৬ মার্চের মধ্যে ভোটকর্মীদের করোনা টিকার প্রথম ডোজ, জেলাশাসকদের নির্দেশ মুখ্যসচিবের

৬ মার্চের মধ্যে ভোটকর্মীদের করোনা টিকার প্রথম ডোজ, জেলাশাসকদের নির্দেশ মুখ্যসচিবের
৬ মার্চের মধ্যে ভোটকর্মীদের করোনা টিকাকরণের প্রথম ডোজ, নির্দেশ নবান্নের। ফাইল ছবি।

৬ মার্চের মধ্যে যারা ভোটকর্মী হিসেবে কাজ করবেন তাঁদের ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়ার প্রক্রিয়া শেষ করতে বলা হয়েছে। ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কারদের ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে টিকারকরণ শেষ করতে হবে।

  • Share this:

#কলকাতা: আর মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হতে পারে। অন্তত কমিশন সূত্রে এমনটাই খবর। যদিও ভোট কর্মীদের ভ্যাকসিন দিতে হবে এই মর্মে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য সচিব গত ৮ ফেব্রুয়ারি নির্দেশ পাঠিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্য সচিবকে। সেই নির্দেশে রাজ্যের ভোটকর্মীদের টিকাকরণের আওতায় আনার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। শুধু তাই নয়, কতজন ভোট কর্মীকে টিকা দিতে হবে তার তালিকা চেয়ে পাঠানো হয়েছিল। তারপর থেকেই বিভিন্ন রাজ্যের জেলা প্রশাসন তার ডেটা তৈরি করতে তৎপরতা শুরু করেছিল। তারপর পর থেকেই রাজ্য প্রশাসনের তরফে ভোটকর্মীদের ভ্যাকসিন দেওয়ার তৎপরতা শুরু হয়ে যায়। শুক্রবার রাজ্যের সব জেলাশাসক, কমিশনারদের নিয়ে ভিডিও কনফারেন্স করেন মুখ্য সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। ভিডিও কনফারেন্সে ভ্যাকসিন দেওয়া নিয়ে একাধিক নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেই নবান্ন সূত্রে খবর।

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, ৬ মার্চের মধ্যে যারা ভোটকর্মী হিসেবে কাজ করবেন তাঁদের ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়ার প্রক্রিয়া শেষ করতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি, ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কারদের ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে টিকাকরণের কাজ শেষ করতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্যকর্মীদের ২৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে টিকাকরণের কাজও শেষ করতে হবে। ইতিমধ্যেই রাজ্যজুড়ে টিকাকরণের কাজ শুরু হয়েছে। নবান্ন সূত্রে খবর মূলত নির্বাচনের আগেই যাতে টিকাকরণের কাজ অনেকটাই শেষ করে নেওয়া যায় তার জন্যই আরও গতি আনা হচ্ছে কাজে। এই দিনের বৈঠকে নির্বাচনের কাজে যে সমস্ত বাস বা বিভিন্ন পরিবহন মাধ্যম ব্যবহার করা হবে, সেই সব যানবাহনের চালক এবং কন্ডাক্টরদের টিকাকরণের আওতায় নিয়ে আআসা হবে কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। সূত্রের খবর, এই বিষয় নিয়ে এ দিনের ভিডিও কনফারেন্সে আলোচনা হলেও কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।

আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি রাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এরপর ২৮ ফেব্রুয়ারি ফের প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি সরকারি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে রাজ্যে আসতে পারেন। সেক্ষেত্রে রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে নির্ঘণ্ট মার্চের প্রথম সপ্তাহেই ঘোষণা করা হতে পারে বলেই মনে করছেন আধিকারিকরা। অন্যদিকে, রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশের আগেই মোতায়েন হতে চলেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।মোট ১২৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন হচ্ছে রাজ্যে। তাই সে ক্ষেত্রে নির্বাচনে নির্ঘণ্ট প্রকাশের আগেই যাতে টিকাকরণের কাজ অনেকটাই শেষ করে ফেলা যায় তার জন্যই এবার তৎপরতা শুরু হয়েছে নবান্ন তরফে বলেই মনে করছে প্রশাসনিক মহল।


SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by:Shubhagata Dey
First published: