corona virus btn
corona virus btn
Loading

ওরা লকডাউনে আসে, ময়দানের পাখির ডাকে ওরাই আসে

ওরা লকডাউনে আসে, ময়দানের পাখির ডাকে ওরাই আসে

লকডাউনে ময়দানে মানুষের পরবর্তীতে শুরুই দেখা মেলে কাকের। খিদিরপুরের একটি ছোট্ট বাড়ি থেকে তাদের কথা মনে করেন আমিন।

  • Share this:

#কলকাতা: লকডাউন খাদ্যের যোগান সবারই প্রধান ও একমাত্র উদ্দেশ্য। রাস্তার ভিক্ষুক থেকে পথশিশু সবারই খাদ্যের যোগান দিচ্ছেন হয় সরকার নয় কোন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। তবু লকডাউনে অভুক্ত পশু। পথের কুকুরদের খাদ্যের সন্ধান হলেও পথে অন্য এত পশুদের খবর কে নেয়। সকালে যাদের ডাক ছাড়া সকালটাই পূর্ণতা পায় না তা হল পাখি। ময়দানে বহুপাখির আনাগোনা থাকলেও লকডাউন সকাল থেকে দেখা মেলে কাকের।

লকডাউনে ময়দানে মানুষের পরবর্তীতে শুরুই দেখা মেলে কাকের। খিদিরপুরের একটি ছোট্ট বাড়ি থেকে তাদের কথা মনে করেন আমিন। সকাল থেকে বিভিন্ন বিস্কুট, গমের যোগান করেই গাড়ি নিয়ে চলে আসেন ময়দানে।  লকডাউনের তিনদিন পর থেকেই একই কাজ করে যাচ্ছেন খিদিরপুরের ঐ বাসিন্দা। গাড়ি নিজে চালিয়ে সব সময় চলে আসা সম্ভব হয় না আমিনের। লকডাউন অমান্য করায় পুলিশের বকাবকিও জুটেছে তার। তবু পাখির খাবার আর গো- করোনা গাড়ি যেন কোন মানা জানে না। নিজে মাস্ক ব্যবহার করেন, মাস্কের প্রতি সচেতনতা বাড়াতে নিচের গাড়ির সামনে প্রতিকী মাস্কও ব্যাবহার করেছেন। তবুও তার গাড়ির হর্নের আওতাজ যেন অপেক্ষা করে ঐ ক্ষুধার্ত পাখিগুলো।

রোজ দুপুর দুটোয় তার গাড়ির একটি হর্ণেই সবাই হাজির। সবাই বলতে পাখিদের হাজিরা, যা কম নয়। বেশকিছু দিন পর থেকেই শুরু পাখি নয় বেশকিছু কুকুরদেরও পরিচিত হয়ে গেছে ঐ গাড়ির আওয়াজ। এখন পাখি আর কুকুরদের পর্যাপ্ত খাদ্যের জন্য যোগানও বেড়েছে। সকালে রোজা রেখে এখন পাখিদের খাবার খাইয়ে চলছে আমিনের রমজান মাস। তিনি জানাচ্ছেন, আগেও এসেছি প্রকৃতি ডাকে কিন্তু এখন শূন্য ময়দানে পাখিদের ডাক যেন বড়ই কানে আসে। লকডাউনে ব্যাবসা বন্ধ,  এটাই নতুন কাজ। রসিকতার ছলে বললেন ওরাই নতুন উরন্ত কাস্টমার।

First published: April 26, 2020, 8:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर