সারদা চিটফান্ডে প্রতারিতদের দেওয়া  ক্ষতিপূরণের ৫০০ কোটির হিসেব চায় হাইকোর্ট !

সারদা চিটফান্ডে প্রতারিতদের দেওয়া  ক্ষতিপূরণের ৫০০ কোটির হিসেব চায় হাইকোর্ট !

১৩৯ কোটি টাকা সারদার চিটফান্ডের ক্ষতিগ্রস্তদের দেওয়া হবে না কেন। শ্যামল সেন কমিশনের স্ট্যাটাসই বা কি আদালতকে তা জানানো হোক।

  • Share this:

#কলকাতা: এপ্রিল, ২০১৩। রাজপথে নেমে আসা হাজার হাজার মানুষের বুকফাটা আর্তনাদ অনুভব করেছিল গোটা দেশ। রাতারাতি খবরের শিরোনামে জায়গা করে নেয় সারদা চিটফান্ড। হাজর হাজার কোটি টাকার প্রতারণা অঙ্ক নাড়িয়ে দেয় রাজ্য-রাজনীতি। গ্রেফতার হয সারদা সম্রাট সুদীপ্ত সেন এবং সারদা সম্রাজী দেবযানী মুখোপাধ্যায়। চিটফান্ডে প্রতারিত সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে থাকে রাজ্যজুড়ে। সারদার ক্ষতিগ্রস্তদের নিয়ে নবান্নে বৈঠকে বসে ক্যাবিনেট।

৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ক্যাবিনেট বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, কমিশন গঠন করে প্রতারিতদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার। অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি শ্যামল সেন-এর নেতৃত্বে গঠিত হয় কমিশন। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩ রাজ্য সরকার ৫০০ কোটি টাকার তহবিল গড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের টাকা দেওয়ার জন্য। ২৮৬ কোটি টাকা বিলি করা হয় ক্ষতিগ্রস্ত আমানতকারীদের। সুবীর দে সহ কিছু আমানতকারী কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করে। ৫০০ কোটির তহবিলের গড়মিলের অভিযোগ আনে। রাজ্যকে এই মর্মে রিপোর্ট পেশ করতে নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট।

শুক্রবার শুনানি চলাকালীন  রিপোর্টে সামনে আসে, এখনো ১৩৯ কোটি টাকা  তহবিলে পড়ে রয়েছে। রাজ্যের আইনজীবী অমিতেশ বন্দোপাধ্যায় আদালতকে জানান, ক্ষতিগ্রস্তদের প্রমান না হওয়া ১৩৯ কোটি টাকা সারদার আমানতকারীদের দেওয়া হলে অন্য চিটফান্ডের প্রতারিতরা বৈষম্যের অভিযোগ তুলবে। রাজ্য সেটা করতে চায় না। মামলাকারীর আইনজীবী শুভাশিস চক্রবর্তী এবং অরিন্দম দাস আদালতকে জানান, সারদার চিটফান্ডের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্যই ওই টাকার তহবিল করা হয়। ১৩৯ কোটি টাকা সারদার চিটফান্ডের ক্ষতিগ্রস্তদের দেওয়া হবে না কেন। শ্যামল সেন কমিশনের স্ট্যাটাসই বা কি আদালতকে  তা জানানো হোক। উভয় পক্ষের সওয়াল-জবাব এরপর বিচারপতি জয়মাল্য বাগচীর ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্যকে নির্দেশ দিয়ে জানায়, চার সপ্তাহের মধ্যে রাজ্য রিপোর্ট দিক ৫০০ কোটির তহবিলের। ওই তহবিলের খরচ না হওয়া ১৩৯কোটি টাকা কী করতে চায় রাজ্য তাও রিপোর্টে জানাক। শ্যামল সেন কমিশনের রিপোর্ট আদালতে পেশ করুক রাজ্য চার সপ্তাহের মধ্যেই। সূত্রের খবর, শ্যামল সেন কমিশন সারদার ক্ষতিগ্রস্তদের যে চেক বিলি করে ছিল তার বেশকিছু বাউন্স করে। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে এমপিএস সহ একাধিক চিটফান্ডের আমানতকারীদের টাকা ফেরতের জন্য এস পি তালুকদার কমিটি গঠন করে। অ্যালকেমিস্ট চিটফান্ড প্রতারিতদের কিছু টাকা ফিরিয়েছে।

ARNAB HAZRA

First published: March 13, 2020, 10:50 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर