• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • "দ্রুত শিক্ষক নিয়োগ চাই", এসএসসি অফিসের সামনে দিনভর অবস্থান চাকরিপ্রার্থীদের

"দ্রুত শিক্ষক নিয়োগ চাই", এসএসসি অফিসের সামনে দিনভর অবস্থান চাকরিপ্রার্থীদের

এবার উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ দ্রুত করার দাবি নিয়ে স্কুল সার্ভিস কমিশনের অফিসের সামনে দিনভর অবস্থানে শামিল হলেন উচ্চ প্রাথমিকে কয়েক হাজার চাকরি প্রার্থী।

এবার উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ দ্রুত করার দাবি নিয়ে স্কুল সার্ভিস কমিশনের অফিসের সামনে দিনভর অবস্থানে শামিল হলেন উচ্চ প্রাথমিকে কয়েক হাজার চাকরি প্রার্থী।

এবার উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ দ্রুত করার দাবি নিয়ে স্কুল সার্ভিস কমিশনের অফিসের সামনে দিনভর অবস্থানে শামিল হলেন উচ্চ প্রাথমিকে কয়েক হাজার চাকরি প্রার্থী।

  • Share this:

#কলকাতা: উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ প্রক্রিয়া এখনও পর্যন্ত আদালতের বিচারাধীন। তবে মামলার শুনানি ইতিমধ্যেই শেষ হয়ে গিয়েছে বলেই দাবি স্কুল সার্ভিস কমিশনের। আর এবার উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ দ্রুত করার দাবি নিয়ে স্কুল সার্ভিস কমিশনের অফিসের সামনে দিনভর অবস্থানে শামিল হলেন উচ্চ প্রাথমিকে কয়েক হাজার চাকরি প্রার্থী। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী করুণাময়ী থেকে বিকাশ ভবন পর্যন্ত উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের দাবি নিয়ে মিছিল ও স্মারকলিপি দেওয়ার কথা ছিল চাকরিপ্রার্থীদের।

দুপুর বারোটা নাগাদ সেই মিছিল শুরু হওয়ার কথা ছিল। অভিযোগ মঙ্গলবার সকাল থেকেই বিভিন্ন জেলা থেকে মিছিল করার জন্য প্রার্থীরা করুণাময়ী মোড়ে আসতে শুরু করলেই পুলিশের ভ্যানে তাদেরকে তুলে নেওয়া হয়। আন্দোলনকারীদের দাবির প্রায় একশোর বেশি চাকরিপ্রার্থীদের পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। তারপর দুপুরের পর থেকেই স্কুল সার্ভিস কমিশনের সদর দপ্তর এর সামনেই অবস্থানে বসে পড়েন চাকরিপ্রার্থীরা। এদিন মিছিল এবং অভিযান উপলক্ষে বিভিন্ন জেলা থেকে কয়েক হাজার প্রার্থী কলকাতায় আসেন বলেই দাবি চাকরিপ্রার্থীদের। প্রথমদিকে করুণাময়ী মোড় থেকে পুলিশ মিছিল করতে আসা চাকরিপ্রার্থীদের আটক করার প্রক্রিয়া শুরু করলেও অনেকেই ধর্মতলাতে অনেকেই কলকাতার বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকেন। তারপর বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই স্কুল সার্ভিস কমিশনের সদর দফতরে আসতে থাকেন চাকরিপ্রার্থীরা।

তারপর দুপুরের পর থেকেই এসএসসির সদর দপ্তরের সামনে অবস্থানে সামিল হন প্রায় এক হাজারেরও বেশি চাকরিপ্রার্থী। মূলত উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে টালবাহানা চলছে বলে অভিযোগ চাকরিপ্রার্থীদের। সেই নিয়োগ প্রক্রিয়া দ্রুত করতে হবে এই দাবি নিয়েই এদিন এসএসসির সদর দপ্তরের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন চাকরিপ্রার্থীরা। কমিশনের অফিসের সামনে চাকরিপ্রার্থীদের অবস্থান-বিক্ষোভ কে ঘিরে কড়া পুলিশি ব্যবস্থা মোতায়েন করা হয়েছে। যদিও দাবি নামে টা পর্যন্ত অবস্থান বিক্ষোভ তুলবে বলেই দাবি করছেন উচ্চ প্রাথমিকের চাকরিপ্রার্থীরা। তাদের অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে উচ্চ প্রাথমিক এর শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া নিয়ে গড়িমসি করা হয়েছে। তাই এবার দ্রুত নিয়োগ করতে হবে রাজ্য সরকারকে। তাদের আশঙ্কা যদি এইভাবে টালবাহানা চলতে থাকে সামনে বিধানসভা ভোট। বলতো সেক্ষেত্রে আবার নিয়োগ প্রক্রিয়া আটকে যেতে পারে।

গতবছর পূজার ঠিক আগে আগে উচ্চ প্রাথমিকে মেধাতালিকা প্রকাশ করেছিল স্কুল সার্ভিস কমিশন।১৪ হাজারেরও বেশি শূন্য পদে নিয়োগের জন্য প্রাথমিকভাবে মেধাতালিকা প্রকাশ করেছিল এসএসসি। কিন্তু তারপর থেকে নিয়োগে অস্বচ্ছতা এবং গরমিলের অভিযোগ জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় চাকরিপ্রার্থীদের একাংশ। আদালতের তরফে নিয়োগ প্রক্রিয়ার ওপর স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়। তারপর থেকে প্রায় এক বছরের বেশি সময় সীমা হতে চলল মামলার শুনানি পর্ব চলছে। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই শুনানি পর্ব শেষ হয়ে গিয়েছে। যদিও স্থগিতাদেশ উঠলেই উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া দু সপ্তাহের মধ্যেই শেষ করার লক্ষ্য রেখেছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তর বলেই সূত্রের খবর।

অনলাইন কাউন্সেলিং করার পাশাপাশি একাধিক রদবদল করা হয়েছে নিয়োগ প্রক্রিয়াকে দ্রুত শেষ করার জন্য বলেই কমিশন সূত্রে খবর। কিন্তু মঙ্গলবার থেকে শুরু হবে উচ্চ প্রাথমিকের চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন নতুন করে অস্বস্তি বাড়াচ্ছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তরের বলেই মনে করছে একাংশ। মঙ্গলবার দুপুর থেকে শুরু হওয়া অবস্থান-বিক্ষোভ বিভিন্ন জেলা থেকে উচ্চ প্রাথমিকে চাকরিপ্রার্থীরা এসেছেন বলেই দাবি আন্দোলনকারী চাকরিপ্রার্থীদের।

 সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Elina Datta
First published: