তিস্তা জলবণ্টন নিয়ে নয়াচুক্তিতে কী প্রস্তাব? কেনই বা নিজের অবস্থানে অনড় পশ্চিমবঙ্গ?– News18 Bengali

তিস্তা জলবণ্টন নিয়ে নয়াচুক্তিতে কী প্রস্তাব? কেনই বা নিজের অবস্থানে অনড় পশ্চিমবঙ্গ?

তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে ঝুলে তিস্তা চুক্তি। ভারত-বাংলাদেশ দু’দেশে বহুবারই তিস্তার জল মোড় নিয়েছে রাজনীতির দিকে।

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Mar 27, 2017 08:04 PM IST
তিস্তা জলবণ্টন নিয়ে নয়াচুক্তিতে কী প্রস্তাব? কেনই বা নিজের অবস্থানে অনড় পশ্চিমবঙ্গ?
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Mar 27, 2017 08:04 PM IST

#কলকাতা: তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে ঝুলে তিস্তা চুক্তি। ভারত-বাংলাদেশ দু’দেশে বহুবারই তিস্তার জল মোড় নিয়েছে রাজনীতির দিকে। তর্ক-বিতর্ক হয়েছে। কিন্তু, মেলেনি সমাধানসূত্র। জলবণ্টন নিয়ে নয়াচুক্তিতে কী প্রস্তাব? কেনই বা নিজের অবস্থানে অনড় পশ্চিমবঙ্গ?

১৯৮৩ থেকে শুরু। তারপর থেকে বারবারই তিস্তার জলের পরিমাণ বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু, কেন?

বাংলাদেশের দাবি

বাংলাদেশের ধানের গোলা রঙপুর জলের অভাবে ক্ষতির মুখে পড়েছে

শুকনো মরশুমে জলের অভাবে ভুগছে তিস্তার তীরবর্তী বাংলাদেশের একাংশ

Loading...

শুকনো মরশুমে বাংলাদেশে তিস্তার জলের পরিমাণ উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে যায়

২০১১ সালে তিস্তা চুক্তির পথে এগোন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। কিন্তু, রাজ্যের স্বার্থ চরম ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে মনে করে পিছিয়ে আসেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যের দাবি

- বাংলাদেশে তিস্তার জলের পরিমাণ বাড়ালে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন উত্তরবঙ্গের কৃষকরা

- বর্ষা ছাড়া অন্য সময়ে তাঁদের জলের টান পড়বে

- ফলে, চাষবাস ক্ষতিগ্রস্ত হবে

- আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বেন বিপুল সংখ্যক কৃষক

- ক্ষতির মুখে পড়বেন মৎস্যজীবীরাও

ধাক্কা খেলেও, বারবারই তিস্তা চুক্তি সম্পূর্ণ করার দাবি তুলেছে বাংলাদেশ। কী রয়েছে সেই প্রস্তাবিত চুক্তিতে?

কী রয়েছে চুক্তিতে?

তিস্তার ৪০% জল পাবে বাংলাদেশ

৪০% জল পাবে ভারতও

বাকি ২০% জল তিস্তার নাব্যতা রক্ষার জন্য থাকবে

ফেনী নদীর জল ভাগাভাগির প্রস্তাব রয়েছে

প্রস্তাব রয়েছে বাংলাদেশের ভেতর দিয়ে খাল কেটে যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের জল গঙ্গায় নিয়ে যাওয়ার

বরাক নদীর উজানে টিপাইমুখ বাঁধ নির্মাণে বাংলাদেশের সম্মতি দেওয়ার প্রস্তাব

তিস্তার চল্লিশ শতাংশ জল বাংলাদেশে গেলে, আখেরে বড়সড় ক্ষতি পশ্চিমবঙ্গেরই বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

First published: 08:04:16 PM Mar 27, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर