ঘরে ঘরে তৈরি হয় রাবড়ি, তাই বাংলার এই গ্রামের নাম ‘রাবড়ি গ্রাম’

ঘরে ঘরে তৈরি হয় রাবড়ি, তাই বাংলার এই গ্রামের নাম ‘রাবড়ি গ্রাম’

হুগলি জেলার একটি আস্ত গ্রামের প্রতিটি পরিবার শুধু রাবরি তৈরিতে নিজেদের নিয়োজিত করেছে।

  • Share this:

#কলকাতা: বাঙালি আর মিষ্টি এক সুতোয় গাঁথা। বাঙালি আর মিষ্টি খাবে না এমন কথা ভাবাই যায় না। আর তা যদি হয় রাবড়ি তাহলে তো আর কথাই নেই । রাবড়ি এমনই বিখ্যাত যে তার জন্য একটা গ্রামের কথা সারা পশ্চিমবঙ্গে ছড়িয়ে পড়েছে। গ্রামের নাম আইয়া ! যা এখন রাবড়ি গ্রাম নামেই জনপ্রিয় ৷

হুগলির চন্ডীতলা ব্লক এর প্রায় সব বাড়িতেই রাবড়ি তৈরি হয়। ঘর থেকে বড় বড় করে বসানো হয় দুধ, চলে ফোটানোর কাজ। এমনকী, রাতের বেলায় এই কাজ বন্ধ হয় না। দুধ ফুটে ঘন হয়, পাখার হাওয়ায় সেই ঘন দুধে মোটা সর পড়ে এই ভাবেই চলতে থাকে রাবরি বানানোর কর্মযজ্ঞ। গ্রামের ৫০-৬০ টি ঘর লেগে থাকে এই মহাযজ্ঞে।

গ্রামেরই এক বাসিন্দা মনসা চরণবাগদি প্রথম শুরু করেছিলেন এই কাজ। আজকে এই গ্রামের নাম হয়ে গেছে রাবড়ি গ্রাম। গ্রামের মানুষদের বানানো রাবড়ি ছড়িয়ে পড়ছে বাংলার নানা জায়গায় এমনকী, কলকাতাতেও। কলকাতার নামী দামী মিষ্টির দোকানে পাওয়া যায় রাবড়ি গ্রামের তৈরি রাবড়ি। যা আমাদের রসনা তৃপ্তিতে তৃপ্তি করে। নেপথ্যে থাকা এই গ্রামের মানুষগুলো দিন-রাত পরিশ্রম করে এই খ্যাতি অর্জন করেছেন। গ্রামের বাসিন্দা গোপাল চরণ বাগদী বলেছেন," দিনরাত পরিশ্রম করে আমরা এই খ্যাতি অর্জন করেছি ।আমরা এই পরিশ্রম থেকে সরে যেতে চাই না। তাই মানুষের রসনা তৃপ্তিতে আমরা নিয়োজিত। আজ আমরা পেরেছি আমাদের গ্রামের নাম আইয়া গ্রাম থেকে রাবড়ি গ্রাম করে তুলতে।"

বাস্তবিক অর্থে এই আইয়া গ্রাম রাবরি জগতে বেতাজ বাদশা। রাবড়ি প্রেমীদের কাছে এই রাবড়ি গ্রাম এক পীঠস্থান বললেই চলে।

First published: 08:51:31 PM Jan 16, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर