• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • মমতা নন্দীগ্রামে, বাকিরা কে কোথায়! চমক তৃণমূলের প্রার্থীতালিকায়

মমতা নন্দীগ্রামে, বাকিরা কে কোথায়! চমক তৃণমূলের প্রার্থীতালিকায়

প্রার্থীতালিকা ঘোষণা করছেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়।

প্রার্থীতালিকা ঘোষণা করছেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়।

ভবানীপুরে তাঁর বদলে‌ দাঁড়াবেন ঘরের ছেলে শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

  • Share this:

    #কলকাতা: প্রথম দল হিসেবে ২০২১ বিধানসভার ২৯১টি আসনের প্রার্থীতালিকা প্রকাশ করল তৃণমূল। কার্শিয়াং, কালিম্পং, দার্জিলিংয়ের আসন ছাড়া হল জন্য গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার জন্য। তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় এবার স্থান পেলেন ৪২ জন মুসলিম প্রার্থী। ৫০ জন মহিলা প্রার্থীকে তালিকায় স্থান দিল তৃণমূল। তফশিলিরা ৭৯টি আসন থেকে লড়বেন তৃণমূলের হয়ে। এবারের প্রার্থীতালিকা থেকে বাদ পড়লেন বহু হেভিওয়েট। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অবশ্য কথা মতো দাঁড়াচ্ছেন শুধু নন্দীগ্রামেই। অর্থাৎ তাঁকে এবার প্রার্থী হিসেবে পাচ্ছে না ভবানীপুরে। ভবানীপুরে তাঁর বদলে‌ দাঁড়াবেন ঘরের ছেলে শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। ফলে রাসবিহারী থেকে লড়বেন দাঁড়াবেন দেবাশীস কুমার। প্রার্থীতালিকা দিতে বসেও আত্মবিশ্বাসী মমতা বললেন, বাংলার সংস্কৃতি যাঁরা জানে না সেই বহিরাগত নয়, বাংলার রাশ থাকবে বাংলার লোকের হাতেই।  তাঁর কথায় এই নির্বাচন বাংলার অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই।

    এক নজরের তৃণমূলের প্রার্থী তালিকার প্রধান মুখগুলি- (আপডেট চলছে)

    মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-নন্দীগ্রাম শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়-ভবানীপুর বেহালা পশ্চিম-পার্থ চট্টোপাধ্যায়। চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য-দমদম উত্তরে। মদন মিত্র-কামারহাটি। অতীন ঘোষ-কাশীপুর বেলগাছিয়া দমদম-ব্রাত্য বসু। সুজিত ভৌমিক-বিধাননগর ইন্দ্রনীল সেন-চন্দননগর। কাঞ্চন মল্লিক-উত্তরপাড়া জুন মালিয়া-মেদিনীপুর সায়ন্তিকা -বাঁকুড়া সায়নী ঘোষ-আসানসোল দক্ষিণ মনোজ তিওয়ারি-শিবপুরে রাজ চক্রবর্তী -ব্যারাকপুরে বীরবাহা হাঁসদা-ঝাড়গ্রামে। বিবেক গুপ্ত-জোড়াসাঁকো। মনোজ তিওয়ারি-শিবপুর। ইদ্রিশ আলি-ভগবানগোলা। সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী-মন্তেশ্বরে। পানিহাটি-নির্মল ঘোষ। খড়দহ-কাজল সিনহা। সাধন পাণ্ডে মানিকতলা। রত্না চ্যাটার্জী-বেহালা। হুমায়ুন কবীর-ডেবরা। সোহম-চণ্ডীপুর বিদেশ বসু-উলুবেড়িয়া পূর্ব। লাভলি মৈত্র-সোনারপুর। কল্যাণ ঘোষ-ডোমজুড়। মনোরঞ্জন ব্য়াপারী-বলাগড়। সিঙ্গুর-বেচারাম মান্না। দেবব্রত মজুমদার-যাদবপুর। কৃষ্ণনগর উত্তর- কৌশানি। ফরাক্কা -মনিরুল ইসলাম।

    পুরনো নতুনের মিশেলে অভিনব এই প্রার্থীতালিকা থেকে বাদও পড়লেন অনেকেই। পূর্ণেন্দু বসু যাবেন বিধান পরিষদে। অমিত মিত্রও এবার শারীরিক অসুস্থতার কারণে সরে দাঁড়াচ্ছেন। থাকছেন না মনীশ গুপ্ত। থাকছেন না সিঙ্গুরের মাস্টারমশাই রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। বয়সের কারণে বাদ পড়ছে ব্রজ মজুমদারের নাম। শারীরিক সমস্যার কারণে বাদ যাচ্ছেন সোনালি গুপ্তও। নাম নেই জটু লাহিড়ির। আগে থেকে নিজেই সরে দাঁড়িয়েছেন মমতার প্রিয় বুয়া তথা সমীর চক্রবর্তী। বাদ পড়ছেন অমল আচার্যও।

    এবারের প্রার্থীতালিকা তৈরি করতে ‌মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অস্ত্র ছিল সোশ্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং। দেখা গেল, বলাগড়ে টিকিট পেলেন দলিত লেখক মনোরঞ্জন ব্যাপারীও। প্রাধান্য পেল বহু নতুন মুখ, মহিলা। এবারের প্রার্থীতালিকায় তফশিলি সম্প্রদায়ভুক্ত রাখলেন ৭৯ জনকে অর্থাৎ নির্ধারিত আসনের থেকে বেশি অন্তত দশজনকে । দুর্নীতিতে নাম জড়িয়েছে এমন কাউকে টিকিট দেওয়ার ব্যাপারে বাড়তি সতর্কতা নিতে দেখা গেল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলকে।

    Published by:Arka Deb
    First published: