতীদের আশ্রয় দানের অভিযোগ রয়েছে ডেরেক ওব্রায়েনের লেখা চিঠিতে।

    তৃণমূলের বক্তব্য, নন্দীগ্রামের বেশ কয়েকটি বাড়িতে বহিরাগতরা আশ্রয় নিয়েছেন। তাদের দিয়ে ভোটের দিন কোনও দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে বলে আশঙ্কা তৃণমূলের। তৃণমূলের বক্তব্য স্থানীয় ভাবে পুলিশকে এই বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেও লাভ হয়নি।

    এই চারটি বাড়ির মধ্যে একটি রেয়াপাড়ার কাছে কালীপদ শী-র বাড়ি। দ্বিতীয় বাড়িটি মেঘনাদ পালের, চণ্ডীপুর রোডের ধারে। তৃতীয় বাড়িটি টেঙ্গুয়ার তেরোপাখি গ্রামে। আর রয়েছে বয়াল এলাকার ভজহরি সামন্তর বাড়ি।তৃণমূলের অভিযোগ, এই বাড়িগুলিতে দীর্ঘদিন ধরেই কোথাও ২০ জন, কোথাও ৩০ জন বহিরাগতদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। তাঁরা এলাকায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে।

    তৃণমূলের অভিযোগের আঙুল শুভেন্দু অধিকারীর দিকেই। তারা চিঠিতে স্পষ্ট লিখেছেন, এই বাড়িগুলিতে শুভেন্দুই ভাড়া করে এনে বসিয়েছেন দুষ্কৃতীদের। কমিশনের হস্তক্ষেপেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়া সম্ভব বলে মনে করছেন তাঁরা।

    নন্দীগ্রামে ভোট হতে চলেছে ১ এপ্রিল। শেষ সাতদিন প্রচারে ঝড় তোলার পরিকল্পনা রয়েছে সব পক্ষেরেই।  শোনা যাচ্ছে বিজেপি শেষদিনে সেখানে মিঠুন চক্রবর্তীকে হাজির করতে পারে। অন্য দিকে, প্রচার নিয়ে অভিনব পরিকল্পনা রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও।  তিনি নিজেমুখেই বলেছেন, দোলের সন্ধ্যাবেলায়  তিনি পৌঁছে যাবেন নন্দীগ্রামে। চলবে শেষবেলার ঝড়তোলা  প্রচার। এরই পাশাপাশি ডিজিটাল প্রচারেও নজর দিয়েছে তৃণমূল। তৃণমূল কংগ্রেস একটি  প্রচার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় নিয়ে এসেছে তার নাম দেওয়া হয়েছে 'ফাইটার দিদি'। সেখানে দেখানো হয়েছে তিনি একা লড়াই চালিয়ে তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বীদের ব্যাগে ভরে গুজরাত পাঠিয়ে দিচ্ছেন স্পিড পোস্টে করে। ভিডিওতে দেখানো হয়েছে, নন্দীগ্রামে বিজেপি অন্ধকার নিয়ে আসছে। গ্যাসের দাম বৃদ্ধি, ক্রমাগত নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্যবৃদ্ধির প্রভাব পড়ছে মানুষের ওপরে। আর তখনই নিজের জ্যোতি ছড়িয়ে নন্দীগ্রামে হাজির মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি তাঁর একক দক্ষতায় একা লড়াই করে নন্দীগ্রামে পরাস্ত করছেন প্রতিদ্বন্দ্বীদের। তারপর তাদের একসঙ্গে বস্তায় ভরে স্পিড পোস্টে করে পাঠিয়ে দিচ্ছেন তিনি।

    Published by:Arka Deb
    First published: