এখনও পর্যন্ত চিন থেকে আসা যাত্রীদের মধ্যে Corona-র সংক্রমণ নেই, জানাল কলকাতা বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ

এখনও পর্যন্ত চিন থেকে আসা যাত্রীদের মধ্যে Corona-র সংক্রমণ নেই, জানাল কলকাতা বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ
Representational Image

ইতিমধ্যেই এই ভাইরাস চিহ্নিত করতে বিমানবন্দরে বসানো হয়েছে বিশেষ স্ক্যানার।

  • Share this:

#কলকাতা: এখনও পর্যন্ত চিন থেকে আসা যাত্রীদের মধ্যে করোনার কোনও সংক্রমণ নেই। দাবি কলকাতা বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের। ইতিমধ্যেই এই ভাইরাস চিহ্নিত করতে বিমানবন্দরে বসানো হয়েছে বিশেষ স্ক্যানার। এই পরিস্থিতিতে দেশের প্রতিটি বিমানবন্দরে থার্মাল স্ক্যানার বসাতে অসমারিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকে অনুরোধ করল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

রাত ১১টা ৩২ মিনিট।চিনের কুনমিঙ প্রদেশ থেকে কলকাতার মাটি ছুঁল বিমান। তার আগেই অবশ্য জারি করা হয়েছে করোনা ভাইরাস নিয়ে নির্দেশিকা। সেই নির্দেশিকা মেনেই যাত্রীদের পরীক্ষা করা হয়। সতর্কতা হিসেবে....চিন থেকে আসা যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা হবে বিমানবন্দরের ভিতরেই। অভিবাসন যাচাইয়ের আগেই এই স্বাস্থ্যপরীক্ষা করা হবে। বসানো হয়েছে দুটি থার্মাল স্ক্যানার। এই স্ক্যানারের মাধ্যমে ভাইরাস ঠেকানো সম্ভব বলেই দাবি বিশেষজ্ঞদের। কলকাতা-সহ প্রাথমিক ভাবে সাতটি বিমানবন্দরে এই সতর্কতা জারি হয়েছে।

আগামী শুক্রবার চিনে নববর্ষ। তার আগে করোনা ভাইরাসের দাপটে আতঙ্ক। এই পরিস্থিতিতে চিন ছাড়ার আগে নেওয়া হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা।চিন থেকে বিভিন্ন দেশে যেতে হলে যাত্রীদের দিতে হবে মুচলেকা। যাত্রীদের উল্লেখ করতে হবে, গত চল্লিশ দিন তাঁরা ইউহান প্রদেশে যাননি। এমনকী, তাঁদের জ্বর ও সংক্রমণ নেই। চিন ছাড়ার আগে একটি কপি থাকবে যাত্রীর কাছে। অন্যটি রাখবে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

নতুন এই ভাইরাস ঠেকাতে মঙ্গলবার থেকেই অসমারিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। বুধবার এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে...চিনের সঙ্গে যুক্ত দেশের প্রতিটি বিমানবন্দরে আসা এবং যাওয়া যাত্রীদের করোনা ভাইরাস সম্পর্কে স্পষ্ট ভাবে জানাতে হবে। ডিসপ্লে বোর্ডে এই ব্যাাপরে তথ্য দিতে হবে। যাতে যাত্রীরা পড়তে এবং বুঝতে পারেন।

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে চিনা ভারতীয় দূতাবাসেও তথ্য তলব করেছে বিদেশমন্ত্রক। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দাবি মেনে চাওয়া হয়েছে গত বছরের একতিরিশে ডিসেম্বরের পর থেক ভিসা আবেদনের তালিকা।

First published: January 23, 2020, 2:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर