আন্দোলন অব্যাহত প্রেসিডেন্সিতে, চিকিৎসকদের পরামর্শে বিশ্রামে উপাচার্য

আন্দোলন অব্যাহত প্রেসিডেন্সিতে, চিকিৎসকদের পরামর্শে বিশ্রামে উপাচার্য

আন্দোলনকারী পড়ুয়ারা অবশ্য জানিয়ে দিয়েছেন হিন্দু হোস্টেল ইস্যুতে অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে সরে আসার প্রশ্নই নেই। চিকিৎসক?

  • Share this:

#কলকাতা: হিন্দু হোস্টেল নিয়ে লাগাতার ছাত্র আন্দোলন চলছে প্রেসিডেন্সি #কলকাতা: বিশ্ববিদ্যালয়ে। টানা ৩০ ঘণ্টার ও বেশি সময় ধরে ঘেরাও থাকার পর বুধবার অসুস্থ হয়ে পড়ায় অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় উপাচার্যকে। চিকিৎসকদের পরামর্শে আপাতত বিশ্রামে রয়েছেন উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া। বৃহস্পতিবারও উপাচার্যের ঘরের বাইরে অবস্থান চালিয়ে গেলেন আন্দোলনকারী পড়ুয়ারা। আন্দোলনকারী পড়ুয়াদের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে উপাচার্য কথা না বলা পর্যন্ত তারা আন্দোলন প্রত্যাহার করা হবে না। এদিকে বৃহস্পতিবার ক্যাম্পাসে কোন আধিকারিকেরই দেখা পাওয়া গেল না।

হিন্দু হোস্টেল ইস্যুতে গত ৩রা ফেব্রুয়ারি থেকে আন্দোলন চলছে বিশ্ববিদ্যালয়ে। এদিন দুপুর থেকেই আবাসিকরা উপাচার্যকে ঘেরাও শুরু করলেও ৪ তারিখ কিছুক্ষণের জন্য বাড়ি যেতে পারেন উপাচার্য। পরে বিশ্ববিদ্যালয়় আসতেই পুনরায় তাকে ঘেরাও করে বিক্ষোভকারী পড়ুয়ারা। মূলত হিন্দু হোস্টেলের সমস্যা সমাধানের দাবি নিয়ে কয়েক বছর ধরে আন্দোলন চলছে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়। সমস্যার সমাধান না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিক্ষোভকারী পড়ুয়ারা। শুধু তাই নয়, গত সোমবার থেকেই বিছানা নিয়ে উপাচার্যের ঘরের সামনেই রাতে ঘুমানোর ব্যবস্থাও করে তারা। লাগাতার ঘেরাওয়ের জেরে অসুস্থ অবস্থায় পড়ুয়াদের সহযোগিতায় অ্যাম্বুলেন্স করে বুধবার ক্যাম্পাস ছাড়লেন উপাচার্য। যদিও ছাত্রদের তরফে পাল্টা দাবি আন্দোলনকে কালিমালিপ্ত করতে কর্তৃপক্ষ এ ধরনের পদক্ষেপ করছে। হাসপাতাল সূত্রের খবর বুধবার কিছুক্ষণ পর্যবেক্ষণে রেখে ছেড়ে দেওয়া হয় উপাচার্যকে ৷

মূলত হিন্দু হোস্টেলের ৩,৪ ও ৫ নম্বর ওয়ার্ড দেওয়ার দাবি করে পড়ুয়ারা। তাদের আরও দাবি, হোস্টেলের কর্মচারীদের সংখ্যা বাড়াতে হবে, বিনা নোটিশে কোন কর্মচারীকে ছাঁটাই করা যাবে না। আন্দোলনকারীদের অভিযোগ, কর্তৃপক্ষ একাধিকবার দাবি পূরণের আশ্বাস দিলেও সমস্যা মেটেনি। সোমবার থেকে লাগাতার আন্দোলন চললেও এখনো পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় তরফে কোন প্রতিক্রিয়া দেওয়া হয়নি। যদিও বুধবারই ছাত্রদের ঘেরাও তুলে নেওয়ার আবেদন জানান উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া । এদিকে পড়ুয়াদের আন্দোলনের জেরে মঙ্গল ও বুধবার কয়েকটি বিভাগে ক্লাস না হলেও বৃহস্পতিবার স্বাভাবিক ছন্দে ছিল প্রেসিডেন্সি।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

First published: February 6, 2020, 10:05 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर