এ বার পরিযায়ী শ্রমিকদেরও মাথার ওপরে থাকবে ছাদ, কাজ শুরু করছে আবাসন দফতর

এ বার শ্রমিকদের জন্যে আবাসন তৈরি হচ্ছে যা ওই কোম্পানি বা সংস্থা ভাড়া নেবে। কাজ শেষ হয়ে গেলে বা চুক্তি শেষ হয়ে গেলে আবাসন দফতর তা আবার ফিরিয়ে নেবে।

এ বার শ্রমিকদের জন্যে আবাসন তৈরি হচ্ছে যা ওই কোম্পানি বা সংস্থা ভাড়া নেবে। কাজ শেষ হয়ে গেলে বা চুক্তি শেষ হয়ে গেলে আবাসন দফতর তা আবার ফিরিয়ে নেবে।

  • Share this:

ABIR GHOSHAL

#কলকাতা: পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্যে এ বার মাথা গোঁজার পাকা ব্যবস্থা করতে চলেছে রাজ্য সরকার। পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্যে আবাসন গড়ে দেবে রাজ্য সরকার। আবাসন দফতরের দায়িত্ব নিয়েই এই বিষয়ে আধিকারিকদের ব্যবস্থা গ্রহণের প্রয়োজনীয় নির্দেশ দিয়েছেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। এই কাজের জন্যে ইতিমধ্যেই শ্রম দফতরের মাধ্যমে বিভিন্ন সংস্থার সাথে কথা বলা হবে। দফতর চাইছে ভিন রাজ্য বা ভিন জেলা থেকে কাজের জন্যে পরিযায়ী শ্রমিকদের যে সংস্থা নিয়ে আসবে তারা আবাসন দফতরের থেকে আবাসনের নির্দিষ্ট ঘর ভাড়া নিয়ে নিক। সেখানেই রাখার ব্যবস্থা করা হবে পরিযায়ী শ্রমিকদের। ফলে নোংরা, অস্বচ্ছ পরিবেশে পরিযায়ী শ্রমিকদের থাকতে হবে না।

আবাসন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন, ''জেলা বা ভিন রাজ্য থেকে শ্রমিকদের নিয়ে এসে নানা সংস্থা কলকাতা ও অন্য জেলায় বিভিন্ন উৎপাদন এবং নির্মাণ কেন্দ্রিক শিল্পে কাজে লাগান। যদিও এই সব শ্রমিকদের জন্যে কোনও স্বাস্থ্যকর বাসস্থান থাকে না। অধিকাংশ শ্রমিক তাই হয় ফুটপাথে বা ফাঁকা মাঠের মধ্যে বাস করেন। অনেক ক্ষেত্রে যেমন দূর্ঘটনা হয় তেমনই কোথাও আবার সরকারি জমি জবরদখল হয়ে যায়। তাই এ বার শ্রমিকদের জন্যে আবাসন তৈরি হচ্ছে যা ওই কোম্পানি বা সংস্থা ভাড়া নেবে।" কাজ শেষ হয়ে গেলে বা চুক্তি শেষ হয়ে গেলে আবাসন দফতর তা আবার ফিরিয়ে নেবে। অন্য সংস্থাকে আবার ভাড়া দেবে।

অন্যদিকে আবাসন দফতরের আয় বাড়াতে এ বার নয়া উদ্যোগ নিতে চলেছে দফতর। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, রাজ্য জুড়ে আবাসন দফতরের যে সব এল আই জি ও এম আই জি ফ্ল্যাট আছে সেগুলি চিহ্নিত করা হচ্ছে। তার মধ্যে যাঁরা ভাড়ায় আছেন তাঁদের চিহ্নিত করা হবে। তারপর সেই ফ্ল্যাট তাঁদের বিক্রি করে দেওয়া হবে। এর ফলে দফতরকে প্রতি বছর রক্ষণাবেক্ষণ বাবদ যত টাকা খরচ করতে হয় সেটা অনেকটাই কমবে। এ ছাড়া যাঁরা জবরদখল করে বসে আছেন তাঁদের সঙ্গেও সংঘাত কমবে। আবাসন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন, "যে বা যাঁরা ফ্ল্যাট কিনে নেবেন তাঁরাই একটা কো-অপারেটিভ তৈরি করে নিজেরা বাড়িটির রক্ষণাবেক্ষণ করবেন।" আপাতত এ ভাবেই আয় বাড়ানোর পথে হাঁটতে চাইছে আবাসন দফতর।

Published by:Simli Raha
First published: