খোঁজ নেই, কলকাতার মেয়ে জুডিথকে ফিরিয়ে আনতে চাপ বাড়াচ্ছে সব দল

খোঁজ নেই, কলকাতার মেয়ে জুডিথকে ফিরিয়ে আনতে চাপ বাড়াচ্ছে সব দল

অপহরণের পর কেটে গিয়েছে তিনদিন । এখনও খোঁজ নেই কাবুলে অপহৃত কলকাতার মেয়ে জুডিথ ডি’সুজার।

  • Share this:

#কলকাতা: অপহরণের পর কেটে গিয়েছে তিনদিন । এখনও খোঁজ নেই কাবুলে অপহৃত কলকাতার মেয়ে জুডিথ ডি’সুজার। তদন্ত কোন পথে? রবিবার পর্যন্ত তা নিয়ে অন্ধকারে আফগানিস্থানে ভারতীয় দূতাবাসও।

যদিও জুডিথের পরিবারকে ক্রমাগত আশ্বাস দিয়ে যাচ্ছে কাবুল প্রশাসন ৷ এই পরিস্থিতিতে মেয়েকে ফেরাতে শনিবার মিশনারিজ অফ চ্যারিটিজেরও সাহায্য চেয়েছে ডি’সুজা পরিবার। জুডিথকে ফেরাতে রাজ্য সরকারও ব্যবস্থা নিচ্ছে বলে শনিবার নবান্নে জানান মুখ্যমন্ত্রী বন্দ্যোপাধ্যায়।

সুস্থ অবস্থায় জুডিথকে দেশে ফিরিয়ে আনতে কেন্দ্রের ওপর চাপ বাড়াচ্ছে সব রাজনৈতিক দল। আফগান প্রশাসনের সঙ্গে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রাখছে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক। কিন্তু জুডিথ অপহরণ নিয়ে এখনও কোনও সূত্র মেলেনি। এখনও অপহরণের দায় স্বীকার করেনি কোনও জঙ্গি সংগঠন।

সোশ্যাল নেটওয়ার্কেও জুডিথের জন্য রেসকিউ জুডিথ হ্যাসট্যাগ চালু করে প্রার্থনায় গোটা দেশ। কাবুল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র সদিক সিদ্দিকির দাবি, ‘জুডিথের খোঁজে জোরদার তল্লাশি চালানো হচ্ছে। কাবুলের সমস্ত তদন্তকারী দল কাজ করছে ৷ আরও সক্রিয় হবে কাবুল পুলিশ ৷’ কিন্তু কোথায় জুডিথ? অপহরণের তিনদিন পেরিয়ে যাওয়ার পরও এই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেনি ভারত বা আফগান প্রশাসন।

শুক্রবার বন্ধুর বাড়ি থেকে ফেরার পথে কাবুলের তৈমানি থেকে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হন জুডিথ ডিসুজা। তারপর কেটে গিয়েছে ৪৮ ঘণ্টারও বেশি সময় । খোঁজ মেলেনি আগা ফাউন্ডেশনের সিনিয়র প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর জুডিথের। অথচ অপহরণের ব্যাপারে প্রাথমিক তথ্যটুকুও মিলল না। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সহ বেশ কয়েকজনকে জেরা করলেও পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। জুডিথের ব্যাপারে নতুন তথ্য দিতে পারেনি ভারতীয় দূতাবাসও। সেকথা জানিয়েই ট্যুইট করেন ভারতীয় রাষ্ট্রদূত।

JUDITH D'SOUZA 3

জুডিথকে নিরাপদে দেশে ফিরিয়ে আনতে বদ্ধপরিকর বিদেশমন্ত্রক। একই দাবি রাজনৈতিক দলগুলির। জুডিথের পরিবারের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক’ও’ব্রায়েন। এদিন এন্টালিতে জুডিথের বাড়ি যান সিপিএম নেতা সীতারাম ইয়েচুরি, ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় সহ বাম প্রতিনিধি দল। বিদেশ মন্ত্রকের উপদেষ্টা কমিটির সদস্য হওয়ার সুবাদে তিনি নিজে বিষয়টি দেখছেন বলেও জানান সীতারাম ইয়েচুরি।

অন্যদিকে, জুডিথকে ফিরিয়ে আনার বিষয় নিয়ে বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজকে চিঠি দিয়েছেন অধীর চৌধুরী। রবিবার বিধান ভবনে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি জানান জুডিথের অপহরণ নিয়ে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও চিঠি দিচ্ছেন তাঁরা।

জুডিথকে খুঁজে বের করতে আরও বেশি করে বাহিনী নিয়োগ করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে। বিদেশমন্ত্রক বা আফগানিস্তানে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূতের পক্ষ থেকেও তেমন কোনও আশার খবর নেই। প্রধানমন্ত্রীর দফতরের হস্তক্ষেপ চাইলেও এখনও কোনও বার্তা পায়নি জুডিথের পরিবার।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে গত মাসেই কর্মরত ভারতীয় ও ভারতীয় বংশোদ্ভুতদের সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল ভারতীয় দূতাবাস। নিরাপত্তার স্বার্থে জারি হয়েছিল এক দফা নির্দেশিকাও। অনেকেই যে তা মানছেন না, জুডিথের ঘটনায় তা স্পষ্ট।

তিনদিন পরেও মেয়ের খোঁজ না পেয়ে আরও ভেঙে পড়েছে ডি’সুজা পরিবার। এই বিপদে সকলকে পাশে দাঁড়ানোর আবেদন করেছে জুডিথের দাদা জেরম ডি’সুজা ।

এন্টালির ডি’সুজা পরিবারের মেয়েকে চেষ্টা চালাচ্ছে উদ্যোগী রাজ্য সরকারও। সেকথা জানিয়েই শনিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি, জুডিথকে ফেরাতে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ করা হচ্ছে। বিদেশমন্ত্রকের সঙ্গে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রাখছেন সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন।

মিশনারিজ অফ চ্যারিটিজের সক্রিয় সদস্য ছিলেন জুডিথ। আন্তর্জাতিক শাখার মাধ্যমে আফগানিস্থানে জুডিথের মুক্তি নিয়ে উদ্যোগী হচ্ছে তাঁরাও। শনিবার অ্যালেন পার্ক থেকে সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ পর্যন্ত মোমবাতি মিছিলেও জেগে থাকল জুডিথের জন্য প্রার্থনা।

First published: 07:04:39 PM Jun 12, 2016
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर