• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • বন্ধ হোক ঝুঁকির নদী পারাপার

বন্ধ হোক ঝুঁকির নদী পারাপার

টানা বৃষ্টির ফলে সমস্ত ছোট নদীর জলস্তর অনেকটাই বেড়েছে। তার মধ্যেই নৌকা নিয়ে চলছে নদী পারাপার।

টানা বৃষ্টির ফলে সমস্ত ছোট নদীর জলস্তর অনেকটাই বেড়েছে। তার মধ্যেই নৌকা নিয়ে চলছে নদী পারাপার।

টানা বৃষ্টির ফলে সমস্ত ছোট নদীর জলস্তর অনেকটাই বেড়েছে। তার মধ্যেই নৌকা নিয়ে চলছে নদী পারাপার।

  • Share this:

    #পশ্চিম বর্ধমান: লাগাতার বৃষ্টির পর ডিভিসির ছাড়া জলে ফুঁসছে দামোদর নদ। পশ্চিম বর্ধমান জেলার অন্যান্য ছোট নদীগুলিও ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে। টানা বৃষ্টির ফলে সমস্ত ছোট নদীর জলস্তর অনেকটাই বেড়েছে। তার মধ্যেই নৌকা নিয়ে চলছে নদী পারাপার। অথবা জলস্রোতকে অগ্রাহ্য করে নদী পারাপার করতে গিয়ে ঘটছে তা প্রাণহানির মত ঘটনা। তারপরও হুশ নেই সাধারণ মানুষ এবং প্রশাসনের। প্রশাসনের নজর এড়িয়ে নৌকা নিয়ে চলছে নদী পারাপার। দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা থাকছে সবসময়। তা সত্ত্বেও সচেতন হচ্ছেন না সাধারণ মানুষ।

    পশ্চিম বর্ধমানের সিলামপুর অঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগের সবচেয়ে সহজ মাধ্যম নদী পারাপার। দামোদর নদনৌকার মাধ্যমে পেরোলেই খুব কম সময়ে পৌঁছে যাওয়া যায় বাঁকুড়ায়। প্রশাসনের নজর এড়িয়ে তাই নৌকা করে চলছে পারাপার।৫০টাকার বিনিময়ে নৌকার সাহায্যে এক জেলা থেকে অন্য জেলায় পৌঁছে যাচ্ছেন মানুষ। কখনও কখনও বাইক, সাইকেল চাপিয়েও পারাপার চলছে।

    এমনিতেই মাইথন এবং দুর্গাপুর ব্যারেজ জল ছাড়ার ফলে দামোদরের জলস্তর অনেকটা বেড়েছে। তারমধ্যে ঝুঁকি নিয়ে চলছে পারাপার। নৌকাগুলির কোনোটিতেই লাইফ জ্যাকেট বা আপৎকালীন ব্যবস্থা নেই। নৌকাডুবির ঘটনা ঘটলে দামোদরের তীব্র জলের স্রোতে প্রাণহানি মতো ঘটনা ঘটতে পারে। কিন্তু সেদিকে হুশ নেই নদী পারাপার করা মানুষের। সময় বাঁচাতে অল্প টাকার বিনিময়ে তারা জীবন হাতে নিয়ে এই নদী পারাপার করছেন। হুশ নেই প্রশাসনেরও। প্রশাসনের নজর এড়িয়ে চলছে এইভাবে নদী পারাপার।

    তাছাড়াও পশ্চিম বর্ধমানের কুনুর নদী ও গাড়ুই নদীতে জল স্তর বেড়েছে টানা বৃষ্টির ফলে। গাড়ুই নদীতে জলস্তর বেড়ে যাওয়ার ফলে আসানসোলের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। তাছাড়া বিগত কয়েক দিনে গাড়ুই নদীতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে দুজনের। এক কৃষক নদী পেরিয়ে তার জমির দেখাশোনা করতে গিয়ে জলে ডুবে প্রাণ হারিয়েছেন। তিন ঘন্টা খোঁজাখুঁজির পর তার দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পাশাপাশি আসানসোলের এক যুবক গাড়ুই নদীতে ডুবে প্রাণ হারিয়েছেন।

    অন্যদিকে একইভাবে কুনুর নদীতে পারাবার চলছে নৌকার সাহায্যে। নদী সংলগ্ন গ্রামের মানুষজন জীবন হাতে নিয়ে নদী পারাপার করছেন। ঝুঁকির এই নৌকা যাত্রা এবং নদী পারাপার দেখে আতঙ্কিত হচ্ছেন অনেক মানুষ। তারা অনেকেই বলছেন, বর্ষায় ভয়ঙ্কর রূপ নেওয়া এই নদী গুলিতে ঝুঁকির যাত্রা বন্ধ হোক। এক্ষেত্রে তারা প্রশাসনের নজরদারি আবেদন জানিয়েছেন। পাশাপাশি সাধারণ মানুষকেও যে এই ব্যাপারে সচেতন হবে, ব্যাপারেও তারা আর্জি জানিয়েছেন।

    Nayan Ghosh

    Published by:Piya Banerjee
    First published: