কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

শিক্ষক নিয়োগে সুখবর! একবার উত্তীর্ণ হলেই আর দিতে হবে না টেট, নিয়ম বদলাচ্ছে কেন্দ্র!

শিক্ষক নিয়োগে সুখবর! একবার উত্তীর্ণ হলেই আর দিতে হবে না টেট, নিয়ম বদলাচ্ছে কেন্দ্র!
File Photo

সূত্রের খবর, শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় বা সিবিএসই বোর্ডের টেটের ক্ষেত্রেই নয়, বিভিন্ন রাজ্য যে টিচার এলিজিবিলিটি টেস্ট পরীক্ষা নিচ্ছে সেখানেও এই নিয়ম কার্যকরী করতে হবে।

  • Share this:

#কলকাতা: শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে সুখবর। একবার টেট উত্তীর্ণ হলে আর টেট দিতে হবে না। অন্তত এমনটাই পরিকল্পনা নিয়ে ফেলেছে ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশন। বেশ কয়েক বছর আগেই শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে নিয়ম বদল করে কেন্দ্র। জানানো হয়, শিক্ষক হতে গেলে টিচার এলিজিবিলিটি টেস্ট বা টেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে প্রার্থীদের। তবেই শিক্ষক হওয়ার ছাড়পত্র পাবেন পরীক্ষার্থীরা। কিন্তু একবার টেট উত্তীর্ণ হলে সাত বছর ছিল সেই টেট উত্তীর্ণ সার্টিফিকেটের মেয়াদ। অর্থাৎ ৭ বছরের মধ্যে সেই প্রার্থীরা চাকরি না পেলে তাহলে আবারও টেট দিতে হতো। এই নিয়ম কার্যকরী করেছিল এ রাজ্যও। কিন্তু এবার ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশন নিয়ম বদল করে জানিয়ে দিল সাত বছর নয়, কোনও প্রার্থী একবার টেট  উত্তীর্ণ হলেই আর তাঁকে টেট দিতে হবে না।

সূত্রের খবর, শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় বা সিবিএসই বোর্ডের টেটের ক্ষেত্রেই নয়, বিভিন্ন রাজ্য যে টিচার এলিজিবিলিটি টেস্ট পরীক্ষা নিচ্ছে সেখানেও এই একই নিয়ম কার্যকরী করতে হবে। যদিও কেন্দ্রের এই পরিকল্পনা নিয়ে রাজ্যের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া যথেষ্টই ধীরগতিতে চলছে। কিন্তু তার মধ্যেই ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশন ইন সিটি-এর শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপেই নিয়ম বদলে পুজোয় সুখবর দিল শিক্ষক হতে চাওয়া প্রার্থীদের। সাত বছরের বদলে সারা জীবন বৈধতা টেট উত্তীর্ণদের সার্টিফিকেটের দেওয়ার ফলে অন্তত শিক্ষক নিয়োগের চাকরির সুযোগ অনেকটাই বাড়বে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। যদিও এ রাজ্যে এখনও পর্যন্ত উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করা যায়নি। গত বছর পুজোর আগে উচ্চ প্রাথমিকে প্রভিশনাল মেধাতালিকা প্রকাশ করা হলেও গরমিল অস্বচ্ছতার অভিযোগ সেই মেধা তালিকার ওপর স্থগিতাদেশ জারি করে কলকাতা হাইকোর্ট। স্থগিতাদেশের ওপর মামলার শুনানি ইতিমধ্যে শেষ পর্যায়ে বলেই এসএসসি সূত্রে খবর। পুজোর পরেই সেই মামলার রায় দেওয়া হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু তার আগেই ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশনের এই নিয়ম বদল ইতিমধ্যেই যারা উত্তীর্ণ হয়ে বসে রয়েছেন, নিঃসন্দেহে তাদের অনেকটাই স্বস্তি দিল। সে ক্ষেত্রে এনসিটির ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশনের নিয়ম এরাজ্যে কার্যকর করা হবে কি না, সেই বিষয়ে অবশ্য রাজ্যের কোনও সুনির্দিষ্ট মতামত বা ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি।

যদিও ইতিমধ্যেই যারা টেট উত্তীর্ণ হয়ে রয়েছেন বিভিন্ন রাজ্যে, বিশেষত সিবিএসই বোর্ড পরিচালিত CTET পরীক্ষায় তাদের সার্টিফিকেটের মেয়াদ সারা জীবন থাকবে কি না, সেই বিষয়ে আইনমাফিক আলোচনা করেই ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশন জানাবে বলে জানা গিয়েছে। তবে এ রাজ্যে এখনই টেট বা টিচার এলিজিবিলিটি টেস্ট হওয়ার সম্ভাবনা নেই, অন্তত স্কুল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান এমনটাই মনে করছেন। সে ক্ষেত্রে প্রাথমিকের টেট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও রাজ্যের তরফে নেওয়া টিচার এলিজিবিলিটি টেস্ট শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশনের নয়া নিয়মেই হবে কি না, সে বিষয়ে অবশ্য কোনও বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলেই প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: October 22, 2020, 5:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर